এমপিও বাতিল হচ্ছে ২৪ শিক্ষকের - এমপিও - Dainikshiksha


এমপিও বাতিল হচ্ছে ২৪ শিক্ষকের

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নিয়োগ ও এমপিওভুক্তি বিধি মোতাবেক না হওয়ায় গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধর্মপুর এস আই ডি ভোকেশনাল স্কুলের ২৪ শিক্ষকসহ ৩৫ শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও স্থগিত করার পর তাদের এমপি বাতিল করার উদ্যোগ নিয়েছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তর থেকে এসব শিক্ষককে চিঠি পাঠিয়ে ‘তাদের এমপিও কেন বাতিল করা হবে না’ তার ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাকে এ তথ্য জানায়।  

গত ২০ ডিসেম্বর কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এ ৩৫ শিক্ষক কর্মচারীর এমপিও স্থগিত করার অফিস আদেশ জারি করা হয়। এদের মধ্যে ২৪ জন শিক্ষক ও ৯ জন কর্মচারী রয়েছেন। ২০১৮ খ্রিস্টাব্দের ডিসেম্বর মাস থেকে এসব শিক্ষক-কর্মচারী এমপিও বাবদ বেতন ভাতা উত্তোলন করতে পারবেন না বলেও জানা গেছে। 

আরও পড়ুন : এমপিও স্থগিত হল ২৪ শিক্ষকের

জানা গেছে, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধর্মপুর এস আই ডি ভোকেশনাল স্কুলের শিক্ষক কর্মচারীদের নিয়োগ ও এমপিওভুক্তি সঠিক নেই মর্মে অভিযোগ আসে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে। এ প্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও এমপিওভুক্তির সঠিকতা যাচাইয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর। 

অভিযোগটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করে কমিটি। প্রতিবেদনে প্রতিষ্ঠানটির ৩৫ শিক্ষক-কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, এসব শিক্ষক কর্মচারীর নিয়োগের লক্ষে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে কমিটি গঠনের আবেদন করা হয়নি। নিয়োগ বোর্ডে ডিজির প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন না, এমনকি ডিজি বরাবর প্রতিনিধি মনোনয়নের আবেদনও করা হয়নি। নিয়োগের সময় ছিল না কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের প্রতিনিধি। এছাড়া এসব শিক্ষকের নিয়োগে বিষয় বিশেষজ্ঞ ছিলেন না। এ প্রেক্ষিতে এসব শিক্ষক কর্মচারীর নিয়োগ প্রক্রিয়া যথাযথ ভাবে সম্পন্ন হয়নি বলে মন্তব্য করেছে তদন্ত কমিটি।

 

অভিযোগটি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ এর ২৯.১.৭ ধারা মোতাবেক এ ৩৫ শিক্ষক কর্মচারীর এমপিও স্থগিত করে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।  তাদের এমপিও কেন বাতিল করা হবে না সে মর্মে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে বলে দৈনিক শিক্ষাকে জানিয়েছেন অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা।

এ ৩৫ শিক্ষক-কর্মচারী হলেন, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধর্মপুর এস আই ডি ভোকেশনাল স্কুলের সিভিল কনস্ট্রাকশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর দিপঙ্কর চন্দ্র সরকার, সিভিল কনস্ট্রাকশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর ছালমা বেগম, ফ্রুট এন্ড ভেজিটেবল কালটিভেশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর বিলকিছ আকতার, ফ্রুট এন্ড ভেজিটেবল কালটিভেশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. সামিউল, ফ্রুট এন্ড ভেজিটেবল কালটিভেশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর আ. বারী ডাকুয়া, আইসিটি বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর শাহ রঞ্জু মিয়া,  ফ্রুট এন্ড ভেজিটেবল কালটিভেশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. রশিদুল ইসলাম, ড্রেস মেকিং এন্ড টেইলরিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মনজুয়ারা বেগম, ড্রেস মেকিং এন্ড টেইলরিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. মেহের আলী, ড্রেস মেকিং এন্ড টেইলরিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. মিজানুর রহমান, ফিস কালচার এন্ড ব্রিডিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর সাইদা জাফরিন, ফিস কালচার এন্ড ব্রিডিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর হৃদয় চন্দ্র সরকার, ফুড প্রসেসিং এন্ড প্রিজারভেশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মতিয়ার রহমান, ফুড প্রসেসিং এন্ড প্রিজারভেশন বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. শাহজাহান সিরাজ, জেনারেল মেকানিক্স বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. ইয়াসির আরাফাত,  জেনারেল মেকানিক্স বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. মাহাদিকুল ইসলাম, শ্রিম্প কালচার এন্ড ব্রিডিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর সোনালী রানী, শ্রিম্প কালচার এন্ড ব্রিডিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর ছামছুল আলম, জেনারেল ইলেক্ট্রনিক্স বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর আমেনা বেগম, লাইভস্টক রিয়ারিং এন্ড ফার্মিং বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর মো. সাইফুল ইসলাম, এগ্রাবেসড ফুড বিষয়ের ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর জোসনা বেগম, বাংলা বিষয়ের সহকারী শিক্ষক আঞ্জুমান আরা, ইংরেজি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক মো. রিয়াজুল ইসলাম এবং গণিত বিষয়ের সহকারী শিক্ষক রেজাউল করিম, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধর্মপুর এস আই ডি ভোকেশনাল স্কুলের কম্পিউটার ডেমোনেস্ট্রটর মো. হামিদুল ইসলাম প্রমানিক, কম্পিউটার ডেমোনেস্ট্রটর মো. রাজু মিয়া, কম্পিউটার ল্যাব অ্যাসিসটেন্ট মো. রাজু মিয়া, ইলেকট্রিক্যাল শপ অ্যাসিসটেন্ট মাহিদুল ইসলাম, কম্পিউটার শপ অ্যাসিসটেন্ট মো. জুয়েল মিয়া, বিজ্ঞান ল্যাব অ্যাসিসটেন্ট মো. জাহাঙ্গীর আলম, শপ অ্যাসিসটেন্ট মো. আব্দুর মজিদ, শপ অ্যাসিসটেন্ট সফিউল ইসলাম, অফিস সহকারী মো. আইয়ুব খা, নিম্নমান সহকারী কামরুল ইসলাম নাইম এবং পিওন মো. আমজাদ হোসেন।  




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায়ও থাকছে না জিপিএ ৫ - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায়ও থাকছে না জিপিএ ৫ প্রাথমিকের প্রতিটি শিশুই হবে ডিকশনারি: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রাথমিকের প্রতিটি শিশুই হবে ডিকশনারি: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সাধারণ শিক্ষায় কারিগরি ট্রেড ও শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাখ্যা (ভিডিও) - dainik shiksha সাধারণ শিক্ষায় কারিগরি ট্রেড ও শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাখ্যা (ভিডিও) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তির যোগ্যতা নির্ধারণ - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তির যোগ্যতা নির্ধারণ নবজাগরণের অগ্রদূত আহমদ ছফা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখতেন - dainik shiksha নবজাগরণের অগ্রদূত আহমদ ছফা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখতেন মাদরাসায় নবসৃষ্ট পদ পূরণে টাকার হিসেব চেয়েছে মন্ত্রণালয় - dainik shiksha মাদরাসায় নবসৃষ্ট পদ পূরণে টাকার হিসেব চেয়েছে মন্ত্রণালয় এমপিওভুক্তিতে মহিলা কোটার পদ নির্ধারণে শাখাভিত্তিক আলাদা হিসাব নয় - dainik shiksha এমপিওভুক্তিতে মহিলা কোটার পদ নির্ধারণে শাখাভিত্তিক আলাদা হিসাব নয় ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদন ১০ লাখ ৩৫ হাজার - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদন ১০ লাখ ৩৫ হাজার ঢাকা বোর্ডে এসএসসির ট্রান্সক্রিপ্ট বিতরণ শুরু ২৫ জুন - dainik shiksha ঢাকা বোর্ডে এসএসসির ট্রান্সক্রিপ্ট বিতরণ শুরু ২৫ জুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website