আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


একইসাথে ৩ প্রতিষ্ঠানের সভাপতি, ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক | অক্টোবর ১২, ২০১৭ | আলিয়া মাদ্রাসা

ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়ীয়ার নবীনগর দ্বি-মুখী দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি ছিদ্দিকুর রহমান মুন্সীর বিরুদ্ধে ঘুষ বাণিজ্যসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ রয়েছে একই সাথে তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতির পদে আছেন তিনি। একটি প্রাথমিক ও দুইটি দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন ছাড়াও তিনি নিয়োগে ঘুষ বাণিজ্য করছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

অভিযোগ করা হয় স্থানীয় সাংসদের ব্যক্তিগত সহকারি হওয়ার কারণে তিনি সভাপতির পদে থেকে নিয়োগ বাণিজ্য করছেন। তার নিয়োগ বাণিজ্যের কারণে মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির শিক্ষক প্রতিনিধিসহ ৬ জন সদস্য ইতোমধ্যে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মাদ্রাসার সুপার পদে এক নিয়োগপ্রত্যাশী অভিযোগ করে বলেন, সভাপতি সুপার পদে নিয়োগ দেয়ার নামে এক প্রার্থীর কাছ থেকে তিন লাখ টাকা নিয়েছেন।

এছাড়া তিনি রেজুলেশন ছাড়া তিনবার পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন এবং বিজ্ঞপ্তির রেজুলেশন লেখার জন্য ভারপ্রাপ্ত সুপারকে চাপ দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে অভিযুক্ত ছিদ্দিকুর রহমান মুন্সীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘রেজুলেশন ছাড়া আবার বিজ্ঞপ্তি দেয়া যায় নাকি? এসময় তিনি বাইরে আছেন বলে মোবাইলের সংযোগ কেটে দেন।’

 এই কমিটির এক প্রভাবশালী সদস্য একই এলাকার একজনের কাছ থেকে টাকা নিয়েছিল ২য় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির সময় ! কিন্তু এখনও টাকা  ফেরত না দিয়ে একই এলাকার ইউনুছ আলীকে পিয়ন পদে ৭লক্ষ টাকার বিনিময়ে এখন নিয়োগ দিতে চাচ্ছে !

মন্তব্যঃ ১৫টি
  1. মোঃ আকরাম হোসেন, বটিয়াপাড়া শিয়ালমারি মা: বি:, আলমডাঙ্গা, চুয়াডাঙ্গা। says:

    সভাপতিদের ঘুষ নেওয়া নতুন ঘটনা নয়। এদের কোনো শাস্তি হই না ।

  2. মোঃ আকরাম হোসেন, বটিয়াপাড়া শিয়ালমারি মা: বি:, আলমডাঙ্গা, চুয়াডাঙ্গা। says:

    এটা সভাপতিদের নতুন ঘটনা নয় ।

  3. আবদুল গফুর মিয়া says:

    সভাপতির পদে থেকে নিয়োগ বাণিজ্য করছেন অনেকে । মাননীয় সরকার বাহাদুর বিদ্যালয় SMC পদ্ধতি বাতিল করে দিলে ভাল হত । সরকার দূর্নীতি অনেক কমিয়েছেন । আশাকরি সরকার SMC পদ্ধতি বাতিল করবেন ।

  4. এম.এ.গনি,সুপার,ভাটিয়াপাড়া দাখিল মাদরাসা,তারাকান্দা,ময়মনসিংহ। says:

    লোকাল সভাপতিরা এমন হওয়া স্বাভাবিক ব্যাপার।

  5. Md.Shaidur Rahman says:

    এভাবেই চলে,চলতে থাকবে অনন্ত কাল, হারিকেন কেটরিনার আঘাত না আসলে হুশ হবে না।

  6. mosharraf hossain says:

    এরই নাম নিয়োগ বানিজ্য ।।

  7. মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, ট্রেড ইন্সট্রাক্টর, কচাকাটা মডেল মহিলা টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ says:

    সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠনে সরকারী কর্মকর্তাদের সভাপতি করা হোক।

  8. মো শফিকুুল ইসলাম says:

    ভাল ।

  9. মোহা: এনামুল হক , সহকারী শিক্ষক , নোয়াখালী সপ্তগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় ৷ সুনামগঞ্জ ৷ says:

    আপনার মন্তব্য :

  10. durmনuk অspeaker(lecturer) says:

    নিয়োগ পরীক্ষা ও NTRC এর অবগতি ছাড়া তো নিয়োগ দেয়া স্বাভাবিক ব্যাপার। ভোলা জেলার চরফ্যাশন থানার উমরপুর গাফুরিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ই তো এভাবে ৭/৮ জন নিয়োগ দেয়া হয়েছে। গত সেপ্টেম্বর মাসের বেতনের সাথেও তো একজন আরবি প্রভাষকের বেতন এসেছে। উনি ১০০০০০০ টাকা দিয়েছেন অধ্যক্ষ ও ডিজি অফিসের দালাল আলহাজ আ. হামিদকে।

  11. dipu das says:

    যেখানে প্রশ্ন, সেখানেই উত্তর নিহিত। সাংসদের ব্যক্তিগত সহকারি। আর কি লাগে? এটুক পরিচয় থাকলে তো সকালে বাংলাদেশকে বেঁচে, বিকালে আরএকজনের নিকট ভাড়া দেওয়া যায়! আর সামান্য স্কুল, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এ ক্ষেত্রে বলতে গেলে বলতে হয় ” কার ছেলে মেয়ে কে পড়ায়!” (পরের ছাবাল পরমানন্দ, গোল্লাই গেলে আমার আনন্দ) আর বর্তমান ম্যানেজিং কমিটি সিষ্টেম? এটা পরিবর্তন করলে তো প্রতিষ্ঠান প্রধান বা অন্যান্য শিক্ষক সভাপতি কে ম্যানেজ দেওয়ার চিন্তা না করে প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের কথা চিন্তা করবে, এতে তো প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন হবে, এটা তো আমরা চাই না, কারণ বাংলা কে তো মুর্খ রাখতেই হবে, তা না হলে তো এদের ভাঙিয়ে নিজের স্বার্থ উদ্ধার করা যাবে না!

  12. Nahid says:

    Abdur Rashid, Chairman , Managing Committee of Mirpur High School, Post-Harinarayanpur, Kumarkhali, Kushtia,is going to appoint a Headmaster by taking a large amount of money as a bribe. The possible candidate has already paid 7,00000 taka out of 20,00000 taka. All the members of SMC+ other members who are related to the recruitment have got the portion of money and rest of money will be given after selection. The probable question will give the fixed candidate. If it is not possible, some qualified teachers who are in English, Mathe and Bangla will sit beside him(possible candidate). Isn’t it a corruption? I request Education Secretary,DG Education,DC kushtia, UNO kumarkhali and DEO kushtia to stop the recruitment through Dainikshiksha.com.(circular published:01/10/2017, Daily janakantha).

  13. রমজান আলী বাবু , কালীগঞ্জ, লালমনিরহাট। says:

    Right. dipu das

  14. অচিন্ত্য মিস্ত্রী। সিনিয়র শিক্ষক, গাওখালী মা:বি:ও কলেজ, নাজিরপুর, পিরোজপুর।। says:

    সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠনে সরকারী কর্মকর্তাদের সভাপতি করা হোক।

  15. shajadul hasan says:

    প্রধান শিক্ষক নিজেকে বর্তমান সরকার ভাবে, আর সহকারী শিক্ষক বিরোদি দল।তাই যুদ্ধ লেগে তাকে।এ ভাবে কি চাকরি করা যাই।প্রতি মাসে শিক্ষক উপস্হিত তাকালেও A কে??

আপনার মন্তব্য দিন