এজেন্ডা না থাকায় বোর্ড সভায় আসেন না সদস্যরা - বিবিধ - Dainikshiksha


রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডএজেন্ডা না থাকায় বোর্ড সভায় আসেন না সদস্যরা

রাজশাহী প্রতিনিধি |

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের বোর্ড সভায় আসেন না সদস্যরা। বোর্ড চেয়ারম্যনের বিরুদ্ধে সভার এজেন্ডা না জানানো অভিযোগ রয়েছে। সদস্যরা বলছেন, সভার এজেন্ডা না জানানো কারণে উপস্থিত থাকেন না সদস্যরা। তবে বোর্ড চেয়ারম্যান বলছেন, পর পর তিন বার উপস্থিত না হলে তার সদস্য পদ থাকে না। 

জানা গেছে, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড পরিচালনার জন্য ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি পরিচালনা পরিষদ রয়েছে। এই পরিষদ বা কমিটি বোর্ডের বিভিন্ন কাজের অনুমোদনের জন্য সভা করে নিজেদের মধ্যে। গত ১৫ জানুয়ারি সভার আহ্বান করে শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান। বোর্ড পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি তিনি। ওই সভায় তিনি (চেয়ারম্যান) ছাড়া একজন সদস্যও ছিলেন না।

সর্বশেষ ২৫ জানুয়ারি এই বোর্ড সভা আহ্বান করে বোর্ড চেয়ারম্যান। দিনাজপুরের পাঁচবিবি এসএম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেহের নিগার ছাড়া আর কোনো সদস্য ওই সভায় উপস্থিত হননি। তাই সভাপটি প- হয়ে যায়। 

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের বোড পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও পাঁচবিবি এসএম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেহের নিগার দৈনিকশিক্ষা ডটকমকে বলেন, অনেক দূর থেকেও ওই সভায় উপস্থিত হয়েছিলাম। কিন্তু অন্য কোনো সদস্যের সঙ্গে আমার দেখা হয়নি। ফলে সভাও হয়নি। এ কারণে সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত বসে থাকার পরে চলে এসেছি। তবে সভায় কোনো এজেন্ডা ছিল কি না জানি না।

বোর্ড পরিচালনা পর্ষদের আরেক সদস্য ও রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান বলেন দৈনিকশিক্ষা ডটকমকে, ‘সভা আহ্বান করা হলেও কোনো এজেন্ডা থাকে না। এ কারণে সভায় যাওয়া হয় না। তবে তাদের নিজেদের মধ্যে কোনো ঝামেলা আছে কিনা জানি না।’ 

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ দৈনিকশিক্ষা ডটকমকে বলেন, বোর্ড সভা হয় না, কারণ কেউ হয়তো প্রভাবিত করছে। তবে দ্রুতই আবার সভা হবে। এই সভায় কোনো সদস্য পর পর তিন বার উপস্থিত না হলে তার সদস্য পদ থাকে না। 




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে - dainik shiksha এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website