করোনা ভাইরাসে এবার ব্রিটিশ কূটনীতিকের মৃত্যু - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা


করোনা ভাইরাসে এবার ব্রিটিশ কূটনীতিকের মৃত্যু

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

হাঙ্গেরিতে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ব্রিটেনের ডেপুটি হেড অব মিশন স্টিভেন ডিক মারা গেছেন। মঙ্গলবার বুদাপেস্টে ৩৭ বছর বয়সী এই কূটনীতিকের মৃত্যু হয়েছে।খবর গার্ডিয়ানের।

বুধবার ব্রিটেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতি জানায়, স্টিভেন ছিলেন একজন নিবেদিত প্রাণ কূটনীতিক। অত্যন্ত দক্ষতা ও আন্তরিকতা দিয়ে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। তাকে যারা চিনতেন ও তার সঙ্গে কাজ করতেন, সবাই তার অভাব অনুভব করবেন।

করোনায় ব্রিটেনের ডেপুটি হেড অব মিশন স্টিভেন ডিকের মৃত্যু | ছবি : সংগৃহীত

এর আগে রিয়াদ ও কাবুলেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। গত বসন্তে তাকে বুদাপেস্টে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এর আগে তিনি পুরো এক বছর হাঙ্গেরি ভাষার প্রশিক্ষণের ভেতরে ছিলেন।

বিবিসি বলেছে, মঙ্গলবার স্টিভেন ডিকের মৃত্যু হয় বলে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নিশ্চিত করেছে। তার অন্য কোনো স্বাস্থ্য জটিলতা ছিল কি না, তা জানা যায়নি।

সম্প্রতিতে মেক্সিকোতে ছুটি কাটিয়ে তিনি বুদাপেস্টে ফেরেন। আর গত সপ্তাহের শুরুতে হোয়াটসঅ্যাপের এক বার্তায় নিজের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর দেন। এরপর তিনি আইসোলেশনে চলে যান।

কিছুটা বিরক্তি ছাড়া তিনি ভালো বোধ করেছেন বলেও জানিয়েছেন। স্থানীয় সূত্র জানায়, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে বুদাপেস্টের একটি হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু তার অবস্থার দ্রুত অবনতি ঘটে।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব বলেছেন, স্টিভেন ডিকের মৃত্যুর খবরে তিনি দারুণ মর্মাহত।

রিয়াদে যাওয়ার আগে তিনি প্রায় এক বছরের চেষ্টায় আরবি ভাষাও শিখেছিলেন বলে ডেইলি মেইলের খবর। স্টিভেন ডিকের কর্মজীবন শুরু হয়েছিল ব্যাংক অব স্কটল্যান্ডে। তিন বছর সেখানে কাজ করে তিনি ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দপ্তরে যোগ দেন।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের হিসাবে হাঙ্গেরিতে এ পর্যন্ত সোয়া দুইশ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে দশ জনের।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
শিক্ষক নিয়োগ কমিশন আইনের খসড়া প্রস্তুত - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগ কমিশন আইনের খসড়া প্রস্তুত আটকে যাচ্ছে তৃতীয় চক্রে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া (ভিডিও) - dainik shiksha আটকে যাচ্ছে তৃতীয় চক্রে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া (ভিডিও) এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যানদের তিন প্রস্তাব - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যানদের তিন প্রস্তাব মাদরাসার স্বীকৃতি ও বিভাগ খোলার প্রস্তাব মূল্যায়নে মন্ত্রণালয়ের কমিটি - dainik shiksha মাদরাসার স্বীকৃতি ও বিভাগ খোলার প্রস্তাব মূল্যায়নে মন্ত্রণালয়ের কমিটি ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত - dainik shiksha ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত জালসনদেই ৭ বছর এমপিওভোগ! - dainik shiksha জালসনদেই ৭ বছর এমপিওভোগ! কবে কোন দিবস, কীভাবে পালন, নতুন নির্দেশনা জারি - dainik shiksha কবে কোন দিবস, কীভাবে পালন, নতুন নির্দেশনা জারি শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে শিক্ষক সমাবেশ ৫ অক্টোবর - dainik shiksha শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে শিক্ষক সমাবেশ ৫ অক্টোবর please click here to view dainikshiksha website