ছাত্রলীগের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী নিজে দেখছেন: সেতুমন্ত্রী - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা


ছাত্রলীগের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী নিজে দেখছেন: সেতুমন্ত্রী

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পদকের বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে দেখছেন। কোনো সংযোজন, বিয়োজন, পরিবর্তন বা সংশোধনের প্রশ্ন এলে সেটা প্রধানমন্ত্রী নিজেই করবেন। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। খবর ইউএনবির।

ছাত্রলীগের আগাম সম্মেলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আগাম সম্মেলনের কোনো সিদ্ধান্ত পাইনি। এটি দলের অভ্যন্তরীণ বিষয়। পুরোপুরিভাবে নেত্রী নিজেই দেখেছেন এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। দলের চারজনকে ছাত্রলীগের বিষয়টি দেখাশুনার দায়িত্ব দিয়েছেন। তবে সিদ্ধান্ত আকারে কোনো কিছু না এলে আমি কিছু বলতে পারি না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দলের ভেতরে খারাপ কাজ হলে, শৃঙ্খলা ভঙ্গ হলে কাউকে তিরস্কার করার পক্ষে আমি। আবার ভালো কাজের পুরস্কারও দেওয়া উচিত।

ছাত্রলীগের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী বিদ্যমান ‘কমিটি ভেঙ্গে’ দিতে বলেছেন বলে সম্প্রতি কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রচারিত হয়। এরপর বিষয়টি সামাজিক মাধ্যম ও গণমাধ্যমে আলোচনায় উঠে আসে।

পদ্মা সেতুর টোল সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, পদ্মা সেতুর টোল নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। সেতুর নির্মাণ প্রক্রিয়া এগিয়ে চলছে।

মহাসড়কে টোল আরোপের বিষয়ে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, যাত্রীবাহীসহ সব গাড়িকেই টোল দিতে হবে। পৃথিবীর সব দেশেই রাস্তা ব্যবহারে টোল দিতে হয়। কোন মহাসড়কে কত এবং কোন গাড়ির জন্য কত টোল ধার্য হবে- সে বিষয়টি একটি নিয়মের মধ্যে আনা হচ্ছে।

তবে সব মহাসড়কে টোল বসানো হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, জাতীয় মহাসড়কের মধ্যে যেগুলো ৪, ৬ এবং ৮ লেন সড়ক আছে বা নতুন করে হবে আপাতত সেগুলোতেই আমরা টোল আরোপের চিন্তা-ভাবনা করছি।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন - dainik shiksha এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ - dainik shiksha মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website