আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


আগামী বছরের মধ্যে সাড়ে ঊনিশ হাজার ভবন নির্মাণ শেষ হবে: শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | আগস্ট ১২, ২০১৭ | বিবিধ

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের আরো সততা ও দক্ষতার সাথে কাজ সম্পাদন করতে হবে। আগামী মে মাসের মধ্যে এ অর্থবছরের সকল কাজ সম্পন্ন করতে হবে। এক্ষেত্রে কোন গাফিলতি করা যাবে না। শিক্ষা অবকাঠামো নির্মানে কোন দুর্নীতি সহ্য করা হবে না। এক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছি আমরা।

শিক্ষামন্ত্রী আজ (১২ আগস্ট) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের উন্নয়ন কাজ সম্পর্কিত মাঠ পর্যায়ের প্রকৌশলীদের সাথে মতবিনিময় এবং নবনিয়োগপ্রাপ্ত প্রকৌশলীদের মাঝে মটর সাইকেল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠনের পর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর (ইইডি) সারাদেশে অবকাঠামো নির্মানে ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহন করে। এ উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত আছে এবং নতুন নতুন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, গত সাড়ে আট বছরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় আড়াই গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে নতুন অবকাঠামো নির্মাণের প্রয়োজনীয়তাও অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের বর্ণনা দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, মাধ্যমিক পর্যায়ে প্রথম প্রকল্পের আওতায় ৭ হাজার ৮৫১টি একাডেমিক ভবন নির্মান করা হয়েছে এবং আরো এক হাজার ৫১টি ভবনের নির্মান কাজ চলছে। ৪ হাজার ৬৪০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩২৩টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে উন্নয়ন প্রকল্প শুরু হবে। ৩ হাজার ২২৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উর্দ্ধমুখী সম্প্রসারণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রায় এক হাজার ৫০০ কলেজ ভবন নির্মান করা হয়েছে। আরো এক হাজার ১৭০টি ভবনের নির্মান কাজ চলছে। ২০০টি সরকারি কলেজে বিজ্ঞান শিক্ষার সম্প্রসারণে এক হাজার ৮০৫ কোটি টাকার কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছে। ২ হাজার ২৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে কলেজগুলোতে ছাত্রী হোস্টেল নির্মান করা হবে। মাদরাসা শিক্ষার উন্নয়নে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এক হাজার ১৮৩টি ভবন নির্মান করা হয়েছে । আরো ২ হাজার মাদরাসা ভবন নির্মান প্রক্রিয়াধীন আছে।

তিনি বলেন, চলমান উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ১৮৪টি একাডেমিক ও আবাসিক ভবন, শিক্ষার্থী হল ও গবেষণা ভবন নির্মান করা হচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, আগামী বছরের মধ্যে মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাদরাসা, কলেজ ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সাড়ে উনিশ হাজার ভবন নির্মাণ সম্পন্ন হবে।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী দেওয়ান মোহাম্মদ হানজালার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মহিউদ্দিন খান, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান, ইইডি’র পরিচালক খালেদা আক্তার এবং আইডিইবি’র প্রচার ও গনসংযোগ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম বক্তৃতা করেন।

পরে মন্ত্রী ইইডি’র নবনিয়োগপ্রাপ্ত ৩০০ প্রকৌশলীর মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে মটর সাইকেলের চাবি হস্তান্তর করেন।

মন্তব্যঃ ৩৮টি
  1. হুমায়ুন কবির says:

    ভবন নির্মানতো নিঃসন্দেহে ভালো উদ্যোগ স্যার। এটা অবকাঠামোগত উন্নয়ন যা অবশ্যই ইতিবাচক। তবে, শিক্ষার মানোন্নয়নের জন্যেওতো কিছু পদক্ষেপ জরুরি। যেমনঃ শিক্ষা মন্ত্রণালয় স্বীকৃত- এই দোহাই দিয়ে যেসব শিক্ষা ব্যবসায়ী ক্ষমতাবানদেরকে ভাগের টাকার কেন্দ্রবিন্দু ও মধ্যমণি বানিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভিতরে বসে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির তথাকথিত “ডিটেনশন ক্লাশ” এর নামে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবনকে ও অভিভাবকদের জিম্মী করে বিনা পুঁজিতে ফুলে-ফেঁপে উঠছে তাদের বিরুদ্ধেও সাহসী ও যুগান্তকারি পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। তাহলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগণ ওইসব শিক্ষা ব্যবসায়ীদের খপ্পর থেকে হাঁফ ছেড়ে বাঁচবেন এবং নিঃসন্দেহে আপনার কাছে কৃতজ্ঞ থাকবেন।

    • মোঃ আনোয়ার হোসেন says:

      এতো ভবন নির্মান হওয়ার পরও বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলাধীন পাতাইর ধুলাঝাড়া এ ইউ দাখিল মাদ্‌রাসার ছাত্র/ ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় ৫০০ হওয়ায় অবকাঠামোগত সমস্যার কারনে ছাত্র/ ছাত্রীর ক্লাশ ঘরের বারান্দায় নিতে হচ্ছে। দয়া করে একটা একাডেমিক ভবন নির্মাণ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হউক।

  2. মু আমজাদ হোসেন, সহঃ অধ্যাপক, ইংরেজি, কফিল উদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, লক্ষ্মীপুর । says:

    এ দেশের শিক্ষাশ্রমিক বেসরকারি শিক্ষকদেরকে নায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত রেখে যতোই অবকাঠামোগত উন্নয়ন ঘটানো হোক না কেন, শিক্ষার উন্নয়ন মোটেও ঘটবে না ।

  3. সুশীল চন্দ্র মিস্ত্রী,সভাপতি,বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি,কাঠালিয়া,ঝালকাঠি। says:

    অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয়তার গুরুত্ত্বের ক্রম বিবেচনা করে একাডেমিক ভবন নির্মান করা একান্ত প্রয়োজন।

  4. ভূপাল প্রামানিক, প্র:শি: নামুজা উচ্চ বি: & সেক্রেটারি, বা: প্রধান শিক্ষক সমিতি, বগুড়া সদর। 01711 515468 says:

    Ok…… … …

  5. সজরুল ইসলাম says:

    শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের আরো সততা ও দক্ষতার সাথে কাজ সম্পাদন করতে হবে। এক্ষেত্রে কোন গাফিলতি করা যাবে না। শিক্ষা অবকাঠামো নির্মানে কোন দুর্নীতি সহ্য করা হবে না। এক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছি আমরা। কিন্তু বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে খোজ নিলে জানা যাবে, যে সকল প্রতিষ্ঠানে এ সব ভবণ দেওয়া হচ্ছে তাদের নিকট থেকে ঘুষ বাবদ নেয়া হচ্ছে ১,০০,০০০/- থেকে ১,৫০,০০০/- টাকা। ঘুষের টাকা দিলে তাদের ভবন নির্মান আশায় নিরাশ ছাড়া আর কিছুই না।

  6. মো:সোহেল রানা ,সহকারী শিক্ষক(কম্পিউটার) ,করিম পাড়া বি ,এম দাখিল মাদ্রাসা ;গাবতলী ''বগুড়া says:

    মাননীয় মুন্রী, আমরা ict শিক্ষকেরা খুব অসহায় ,দয়া করে mpo ব্যাবস্হা করুন ।আর কত কষ্ট করব স্যার ।দয়া করুন।

  7. মুহা.সাইফুল্লহ বিন জাকারিয়া.পিরোজপুর, মঠবাড়ীয়া. মুঠোফোন-01719-482639 says:

    স্যার,এত শিক্ষামুলক উন্নয়ন কাজ করেন এজন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ. আপনার কাছে একটু কষ্টের কথা বলি যদিও আপনার জানা আছে, আমরা কি অপরাধ করলাম বৈধভাবে নিয়োগ প্রাপ্ত হয়েও আইসিটি /কম্পিউটার শিক্ষকগন দীর্ঘ 4/5 বছর ধরে এমপিওহীন ভাবে পাঠদান করে আসছি ,ডিজিটাল বাংলাদেশে আইসিটি /কম্পিউটার শিক্ষকদের বেতন নাই ,এর অপমান ডিজিটাল দেশে শিক্ষিত জাতির কাছে আর কি হতে পারে.দয়া করে আমাদের কষ্টের কথা একটু বুঝুন. আর যদি এমপিও হীন শিক্ষক হয়ে অপরাধ করে থাকি তাহলে ফাসিঁ দিয়ে দিন, জামেলা শেষ কিউ এমপিওভুক্তি র জন্য দাবী করবেনা.

  8. এম এ মামুন says:

    নুন আনতে পান্তা শেষ হলে কোন কিছু সম্ভব নয়,স্যার।পেটে ক্ষুধা দালানকোঠা দিয়ে করবেন কি।একজন সহকারী শিক্ষক একজন সরকারি পিয়নের সমতুল্ল আনুদান পাইনা। তাদের জীবন কেমনি চলে,শিক্ষিত সমাজের কাছে আমার প্রশ্ন।

  9. এম এ মামুন says:

    নুন আনতে পান্তা শেষ হলে কোন কিছু সম্ভব নয়,স্যার।পেটে ক্ষুধা দালানকোঠা দিয়ে করবেন কি।একজন সহকারী শিক্ষক একজন সরকারি পিয়নের সমতুল্ল অনুদান পাইনা। তাদের জীবন কেমনি চলে,শিক্ষিত সমাজের কাছে আমার প্রশ্ন।

  10. মোঃ হিলালে ফেরদৌস says:

    ভবন নির্মানের ৫/৭ বছর পর আবার রিপিয়ারিং করতে হয় কেন? ভবন নির্মানের কমপক্ষে ৫০ বছর নির্মানকারী প্রতিষ্ঠানকে রিপিয়ারিং করার ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। কমিশন ব্যবস্থ্যা বন্দ করতে হবে।

  11. আব্দুল হান্নান মিয়া, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক, বন্দর, নারায়ণগন্জ। says:

    শুধু ভবনের উন্নয়ন করলে হবেনা। শিক্ষকের ভাগ্যের উন্নয়ন করতে হবে।

  12. শ‌ফিউল আলম says:

    মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ব‌ল‌লেন গত সা‌ড়ে আট বছরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় আড়াই গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। আগামী বছরের মধ্যে সাড়ে ঊনিশ হাজার ভবন নির্মাণ শেষ হবে।
    কিন্তু সৃষ্টপ‌দের শিক্ষক‌দের এম‌পিও হ‌বে না। তাহ‌লে আমা‌দের প‌কে‌টের টাকা দি‌য়েই কি এসব হ‌চ্ছে না ? মাননীয় মন্ত্রী আ‌মি এক হতভাগা ডিগ্রী তৃতীয় শিক্ষক বল‌ছি। আমা‌দের কষ্টটা বুঝুন। জনবল কাঠা‌মো প‌রিবর্তন করুন। আর কতকাল এভা‌বে দা‌য়িত্ব পালন করব। আমা‌দের এম‌পিও দিন। আমা‌দের পিতামাতা, স্ত্রী সন্তান আপনা‌দের জন্য প্রাণ ভ‌রে দোয়া কর‌বে। আমা‌দের‌কে বাচ‌তে দিন।

  13. Md Aminul Islam says:

    good! but non mpo institute teacherder kono unnoyon hobena?? tader r koto din education minister obohelito kore rakh bay? building er sathay tader ki mpo er babosta kora jai na? building er moto tader beton er jonno ki decession nitay paren na manonio montri??

  14. Md Aminul Islam says:

    building er moto non mpo teacherder batoner jonno ki babosta neoa jaina?

  15. মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহঃশিক্ষক। বাংগালপাড়া ইসলামিয়া দাঃমাঃ অষ্ঠগ্রাম, কিশোর গঞ্জ। says:

    #@# এ দেশের শিক্ষাশ্রমিক বেসরকারি শিক্ষকদেরকে নায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত রেখে যতোই অবকাঠামোগত উন্নয়ন ঘটানো হোক না কেন, শিক্ষার উন্নয়ন মোটেও ঘটবে না।

  16. শ‌ফিউল আলম says:

    মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ব‌ল‌লেন গত সা‌ড়ে আট বছরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় আড়াই গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। আগামী বছরের মধ্যে সাড়ে ঊনিশ হাজার ভবন নির্মাণ শেষ হবে।
    কিন্তু সৃষ্টপ‌দের শিক্ষক‌দের এম‌পিও হ‌বে না। তাহ‌লে আমা‌দের প‌কে‌টের টাকা দি‌য়েই কি এসব হ‌চ্ছে না ? মাননীয় মন্ত্রী আ‌মি এক হতভাগা ডিগ্রী তৃতীয় শিক্ষক বল‌ছি। আমা‌দের কষ্টটা বুঝুন। জনবল কাঠা‌মো প‌রিবর্তন করুন। আর কতকাল এভা‌বে দা‌য়িত্ব পালন করব। আমা‌দের এম‌পিও দিন। আমা‌দের পিতামাতা, স্ত্রী সন্তান আপনা‌দের জন্য প্রাণ ভ‌রে দোয়া কর‌বে। আমা‌দের‌কে বাচ‌তে দিন।।

  17. হেলাল আহম্মদ says:

    মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী মহোদয়, বেসরকারী এমপিও ভুক্ত কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভবন নির্মানের কোন কথা বলা হয়নি,এটি হতাশাজনক কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন ছাড়া আদোও ডিজিটাল বাংলাদেশের কাঙ্খীত স্বপ্ন বাস্তবায়ন কি সম্ভব।

  18. জহিরুল ইসলাম ভূঞা says:

    শিক্ষার অবকাঠামো ভেঙ্গে ধুলিস্মাত করে বিল্ডিং তৈরি করছেন কিসের জন্য? সামনে ইলেকশন, নির্বাচনী খরচ যোগাতে?

  19. ভাল says:

    ভবনের পূর্বে নবম -দশম শ্রেণির এম পিও করলে আমরা উপকৃত হব।

  20. Mosarrof says:

    যে দেশে শিক্ষা ও শিক্ষিতের মূল্য নেই, যে দেশে পোস্ট গ্রেজুয়েশন করেও সরকারি প্রাইমারি স্কুলের নৈশ প্রহরীর চেয়ে কম বেতনে চাকরি করতে হয়,সে দেশে শিক্ষার অবকাঠামো উন্নয়ন করলে শিক্ষার উন্নয়ন কখনও হবে না। এটা দুঃস্বপ্ন ছাড়া আর কিছুই নয়।

  21. Mosarrof says:

    যে দেশে শিক্ষা ও শিক্ষিতের মূল্য নেই, যে দেশে পোস্ট গ্রেজুয়েশন করেও সরকারি প্রাইমারি স্কুলের দপ্তরির চেয়ে কম বেতনে mpo ভুক্ত উচ্চ বিদ্যালয়ে চাকরি করতে হয়, সে দেশে শুধু শিক্ষার অবকাঠামো উন্নয়ন করলে কখনও শিক্ষার উন্নয়ন হবে না। এটা দুঃস্বপ্ন ছাড়া আর কিছুই নয়।

  22. শহিদুল ইসলাম,প্রভাষক,মনজুর কাদের মহিলা কলেজ,পাবনা says:

    যেখানে শিক্ষকের পেটে ভাত নেই, শুধু, দালান দিয়ে শিক্ষার মান উন্নয়ন হবেনা।

  23. মোঃ হান্নান মিয়া পাটিকেলবারি মাদ্রাসা নেছারাবাদ,পিরোজপুর। says:

    আপনার মন্তব্য। হায়রে শিক্ষামন্ত্রী গড়েছেন বহুত কৃতি। শুধু নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা না খেয়ে মরে। যাদের এমপিও নাই তাদের তো নুন আনতে পান্তা ফুরাুয় । তারা আবার ভবন দিয়া কি করিবে। আপনি তো বলেছেন নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যাংয়ের ছাতার গড়ে উঠেছে এবং রাজনৈতিক নেতাদের চাপে এদের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। এদের আইন করে বন্ধ করে দিন। তাহলে আপনার আত্মা শান্তি পাবে। ১৫/১৬ বছর একটা প্রতিষ্ঠান কিভাবে থাকে। একটু ভেবে দেখেছেন। আর কস্ট দিয়েন না। দয়া করে অর্থমন্ত্রী, প্রধানমন্তৃী র সাথে আলোচনা করে নন। এমলিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও দিন।

  24. Alok Ghosh says:

    এত ভবন নির্মান কাজ হয় কিন্তুু নাটোর জেলার অর্ন্তগত নলডাঙ্গা উপজেলাধীন পাটুল হাপানিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে কোন ভবন হয়না। কেউ কি আছেন?

  25. Md sohel says:

    বেসরকারী নিম্ন মাধ্যামিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো যে বেহাল অবস্হা তা দেখার মতো কেউ নাই

  26. মো: আবুল কাশেম সহকারী শিক্ষক লাকেশ্বর দাখিল মাদ্রাসা ছাতক সুনামগঞ্জ says:

    মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মাদ্রাসা লাকেশ্বর দাখিল মাদ্রাসা। কিন্তু ভবনের অভাবে ছাত্রছাত্রী দের পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। আপনার সুদৃষ্টি কামনা করছি।

  27. আহসান হাবীব says:

    মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, ডি‌গ্রি ক‌লে‌জের জনবল কাঠা‌মো প‌রিবর্তন করুন, তৃতীয় শিক্ষক‌দের এম‌পিও দিন। পে‌টের জ্বালা দূর করুন। অতঃপর ভবন নির্মান করুন।

  28. Matiur rahman akando says:

    if you take some action for the teachers that buildup her life as a result devoloped our quality of education

  29. alamgir hossain says:

    পাবনা জলার ফরদপুর উপজলাধন বঙ্গবন্ধুর সময় 1972 সাল ৗতরী বনওযারনগর পাইলট বালকা উচ্চ বঃ ৪ তলা ভবন দরকার।

  30. মোঃ জয়নাল আবেদিন। চতলবাইদ করটিয়াপাড়া দাখিল মাদরাসা, সখিপুর, টাংগাইল। says:

    পেটে ভাত না থাকলে বিল্ডিং দিয়ে কি হবে। আগে নন এমপিও আইসিটি শিক্ষকদের বেতনের ব্যবস্থা করুন।

  31. md.sanaullah khan says:

    সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আবাসিক ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে কোটি কোটি টাকা ব্যায় করে।অথচ বেসরকারি শিক্ষকদের বড়িভাড়া দেওয়া হয় মাত্র ৫০০ টাকা।এটা কেমন নীতি?

  32. হিমাংশু সরকার says:

    এ শিক্ষা মন্ত্রী থাকতে নতুন কোন এমপিও হবেনা ।

  33. এম.সোলয়মান এম.এ says:

    ভবন নির্মান হলেই চলবেনা সাথে আইসিটি স্যারদের বেতনও দিতে হবে

আপনার মন্তব্য দিন