এইচএসসি পরীক্ষা পেছাবে - এইচএসসি/আলিম - দৈনিকশিক্ষা


এইচএসসি পরীক্ষা পেছাবে

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সারাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দ্রম্নত বৃদ্ধি এবং গত বুধবার এই রোগে আক্রান্ত একজনের মৃতু্য হওয়ায় পূর্ব ঘোষিত রুটিন অনুযায়ী আগামী ১ এপ্রিল থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা পেছানোর দাবি অধিক যুক্তিসংগত হচ্ছে। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী ৩১ মার্চ পর্যন্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। 

জানা যায়, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা আয়োজন করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় গঠিত জাতীয় আইনশৃঙ্খলা কমিটির বুধবার সভা ডেকেও তা স্থগিত করেছে। পরীক্ষা উপলক্ষে নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনও স্থগিত করা হয়েছে। এর আগে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধীন কেন্দ্র সচিবদের সভাও স্থগিত করা হয়। সব মিলিয়ে পরস্থিতি পর্যাবেক্ষণ করে আগামী সপ্তাহের মধ্যে পরীক্ষা স্থগিত করার ঘোষণা আসার সম্ভাবনার কথা দৈনিক শিক্ষাকে জানিয়েছে একাধিক সূত্র। 

একাধিক সূত্রমতে, পরীক্ষা পেছানোর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আগামী সোমবার বা মঙ্গলবার সবাইকে জানাতে পারে সরকার। 

পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবি, একটি ক্লাসের ৩০-৪০ জন শিক্ষার্থীকে পাঠদান করানো হয়। আর পরীক্ষার হলে অন্তত ৭০-৮০ জনকে এক রুমে বসানো হয়। পরীক্ষার কক্ষে শিক্ষক, প্রশাসনের লোকজন দায়িত্ব পালন করেন। পরীক্ষার কেন্দ্রের বাইরে পুলিশ প্রশাসনসহ সাধারণ মানুষও ভিড় করেন। পরীক্ষার্থীদের নিজ কলেজ থেকে দূরের কলেজ পরীক্ষার কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়। এসব কারণে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে পরীক্ষা স্থগিত করার দাবি জানিয়েছেন তারা।

এ ব্যাপারে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর জিয়াউক হক বুধবার রাতে দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, পরীক্ষা পেছানোর ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত জানানো হবে। 

পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবি, আইইডিসিআর ঘোষণার পর পরীক্ষায় বসতে যাওয়া ১১ লাখের বেশি পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের মধ্যে নির্ধারিত তারিখে পরীক্ষা নিয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। এর আগে করোনাভাইরাসের কারণে পরীক্ষা শুরুর মাত্র ১৫ দিন আগে গত সোমবার সারাদেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হলেও এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত না করায় পরীক্ষার্থীরা বিপাকে পড়েছেন। বুধবার করোনাভাইরাসে একজনের মৃতু্য ঘোষণার পর বাসা থেকেও বের হতে ভয় পাচ্ছেন। 

অভিভাবকদের দাবির মুখে স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করলেও শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকা নিশ্চিত করা যায়নি। তাই গতকাল বুধবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পুলিশ ও সিভিল প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে বলা হয়েছে, যাতে শিক্ষার্থীরা ঘরে থাকে। 

গত সোমবার এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনে বলেছিলেন, আমরা এখনই এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেইনি। কাছাকাছি সময় গিয়ে সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে তখন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলেও শিক্ষার্থীদের নিরাপদ দূরত্বে রাখতে এক বেঞ্চ পরপর সিট প্লান করা হবে।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি - dainik shiksha প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের - dainik shiksha ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? - dainik shiksha শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন - dainik shiksha ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না - dainik shiksha চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক - dainik shiksha হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প - dainik shiksha শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প please click here to view dainikshiksha website