ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল ডাক্তার ও রোগী শূন্য - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা


ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল ডাক্তার ও রোগী শূন্য

ঝালকাঠি প্রতিনিধি |

নভেল করোনা ভাইরাস আতঙ্কে রোগী শূন্য হয়ে পড়েছে ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল। রোগী না থাকা ও নিজ নিরাপত্তার অভাবে চিকিৎসকরাও আসছেন না হাসপাতালে। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ধারণা, সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাসের সচেতনা বৃদ্ধি পাওয়ায় হাসপাতাল রোগী শূন্য হয়ে পড়েছে।

সরকারি এ হাসপাতালটিতে রোগী ও ডাক্তার শূন্য থাকায় বন্ধ রয়েছে বহিঃবিভাগ, অপারেশন থিয়েটার, ল্যাবরেটরি ও অভ্যর্থনা কেন্দ্র। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, হাসপাতালের বহিঃবিভাগে কোনো রোগীর আনাগোনা নেই। সেখানকার চিকিৎসকদের রুমগুলোও তালা বদ্ধ। বন্ধ রয়েছে টিকেট কাউন্টার।

স্বাভাবিক সময়ে যেখানে ৩০০ হতে ৪০০ রোগীর ভিড় থাকতো, সেখানে করোনা প্রকোপের কারণে পুরোটাই রোগীশূন্য। বর্তমানে গোটা হাসপাতালটিতে বিরাজ করছে ভুতুরে পরিবেশ।

তবে নিচ তলায় জরুরি বিভাগে মাঝে মধ্যে কাটা ছেরা কিছু রোগী আসছেন যাদের ব্যান্ডেজ ও সেলাই না করলেই নয়। এই জরুরি বিভাগে হাসপাতালের স্টাফরা সেলাই ও ব্যান্ডেজ এর কাজ সম্পন্ন করছেন। দ্বিতীয় তলায় ওয়ার্ডগুলো ফাঁকা হয়ে আছে। তবে ২/৩ জন ডিউটি নার্সকে সেখানে অলস সময় পার করতে দেখা গেছে।

এখানকার দায়িত্বরত এক নার্স বলেন, রোগী নেই তাই এখন বাসা থেকে আসি আর যাই। এক কথায় রোগীর সেবার সময়টুকু এখন আসবাব পাহাড়া দিচ্ছি। হাসপাতালটির আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) মো. আবুয়াল হাসানের কক্ষটিও তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখা গেছে।

ঝালকাঠির সিভিল সার্জন ডা. শ্যামল কৃষ্ণ হালদার বলেন, ‘আতঙ্কে রোগীরা হাসপাতালে আসছে না। তবে কোনো রোগী আসলে তাকে চিকিৎসা দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। এখনও কিছু রোগী ভর্তি আছে।’




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
মাদরাসা শিক্ষকদের জুন মাসের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের জুন মাসের এমপিওর চেক ছাড় স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুনের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুনের এমপিওর চেক ছাড় শিক্ষার্থীর সংখ্যার ভিত্তিতে স্কুলের তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর - dainik shiksha শিক্ষার্থীর সংখ্যার ভিত্তিতে স্কুলের তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা - dainik shiksha জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ - dainik shiksha প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website