জাফর ইকবালের বক্তব্যে বিস্মিত উপাচার্যরা - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha


জাফর ইকবালের বক্তব্যে বিস্মিত উপাচার্যরা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের নিয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল সম্প্রতি যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ।

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে লবিংয়ের মাধ্যমে ভাইস চ্যান্সেলর নিয়োগ দেয়া হয় : জাফর ইকবাল

শুক্রবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের এক অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছিলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মান খুবই খারাপ হয়ে গেছে। কেননা এখনকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে লবিংয়ের মাধ্যমে ভাইস চ্যান্সেলর নিয়োগ দেয়া হয়। যাদের ভাইস চ্যান্সেলর হওয়ার যোগ্যতাই নাই।

ওই বক্তব্যের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. হারুন অর রশিদ শনিবার এক বিবৃতিতে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যদের নিয়োগ সম্বন্ধে ড. জাফর ইকবালের ঢালাও মন্তব্য উপাচার্যবৃন্দকে বিস্মিত ও মর্মাহত করেছে। তার মতো একজন দায়িত্ববান ব্যক্তি কীভাবে এরূপ মন্তব্য করতে পারেন, সেটি ভেবে আশ্চার্যান্বিত হতে হয়। শুধু লবিং করেই যে উপাচার্য হওয়া যায় না এবং অনেক যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া শেষে যে উপাচার্য পদে নিয়োগ প্রদান করা হয় সে বিষয়টি তার অজানা নয়। তার ওই বক্তব্য-মন্তব্য খোদ সরকার ও মাননীয় চ্যান্সেলরের এ সংক্রান্ত বিবেচনাকেও প্রশ্নবিদ্ধ করার সামিল।

বিবৃতি তিনি আরও বলেন, ড. জাফর ইকবাল দেশের ৪২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যগণের একাডেমিক প্রোফাইল কষ্ট করে একবার দেখে নিলে তিনি দেখতে পাবেন যে, তার ওই বক্তব্য কতটা অষাঢ় বা বাস্তবতা বিবর্জিত। সমাজে যারা সেলিব্রেটি হিসেবে পরিগণিত তাদের আচার-আচরণ, উচ্চারণ, মন্তব্য আরও সতর্ক ও বস্তুনিষ্ঠ হওয়া একান্ত কাম্য।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে - dainik shiksha এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website