জালিয়াতি করে নিয়োগ পাওয়া উপাধ্যক্ষের এমপিও বন্ধ - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা


জালিয়াতি করে নিয়োগ পাওয়া উপাধ্যক্ষের এমপিও বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নিয়োগ কমিটির সদস্যদের স্বাক্ষর ও চিঠি জাল করে নিয়োগ পেয়েছিলেন উপাধ্যক্ষ। নিয়োগের কাম্য যোগ্যতা না থাকলেও ভোলার চর ফ্যাশন উপজেলার মিয়াজুন ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসায় উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পেয়ে এমপিওভুক্ত হয়েছিলেন শরীফ মো. মনিরুল ইসলাম। নিয়োগ কমিটির সদস্যদের চিঠি ও স্বাক্ষর জাল করা হয়েছিল। কিন্তু অবশেষে ফাঁস হয়েছে সব কুকর্ম। জালিয়াতির প্রমাণ পাওয়ায় মাদরাসাটির উপাধ্যক্ষ শরীফ মো. মনিরুল ইসলামের এমপিও বন্ধ করেছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। 

একই সাথে তার এমপিও কেন স্থায়ীভাবে বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে উপাধ্যক্ষকে শোকজ করা হয়েছে। মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) উপাধ্যক্ষকে শোকজ নোটিশ পাঠানো হয়। 

এদিকে অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করে দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেছেন, জালিয়াতির মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া বা এমপিওভুক্ত হওয়া কেউ মাফ পাবেন না। 

জানা গেছে, মাদরাসাটির উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পেয়ে গত মে মাসে এমপিওভুক্ত হয়েছেন শরীফ মো.  মনিরুল ইসলাম। তবে, উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পেতে যথাযথ অভিজ্ঞতার যোগ্যতা তার ছিল না। যার প্রমাণ পেয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। উপাধ্যক্ষকে পাঠানো শোকজ নোটিসে বিষয়টি উল্লেখ করে অধিদপ্তর বলেছে, তার নিয়োগে বিদ্যামান এমপিও নীতিমালা মানা হয়নি। তার এমপিওভুক্তির কাগজ পত্র পর্যালোচনা করে জালিয়াতির প্রমাণও পেয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর।  

অভিজ্ঞতার যোগ্যতার স্বল্পতা থাকা উপাধ্যক্ষকে নিয়োগ দিতে নিয়োগ কমিটির প্রতিনিধিদের স্বাক্ষর ও চিঠি জাল করা হয়েছে। যার প্রমাণও পেয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। 

জানা গেছে মাদরাসাটিতে উপাধ্যক্ষ নিয়োগের প্রথম নিয়োগ বোর্ড গতবছরের ১৩ এপ্রিল ঢাকার মদিনাতুল উলুম মডেল মহিলা কামিল মাদরাসায় অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু পরীক্ষার সময় তখনকার ডিজির প্রতিনিধি মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম পরীক্ষার স্থান ত্যাগ করেন। ফলে, নিয়োগ বোর্ড স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু তখনকার টেবুলেশন শিটে দেখা যায় শরীফ মো. মনিরুল ইসলাম একজন প্রভাষক ও তার কাম্য যোগ্যতা নেই। নিয়োগ বোর্ড স্থগিত থাকলেও জালিয়াতি করে নিয়োগ দেয়া হয় শরীফকে। তাই সেবছর প্রথম নিয়োগ পেয়েও এমপিওভুক্ত হতে পারেননি তিনি। ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের প্রতিনিধি হিসেবে সে নিয়োগ কমিটিতে ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল অদুদ।  রিপোর্টে তিনি জানিয়েছেন, তিনি টেবুলেশন শিটে স্বাক্ষর না করলেও তার স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে।  

পরে চলতিবছর মার্চ মাসে আবারও উপাধ্যক্ষ নিয়োগে উদ্যোগ নেয় মাদরাসা কর্তৃপক্ষ। এবার অধিদপ্তর থেকে জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়ার কথা ছিল সহকারী সচিব পদমর্যাদার কোন কর্মকর্তাকে। কিন্তু সে চিঠি জাল করে ভোলার জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে নিয়োগে ডিজির প্রতিনিধি হিসেবে দেখানো হয়েছে। মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর জানিয়েছে নিয়োগের কাগজপত্রে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার স্বাক্ষর আছে। এভাবে জালিয়াতি করে নিয়োগ পান শরীফ মো. মনিরুল ইসলাম। পরে জালিয়াতি করা কাগজপত্র জমা দিয়ে গত মে মাসে এমপিওভুক্ত হন। কিন্তু তার আগের কাগজ পত্র দেখে জালিয়াতির প্রমাণ পায় মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। 

অধিদপ্তর থেকে পাঠানো শোকজ নোটিশে বলা হয়, জালিয়াতি করে নিয়োগ পাওয়া ও এমপিওভুক্ত হওয়া  শরীফ মো. মনিরুল ইসলামের এমপিও স্থাগিত করা হল। তার এমপিও কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে উপাধক্ষকে শোকজ করা হয়েছে। ১০ কর্মদিবসের মধ্যে তাকে অধিদপ্তরে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে উপাধ্যক্ষকে। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
১৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ল স্কুল কলেজের ছুটি, পরিস্থিতি বিবেচনায় কিছু প্রতিষ্ঠান খোলার চিন্তা - dainik shiksha ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ল স্কুল কলেজের ছুটি, পরিস্থিতি বিবেচনায় কিছু প্রতিষ্ঠান খোলার চিন্তা ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল শিগগিরই : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল শিগগিরই : শিক্ষামন্ত্রী ‘আশা করছি এসএসসি পেছাতে হবে না’ - dainik shiksha ‘আশা করছি এসএসসি পেছাতে হবে না’ ভর্তিতে সরাসরি লিখিত পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে বুয়েট উপাচার্য - dainik shiksha ভর্তিতে সরাসরি লিখিত পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে বুয়েট উপাচার্য পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি বাগিয়ে নিলো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মালিকরা - dainik shiksha পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি বাগিয়ে নিলো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মালিকরা মূল্যায়ন করেই শিক্ষার্থীদের এসএসসির জন্য নির্বাচনের পরিকল্পনা - dainik shiksha মূল্যায়ন করেই শিক্ষার্থীদের এসএসসির জন্য নির্বাচনের পরিকল্পনা আলিমের বাংলা ১ম পত্রের পরিমার্জিত সিলেবাস - dainik shiksha আলিমের বাংলা ১ম পত্রের পরিমার্জিত সিলেবাস দশ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন ভবন পাচ্ছে - dainik shiksha দশ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন ভবন পাচ্ছে লক্ষাধিক শিক্ষকের অবৈধ সনদের বৈধতা দিলেন বিদায়ী প্রাথমিক সচিব - dainik shiksha লক্ষাধিক শিক্ষকের অবৈধ সনদের বৈধতা দিলেন বিদায়ী প্রাথমিক সচিব এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীদের সুপারিশের আগে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের মতামত নেবে এনটিআরসিএ - dainik shiksha এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীদের সুপারিশের আগে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের মতামত নেবে এনটিআরসিএ নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে ভর্তি : প্রধান শিক্ষকরা পরীক্ষার পক্ষে - dainik shiksha নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে ভর্তি : প্রধান শিক্ষকরা পরীক্ষার পক্ষে অনার্স ও পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার জোর প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর - dainik shiksha অনার্স ও পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার জোর প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর please click here to view dainikshiksha website