ডেঙ্গু মোকাবেলা: ঈদের ছুটি শেষে বাসায় ফিরে যা করবেন - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা


ডেঙ্গু মোকাবেলা: ঈদের ছুটি শেষে বাসায় ফিরে যা করবেন

নিজস্ব প্রতিবেদক |

ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে এবার ঈদ শেষে ঢাকায় ফিরে আসা নাগরিকদের বেশ কিছু সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

ঈদের ছুটিতে লাখ লাখ মানুষ ঢাকা ছেড়েছে। ছুটিতে মানুষ গ্রামের বাড়ি গেলে ঢাকায় তাদের ফাঁকা বাসায় যাতে মশা নির্বিঘ্নে বংশবিস্তার করতে না পারে, সেজন্য বেশ কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল সরকারের পক্ষ থেকে।

ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছেন কর্মজীবী মানুষেরা। ফাঁকা বাসায় ফিরে ডেঙ্গু মোকাবেলায় করণীয় সম্পর্কে পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।


যাদের বাড়িতে মশা মারার স্প্রে আছে

• একজন প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ ব্যক্তি ঘরের প্রধান দরজা খুলে ঘরে ঢুকবেন এবং দরজা জানালা বন্ধ থাকা অবস্থায় ঘরের আনাচে-কানাচে, পর্দার পেছনে, খাটের নিচে স্প্রে করবেন।

• কোনোভাবেই শিশু, বয়স্ক ব্যক্তি বা গর্ভবতী নারী প্রথমে ঘরে ঢুকবেন না।

• মশা মারার ওষুধ স্প্রে করার পর প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি ঘর থেকে বেরিয়ে যাবেন ও আধা ঘণ্টা অপেক্ষা করবেন।

• আধা ঘণ্টা পর আবার ঘরে ঢুকে সব দরজা জানালা খুলে দেবেন।

• কমোড ফ্ল্যাশ করবেন, বেসিনের ট্যাপ ছেড়ে দেবেন।


যাদের বাড়িতে মশা মারার স্প্রে নেই

• সবাই একসঙ্গে ঘরে না ঢুকে প্রথমে একজন প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ ব্যক্তি ঘরে ঢুকে সব দরজা জানালা খুলে দেবেন।

• ফ্যানগুলো ছেড়ে দেবেন।

• কমোড ফ্ল্যাশ করবেন, বেসিনের ট্যাপ ছেড়ে দেবেন।

• এই কাজগুলো শেষ করার পর পরিবারের অন্য সদস্যরা ঘরে প্রবেশ করবেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, জানুয়ারি থেকে মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ৪৪ হাজার ৪৭১ জন। বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন মোট ৩৬ হাজার ৮৮৪ জন। এ পর্যন্ত ৪০ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। 

বর্তমানে ঢাকায় ৪০টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৪ হাজার ১১৫ জন এবং ঢাকার বাইরে অন্যান্য বিভাগে মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ৪৩২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নতুন রোগী ভর্তি হয়েছে ১ হাজার ২০০ জন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি - dainik shiksha প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের - dainik shiksha ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? - dainik shiksha শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন - dainik shiksha ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না - dainik shiksha চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক - dainik shiksha হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প - dainik shiksha শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প please click here to view dainikshiksha website