এক নজরে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির হিসাব - এমপিও - Dainikshiksha


এক নজরে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির হিসাব

নিজস্ব প্রতিবেদক |

এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের নভেম্বর মাসের বেতনের সঙ্গে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির টাকা পাঠানো হয়েছে। চার মাসের বকেয়া, নভেম্বর মাসের প্রবৃদ্ধি এবং অবসর ও কল্যাণ ট্রাস্টের ফান্ডে মোট ৬ শতাংশ টাকা কর্তন করার পর কে কত টাকা পেলেন তার একটা হিসেব কষেছে দৈনিক শিক্ষাডটকম। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন ৪ ও ৫ কোডে বেতনপ্রাপ্তরাও ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি পাবেন কারণ তারা বেসরকারি। ৪ ও ৫ গ্রেডের সরকারি চাকুরিজীবীদের জন্য প্রযোজ্য প্রবৃদ্ধির বিধান বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য কার্যকর হবেনা।  

নভেম্বর মাসের বেতনের সঙ্গে পাঁচ শতাংশ প্রবৃদ্ধির বকেয়াসহ একটি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোট পাবেন ৬০ হাজার ২৫০ টাকা। ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে এই টাকা তুলতে পারবেন বলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।  বেতন কোড ৪ হলে মূল বেতন হবে ৫০ হাজার টাকা। এর সঙ্গে যোগ হবে নভেম্বর মাসের ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির ২ হাজার ৫০০ টাকা, মেডিকেল ভাতা ৫০০ ও বাড়িভাড়ার এক হাজার টাকা। মূল বেতন ৫০ হাজার ও পাঁচ শতাংশ প্রবৃদ্ধির দুই হাজার ৫০০ টাকা মিলে ৫২ হাজার ৫০০ টাকা থেকে অবসর ও কল্যাণ ফান্ডের জন্য মোট ৬ শতাংশ হারে কর্তন হবে তিন হাজার ১৫০ টাকা।  বেতন ও বাড়ী ভাড়া এবং মেডিকেল ভাতার যোগফল ৫০ হাজার ৮৫০ টাকা।  এর সঙ্গে যোগ হবে নয় হাজার ৪০০ টাকা। এই নয় হাজার চারশ টাকা হলো ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির দুই হাজার ৫০০ টাকার এবং চার মাসের বকেয়া থেকে ৬ শতাংশ টাকার কর্তনের বিয়োগফল।  যোগবিয়োগ করে একটি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষের জন্য পাঠানো হয়েছে ৬০ হাজার ২৫০ টাকা। 

একইভাবে একটি উচ্চমাধ্যমিক কলেজের অধ্যক্ষের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে পাঠানো হয়েছে ৫২ হাজার পঁচিশ টাকা। তিনি ৫ কোডে বেতন পান। একটি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষও ৫ কোডে বেতন পান। তার জন্যও পাঠানো হয়েছে ৫২ হাজার পঁচিশ টাকা।৬ নম্বর কোডে বেতন পাওয়া একজন সহকারি অধ্যাপকের জন্য ৪৩ হাজার ২১১ টাকা পাঠানো হয়েছে। টাইমস্কেলপ্রাপ্ত ৭ কোডে বেতন পাওয়া একজন প্রভাষক ও প্রধান শিক্ষক পাচ্ছেন ৩৫ হাজার ৫৭৫ টাকা।   



পাঠকের মন্তব্য দেখুন
দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার - dainik shiksha অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website