জেদ্দায় কারফিউয়ের সময় বাড়ল, মসজিদে ফের নামাজ বন্ধ - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা


জেদ্দায় কারফিউয়ের সময় বাড়ল, মসজিদে ফের নামাজ বন্ধ

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সৌদি আরবের জেদ্দায় চলমান কারফিউয়ের সময়সীমা আবারও বাড়ানো হয়েছে। আগামীকাল শনিবার থেকে কারফিউ বিকেল ৩টায় শুরু হয়ে ভোর ৬টায় শেষ হবে। শুক্রবার (৫ জুন) সৌদির জনপ্রিয় পার্সনাল ব্লগ সৌদি বাজ এ তথ্য জানিয়েছে।

গোটা সৌদি আরবে চলছিল কারফিউ শিথিলের দ্বিতীয় ধাপ। এই ধাপে দিনভর অফিস, আদালত ও ব্যবসায়িক কর্মযজ্ঞ চলার পর রাতের ৮টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত চলছিল কারফিউ। তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় জেদ্দার কারফিউয়ের সময় এবং বিচরণক্ষেত্র সীমাবদ্ধ করা হলো।

নতুন ধাপে যেসব ধারা যুক্ত হয়েছে-

১. রাত ৮টার পরিবর্তে বিকেল ৩টা থেকে কারফিউ শুরু হয়ে পরদিন ভোর ৬টায় শেষ হবে।
২. মসজিদে শুধু আজান হবে। নামাজ পড়া বন্ধ থাকবে।
৩. সরকারি এবং বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে।
৪. পাঁচজনের বেশি মানুষ জমায়েত হওয়া নিষিদ্ধ।
৫. খাবার হোটেল আবার বন্ধ করা হল। শুধুমাত্র পার্সেল নেওয়া যাবে।
৬. অভ্যন্তরীণ বিমান, ট্রেন ও বাস চলাচল করবে।
৭. কারফিউ শিথিলের সময় অর্থাৎ ভোর ৬টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত জেদ্দা থেকে বের হওয়া যাবে এবং জেদ্দায় প্রবেশ করা যাবে।

তবে কারফিউয়ের মধ্যেও জেদ্দার সঙ্গে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটগুলো চালু থাকবে। এ সময় বিমানযাত্রীর সঙ্গে থাকা বোর্ডিংপাস অথবা টিকেট তার চলাচলের অনুমতি বহন করবে।

গত ২০ মার্চ সৌদি আরবের সব মসজিদে নামাজ পড়া স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘ ১১ সপ্তাহ পর আজ শুক্রবার দেশটির মসজিদগুলোতে জামাতে জুম্মার নামাজ অনুষ্ঠিত হল। আবার আজই জেদ্দায় মসজিদে নামাজ আদায় স্থগিতের ঘোষণা এলো।

আগামীকাল শনিবার থেকে আগামী ২১ জুন পর্যন্ত ১৫ দিন এই বিধিনিষেধগুলো কেবলমাত্র জেদ্দার জন্য প্রযোজ্য। তবে প্রয়োজনে সৌদি আরবের যে কোনো অঞ্চলেই পরিস্থিতির সাপেক্ষে এই বিধিনিষেধসমূহ চালু হতে পারে।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৬৮৬ - dainik shiksha করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৬৮৬ আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ইন্টারনেট : সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি মোবাইল অপারেটররা - dainik shiksha শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ইন্টারনেট : সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি মোবাইল অপারেটররা জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা - dainik shiksha জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ - dainik shiksha প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ স্কুলছাত্রের মৃত্যুতে পরোক্ষ দায়ী সেই যুগ্মসচিব নৌঅধিদপ্তরের মহাপরিচালক - dainik shiksha স্কুলছাত্রের মৃত্যুতে পরোক্ষ দায়ী সেই যুগ্মসচিব নৌঅধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ হতে পারছেন না প্রভাষকরা: রুলের জবাব দেয়নি সরকার - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ হতে পারছেন না প্রভাষকরা: রুলের জবাব দেয়নি সরকার শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website