ক্রিকেট ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অধিকাংশ ঘটনায় ভারত জড়িত : আইসিসি - খেলাধুলা - দৈনিকশিক্ষা


ক্রিকেট ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অধিকাংশ ঘটনায় ভারত জড়িত : আইসিসি

দৈনিক শিক্ষা ডেস্ক |

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) শুরু থেকেই রয়েছে চাপা অভিযোগ। জমজমাট এ টুর্নামেন্টের বেশিরভাগ ম্যাচই নাকি পাতানো- এমন অভিযোগ শোনা যায় প্রতিবছরই। এর মধ্যে ২০১৩ সালে প্রমাণিতও হয়েছিল এ অভিযোগ।

তখন ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) ভেবেছিল হয়তো এরপর থেকে ভারতের ম্যাচ ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িতদের দৌরাত্ম্য কমবে। কিন্তু বাস্তব চিত্র ভিন্ন। আইসিসিই জানাচ্ছে, ক্রিকেটে যত ম্যাচ ফিক্সিংয়ের ঘটনা রয়েছে, এর বেশিরভাগের সঙ্গেই জড়িত ভারত।

শনিবার স্পোর্টস ল এন্ড পলিসির ওপর করা এক ওয়েবিনারে আইসিসির ম্যাচ ফিক্সিং তদন্তের সমন্বয়কারী স্টিভ রিচার্ডসন বলেছেন, ‘আমাদের হাতে এখন ৫০টির মতো ম্যাচ ফিক্সিংয়ের তদন্ত চলছে। এর বেশিরভাগেরই ভারতের সঙ্গে যোগসুত্রতা রয়েছে।’

তবে তাই বলে যে, সব খেলোয়াড়রা এর সঙ্গে জড়িত এমনটা নয়। বরং যারা ফিক্সিং সাজায় অর্থাৎ বাজিকর, তাদের বেশিরভাগ ভারতীয়- এমনটাই জানিয়েছেন রিচার্ডসন। খেলাটির জন্য এটি খুবই আশঙ্কাজনক হিসেবেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

রিচার্ডসন বলেন, ‘ম্যাচ ফিক্সিংয়ের সবশেষ পর্যায়ে গিয়ে আসে খেলোয়াড়রা। সমস্যা হচ্ছে যারা এই ফিক্সিংটা পরিচালনা করে, যারা খেলোয়াড়দের টাকা দেয় মাঠের বাইরে বসে। আমি এখনই অন্তত ৮ জনের নাম ভারতের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কাছে দিতে পারব, যারা প্রতিনিয়ত খেলোয়াড়দের সঙ্গে ফিক্সিংয়ের বিষয়ে যোগাযোগ করে।’

এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে ফিক্সিংকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে ঘোষণা করা ছাড়া পথ নেই বলে জানিয়েছেন রিচার্ডসন, ‘শ্রীলঙ্কা প্রথম দেশ হিসেবে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের বিরুদ্ধে আইন করেছে। যে কারণে এখন লঙ্কান ক্রিকেট আগের চেয়ে সুরক্ষিত। অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে আমরা আগেই সতর্ক। ভারতে এমন কোন আইন না থাকায়, আকসু এক হাত বাধা অবস্থায় কাজ করছে।’




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
করোনার টিকাকে বৈশ্বিক সম্পদ হিসেবে বিবেচনার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর - dainik shiksha করোনার টিকাকে বৈশ্বিক সম্পদ হিসেবে বিবেচনার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর একাদশে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন শুরু করোনা ঝুঁকি থাকাকালিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই - dainik shiksha করোনা ঝুঁকি থাকাকালিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ : আরেক আসামি অর্জুন গ্রেফতার - dainik shiksha এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ : আরেক আসামি অর্জুন গ্রেফতার এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন, ২ গার্ড সাসপেন্ড - dainik shiksha এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন, ২ গার্ড সাসপেন্ড বাংলাদেশের জন্য বিশ্ব ব্যাংকের ২০০ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন - dainik shiksha বাংলাদেশের জন্য বিশ্ব ব্যাংকের ২০০ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন ১ অক্টোবর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস রুটিন - dainik shiksha ১ অক্টোবর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস রুটিন অফিস সময়ে কর্মকর্তাদের বাইরে ঘোরাঘুরিতে বিরক্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয় - dainik shiksha অফিস সময়ে কর্মকর্তাদের বাইরে ঘোরাঘুরিতে বিরক্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয় বরখাস্ত অধ্যক্ষের অভিনব প্রতারণা - dainik shiksha বরখাস্ত অধ্যক্ষের অভিনব প্রতারণা please click here to view dainikshiksha website