ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকি, গোয়েন্দাদের অভিযান - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা


ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকি, গোয়েন্দাদের অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

বেসরকারি ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভ্যাট ফাঁকি উদঘাটনে অভিযান পরিচালনা করেছে ভ্যাট নিরীক্ষা গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। সংস্থাটি জানিয়েছে- ক্যামব্রিয়ান কলেজের মূল প্রতিষ্ঠান বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্কের কার্যালয়ে মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর)  অভিযান চালিয়ে দালিলিক নথি জব্দ করা হয়েছে। 

এই প্রতিষ্ঠানটি বিদেশে শিক্ষার্থী পাঠানোর পরামর্শক হিসেবেও কাজ করছে। এসব সেবার বিপরীতে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক বিশাল ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে। ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকির গোপন তথ্য রয়েছে। ভ্যাট নিরীক্ষা গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুলম খান বলেন, বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক বিদেশে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফির টাকা দেশে গ্রহণ করছে। সেই টাকা তারা কীভাবে পাঠায় ও কী পরিমাণে ফি নেয় এবং কী পরিমাণে ভ্যাট ফাঁকি দেয় সেই তথ্য উদঘাটনেই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ভ্যাট গোয়েন্দা জানিয়েছে, গতকাল সংস্থাটির উপপরিচালক তানভীর আহমেদের নেতৃত্বে ১২ সদস্যবিশিষ্ট দল বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক ও ক্যামব্রিয়ান কলেজে অভিযান চালায়।

এর আগে ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের জুলাই মাসে বিএসবি ফাউন্ডেশন ও তার ছয়টি সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের তথ্য জানতে চেয়েছিল জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ক্যামব্রিয়ান ও বিএসবির মালিক এম কে বাশার। ক্যামব্রিয়ান কলেজের বিরুদ্ধে পাবলিক পরীক্ষা ও পাস এবং জিপিএ ফাইভ পাওয়া নিয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগ প্রমাণিত হয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তদন্তে কিন্তু দশ বছর ধরে কোনো শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।  

প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যাংক হিসাবের তথ্য চেয়ে সম্প্রতি দেশের ব্যাংকগুলোতে চিঠি পাঠায় এনবিআরের সেন্ট্রাল ইন্টিলিজেন্স সেল (সিআইসি)।

যেসব প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে সেগুলো হলো-বিএসবি ফাউন্ডেশন, ক্যামব্রিয়ান কলেজ, ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ক্যামব্রিয়ান স্কুল, মেট্রোপলিটন কলেজ, কিংস কলেজ ও ক্যামব্রিয়ান হোস্টেল।

বিএসবি ফাউন্ডেশনের অধীনে মোট ১৫টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সাধারণত কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান আয়কর ফাঁকি দিচ্ছে বলে ধারণা থেকে সেই ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের তথ্য সংগ্রহ করে থাকে সিআইসি।

সেন্ট্রাল ইন্টিলিজেন্স সেলের চিঠিতে বলা হয়েছে, এসব প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট কোনো ব্যক্তির একক বা যৌথ নামে পরিচালিত যে কোনো ধরনের হিসাব থাকলে তা জানাতে হবে। এছাড়া আগে সচল, কিন্তু বর্তমানে বন্ধ এমন হিসাব থাকলেও তা জানাতে বলেছে সিআইসি।

বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্কের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যে বলা হয়েছে- এটি একটি সেবা ও পরামর্শকমূলক প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠার পর থেকে ভর্তি ভিসা, ইমিগ্রেশন, ভ্রমণ, দেশে ও বিদেশে ভর্তির সব তথ্য নিয়ে কাজ করে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স, রাশিয়া, মালয়েশিয়া, চীন, সাইপ্রাস ও হাঙ্গেরিসহ বিভিন্ন দেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে উচ্চশিক্ষার জন্য পরামর্শ দিয়ে থাকে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক। বিএসবি প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে- ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজ, কিংস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মেট্রোপলিটন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উইলসন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ক্যামব্রিয়ান ইন্টারন্যাশনাল কলেজ অব এভিয়েশন, ক্যামব্রিয়ান ইন্টারন্যাশনাল লেঙ্গুয়েজ সেন্টার ইত্যাদি।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন করবেন যেভাবে - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন করবেন যেভাবে স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রমোশন: সরকারের সিদ্ধান্ত জানা যাবে কাল - dainik shiksha স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রমোশন: সরকারের সিদ্ধান্ত জানা যাবে কাল প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের আবেদন শুরু ২৫ অক্টোবর - dainik shiksha প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের আবেদন শুরু ২৫ অক্টোবর অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত বাতিল চায় ছাত্র ফ্রন্ট - dainik shiksha অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত বাতিল চায় ছাত্র ফ্রন্ট দাখিলের রেজিস্ট্রেশন নবায়ন শুরু - dainik shiksha দাখিলের রেজিস্ট্রেশন নবায়ন শুরু প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে প্রতারণা: আদালতে শিক্ষা ভবনের কর্মকর্তা - dainik shiksha প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে প্রতারণা: আদালতে শিক্ষা ভবনের কর্মকর্তা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নতুন ডিজি মনসুরুল আলম - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নতুন ডিজি মনসুরুল আলম উচ্চমাধ্যমিকের উপবৃত্তি পেতে শিক্ষার্থীদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার সময় বাড়লো - dainik shiksha উচ্চমাধ্যমিকের উপবৃত্তি পেতে শিক্ষার্থীদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার সময় বাড়লো ইএফটির মাধ্যমে শিক্ষকদের বেতন দিতে কাজ চলছে - dainik shiksha ইএফটির মাধ্যমে শিক্ষকদের বেতন দিতে কাজ চলছে please click here to view dainikshiksha website