আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


কওমি মাদ্রাসাছাত্রীকে বেত্রাঘাত, আটক ২

বরিশাল প্রতিনিধি | আগস্ট ১২, ২০১৭ | মাদ্রাসা

বরিশালে গৌরনদীতে তৃতীয় শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে টাকা চুরির অপবাদে বেত্রাঘাত ও মারধরের অভিযোগে মামলা হয়েছে।এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (১২ আগস্ট) বিকেলে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম।

তিনি জানান, এ ঘটনায় সকালে শিশুটির মা রেনু বেগম মামলা করেন। মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিদের মধ্যে মাদ্রাসা শিক্ষক হাফিজা বেগম ও ফাতেমা আক্তার লিজাকে আটক করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) রাতে উপজেলার খাদিজাতুল কোবরা (রা.) মহিলা কওমি মাদ্রাসার আবাসিক হলের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী কামরুন নাহার সুমাইয়াকে একশ’ টাকা চুরির অপবাদে সুপার খাদিজা আক্তারসহ বেশ কয়েকজন বেত্রাঘাত ও নির্যাতন করে বলে অভিযোগ ওঠে।

শুক্রবার (১১ আগস্ট) সকালে সুমাইয়ার মা বিষয়টি জানতে পারেন। তিনি ওইদিনই মেয়েকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

রেনু সাংবাদিকদের জানান, মাদ্রাসার সুপার খাদিজার নির্দেশে মুখে গামছা বেঁধে সুমাইয়াকে বেত্রাঘাত করে জখম করা হয়।

মন্তব্যঃ ৪টি
  1. মোঃ হাফিজুল ইসলাম। সহঃশিঃ (আইসিটি)তেলীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, নড়িয়া, শরীয়তপুর। says:

    আমরা তথা কথিত শিক্ষিকাদের বিচার চাই।

  2. গোলাম রসুল নাংগলকোট ডিগ্রি কলেজ says:

    তারা শিক্ষক নয় মাগী।

  3. হুমায়ুন কবির says:

    খাদিজা নামের ওই ডাইনিটাকেও অভিভাবক কর্তৃক একইভাবে শাস্তি দেয়া হোক।

আপনার মন্তব্য দিন