আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক | ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৮ | অবৈধ প্রতিষ্ঠান

প্রিয় পাঠক,

বাংলাদেশের প্রথম বিষয়ভিক্তিক অনলাইন পত্রিকা ‘দৈনিক শিক্ষাডটকম’। শিক্ষা বিষয়ক একমাত্র অনলাইন জাতীয় পত্রিকাটি ইতিমধ্যে পাঠকপ্রিয়তায় রেকর্ড  সৃষ্টি করেছে। ৪০/৫০ বছরের পুরনো ও  প্রতিষ্ঠিত অনেক জাতীয় পত্রিকার অনলাইন ও ছাপা সংস্করণের তুলনায় দৈনিকশিক্ষার পাঠক সংখ্যা ঢের বেশি।  এ্যালেক্সা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশে আমাদের অবস্থান ৩৮ নম্বরে [সেপ্টেম্বর মাসের হিসেবে]। এমন সাফল্যে সারাদেশের শিক্ষকরা আনন্দিত ও অভিভূত। আমরাও অনুপ্রাণিত।

তবে, লক্ষ্য করা যাচ্ছে দৈনিকশিক্ষার কাছাকাছি শিরোনাম ব্যবহার করে ফেসবুকে কয়েকটি ভুয়া পেজ ও ভু্ইফোঁড় অনলাইন খুলেছে একটি চক্র। তাদের নিজস্ব কোনো পেশাদার সাংবাদিক, অফিস কিংবা সম্পাদকমণ্ডলী নেই। তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমে প্রকাশিত সংবাদগুলোই অনুমতি ছাড়াই প্রকাশ করছে। আবার কখনো শিরোনামে সামান্য পরিবর্তন করেও প্রকাশ করছে।

শিক্ষকদের কাছে সস্তা জনপ্রিয়তার আশায় কিছু অসত্য ও বানোয়াট খবর ওইসব ভুয়া পেজে  প্রকাশ করা হচ্ছে যা আদৌ দৈনিক শিক্ষাডটকমের খবর নয়। আবার দৈনিক শিক্ষায় গত বছর প্রকাশিত কয়েকটি খবর এবছর ওইসব ভুয়া ফেসবুক পেজে  পুণ:প্রচার করা হচ্ছে।  যেমন ৮ মাসের বকেয়া, নিবন্ধন সনদ, ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ইত্যাদি। এতে পাঠকমহলে বিভ্রান্তির সৃষ্টি  হচ্ছে। নীচে এরকম কয়েকটি ভুয়া পেজের তালিকা দেওয়া হলোঃ

www.facebook.com/দৈনিক-শিক্ষা-Dainik-Shiksha-724927900937879/ দৈনিক শিক্ষা – Dainik Shiksha
www.facebook.com/dainikshikshaonline/ , দৈনিকশিক্ষাসংবাদ ,

 www.facebook.com/dainikshikshanews , www.facebook.com/groups , 

দৈনিক শিক্ষা সংবাদ ,https://www.facebook.com/Meherpur.Press.Club/ , https://www.facebook.com/dainikshikshanews/এবং      https://www.facebook.com/DailyShikkhasangbad/ 

Dainikshiksha online

শিক্ষা বিষয়ক দেশের একমাত্র অনলাইন জাতীয় পত্রিকা ‘দৈনিক শিক্ষাডটকম’ পরিবারের পক্ষ থেকে সম্মানিত পাঠকদের অনুরোধ করছি উপরোক্ত ভুয়া ফেসবুক পেজ থেকে সতর্ক থাকুন এবং Report অপশনে গিয়ে অবশ্যই পেজগুলোর নামে রিপোর্ট করুন, তাদের ফেসবুক পেজে কমেন্ট লিখে খবরটি সবাইকে জানিয়ে দিন। ভুলেও ওইসব ভুয়া পেজে লাইক দিয়ে প্রতারকদের ফাঁদে পা দেবেন না। ভুয়া পেজ কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যে তাদের নাম পরিবর্তন করেছে এবং অনেকের কাছেই ফেসবুকে নোটিফিকেশন পাঠিয়েছে লিংক পরিবর্তনের। দৈনিকশিক্ষার ট্রেডমার্ক করা লোগো ব্যবহার করে দেখতে দৈনিকশিক্ষার মতো  কয়েকটি লোগো তৈরি করেছে তারা।


প্রিয় পাঠক, পাশাপাশি শিক্ষা বিষয়ক দেশের একমাত্র জাতীয় পত্রিকা দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজটি চিনে রাখুন এবং আমাদের প্রতিটি খবর আপনার ফেসবুক হোমপেজে দেখতে এখুনি আমাদের আসল পেজে লাইক দিন।  পথ চলায় আমরা পাশে চাই সকল পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের।

বার্তা সম্পাদক

 দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজের লিংক: https://www.facebook.com/dainikshiksha
মন্তব্যঃ ২৭টি
  1. মোছা শিরিনা খাতুন দিঘুলীয়া আলিম মাদ্রাসা says:

    আলিম মাদ্রাসায় সহকারী লাইব্রেরীয়ানদের এম পি ও দিন ।

  2. মো:আল মামুন মল্লিক says:

    Thanks

  3. কাওসার says:

    মাদ্রাসার ict এর খবর কি। জানলে জানাবেন।

  4. লুৎফর রহমান says:

    বেসরকারী শিক্ষা জাতীয়করণ আন্দোলনের খবর বেশী বেশী প্রচার করার জন্য আপনাদের মত সাহসী সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের সম্পাদকদের অসংখ্য ধন্যবাদ।

  5. Abdur Rahman says:

    Dainikshiksha.com has no intention to report about degree third teachers’ MPO.

  6. Abdur Rahman says:

    We hope daikshiksha.com will report on degree third teachers’ MPO without any delay.It is their alegal right to get MPO.

  7. Abdur Rahman says:

    We hope daikshiksha.com will report on degree third teachers’ MPO without any delay.It is their legal right to get MPO.

  8. Abdur Rahman says:

    We request dainikshiksha.com fervidly to make on third teachers’ MPO.

  9. মোঃ নুরুজজামান says:

    বেসরকারি শিক্ষা জাতীয়করনের খবরগুলো বেশি করে প্রচার করুন।

  10. ভীষ্ম দেব says:

    পঞ্চগড়ের আইসিটি শিক্ষকের নামের তালিকা দিন।

  11. মজিবুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক, উত্তরা আনোয়ারা মডেল ইউনিভার্সিটি কলেজ says:

    দৈনিক শিক্ষার সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান ভাইকে অনেক ধন্যবাদ। শিক্ষকদের সকল বিষয় নিয়ে লেখার জন্য। সকল শিক্ষকদের একটাই দাবী শিক্ষা ব্যাবস্তা জাতীয় করন।

  12. ‍ইমরান says:

    নিবন্ধনধারীদের(কোটে রিট) নিয়োগ কবে হবে? তিন মাসের মধ্যে 1মান চলে গেল

  13. মোঃ উজ্জল হোসেন,সহকারী শিক্ষক ,ভাওড়া উচ্চ বিদ্যালয় says:

    টাংগাইল জেলার অতিরীক্ত শ্রেণী শাখার শিক্ষকদের তালিকা সংগ্রহ করে প্রকাশ করেন

  14. মোঃ জিয়াউর রহমান। চাঁদপুর। says:

    মাদ্রাসার সহকারী মৌলভী এবং স্কূল
    এর সহকারী মৌলভীদের মাঝে একটা
    বিরাট বেতন বৈশম্য এখনও বিদ্বমান
    রয়েগেছে।বৈশম্যটা নিম্নরুপ পেশকরা
    হলো।
    মাদ্রাসার সহকারী মৌলভীএদের বেতন
    স্কেল শূরু হয়। ১২৫০০/ টাকার মাধ্যমে
    আর স্কুল এর সহকারী মৌলভী এদের
    বেতন স্কেল শূরু হয়। ১৬০০০/ হাজার
    টাকার মাধ্যমে।
    বিঃ দ্রঃ। মজার ব্যপার হলো,,মাদ্রাসার
    সহকারী মৌলভীরা ১২৫০০ থেকে ১০
    বসর পর টাইম স্কেল পেয়ে উর্ত্তীন হয়
    ১৬০০০/ হাজার টাকায়।
    আর স্কূল এর সহকারী মৌলভীরা
    ১৬০০০/ হাজার থেকে ১০ বসর পর
    টাইম স্কেল পেয়ে উর্ত্তীন হয় ২২০০০/
    হাজার টাকায়।এক পদ বা পধবী
    একই সার্টিফেকেট একই মান একই
    বোর্ড বা বিশ্ববিদ্যালয়।
    বিষেশ করে মাদ্রাসার আধীকাংশ
    সহকারী মৌলভীরা ১০ম, ৯ ম,৮ ম,
    শ্রেনীতে ইংরেজী, বাংলা, ইতিহাস,
    এমনকি অংক বিষয় পাঠদান দিয়ে
    থাকেন।

  15. আনীক মাহমুদ,রশিদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়।নাটোর। says:

    ধন্যবাদ
    দ্রুত খবর জানানোর জন্য

  16. মোঃ জিয়াউর রহমান। চাঁদপুর। says:

    মাদ্রাসার সহকারী মৌলভী এবং স্কূল
    এর সহকারী মৌলভীদের মাঝে একটা
    বিরাট বেতন বৈশম্য এখনও বিদ্বমান
    রয়েগেছে।বৈশম্যটা নিম্নরুপ পেশকরা
    হলো।
    মাদ্রাসার সহকারী মৌলভীএদের বেতন
    স্কেল শূরু হয়। ১২৫০০/ টাকার মাধ্যমে
    আর স্কুল এর সহকারী মৌলভী এদের
    বেতন স্কেল শূরু হয়। ১৬০০০/ হাজার
    টাকার মাধ্যমে।
    বিঃ দ্রঃ। মজার ব্যপার হলো,,মাদ্রাসার
    সহকারী মৌলভীরা ১২৫০০ থেকে ১০
    বসর পর টাইম স্কেল পেয়ে উর্ত্তীন হয়
    ১৬০০০/ হাজার টাকায়।
    আর স্কূল এর সহকারী মৌলভীরা
    ১৬০০০/ হাজার থেকে ১০ বসর পর
    টাইম স্কেল পেয়ে উর্ত্তীন হয় ২২০০০/
    হাজার টাকায়।এক পদ বা পধবী
    একই সার্টিফেকেট একই মান একই
    বোর্ড বা বিশ্ববিদ্যালয়।
    বিষেশ করে মাদ্রাসার আধীকাংশ
    সহকারী মৌলভীরা ১০ম, ৯ ম,৮ ম,
    শ্রেনীতে ইংরেজী, বাংলা, ইতিহাস,
    এমনকি অংক বিষয় পাঠদান দিয়ে
    থাকেন।[email protected] gmail.com

  17. আমিনুর রহমান, হাতীবান্ধা, লালমনিরহাট। says:

    দৈনিক শিক্ষা,একটি ভালো প্রচার মাধ্যম!তবে বে- সরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের খবর বেসি প্রচার করবেন।আর জানুয়ারি/২০১৮ বেতনের কোনো খবর থাকলে অনুগ্রহ করে জানাবেন।

  18. আব্দুল মান্নান,‌ছনকা,শেরপুর,বগুড়া says:

    আপনার মন্তব্য হাইক‌োট‌ের রায় অনুযায়ী ১ম ‌থ‌েকে ১২তম ন‌িবন্ধন কারিদের ৯০ দ‌িনের মধ‌্য‌ে ম‌েধা তাল‌কিা প্রকাশ করব‌ে ।এই কার্যক্রম ক‌ি শুরু হয়‌েছে জানত‌ে চাই।

  19. Syreeta says:

    how to buy viagra in uk
    viagra without a prescription
    viagra for sale uk

  20. মোঃ জিয়াউর রহমান। চাঁদপুর। says:

    মাদ্রাসা শিক্ষক কর্মচারীদের জানুয়ারী
    মাসের বেতন বিলম্বিত হওয়ার কারনতো উল্লেখ করা হয় নাই বরং
    স্কুল,কলেজ,এবং কারিগরী শিক্ষা
    প্রতিষ্ঠানের বেতন ব্যাংকে বরং মাদ্রাসা
    শিক্ষকরা ধৈর্য্য ধারন করে আছেন।

  21. MichaelTap says:

    cheapest generic cialis no prescription
    generic cialis tadalafil
    take cialis pills
    tadalafil generic
    cialis buy generic
    cialis generico online
    buy cialis mastercard
    buy cialis online
    cialis pills men

  22. এম এস চৌধুরী says:

    একটি যৌক্তিক দাবীঃ সংযুক্ত ইবতেদায়ী দাখিল আলিম মাদরাসার ইবতেদায়ী বিভাগে যারা ফাজিল কামিল যোগ্যতা নিয়ে বহুদিন থেকে আজ অবধি চাকরী করে আছেন তাদের প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,শিক্ষামন্ত্রী থেকে নিয়ে সকল মন্ত্রী ও এমপি মহোদয়ের সুদৃষ্টি কামনা করছি যে পদবী যাই থাক না কেন যোগ্যতার আলোকে বেতন স্কেল যেন প্রদান করা হয় এদের কে।এতে শিক্ষার মূল্যায়ন হবে।আশা করি মানুষ হিসাবে কেউ এই যোক্তির বাইরে কথা বলবেন না।

  23. md helal uddin says:

    দাখিল /আলিম / ফাজিল ও কামিল মাদ্রাসার সংযুক্ত ইবতেদায়ী শিক্ষকদের বেতনভাতা নিয়ে একটি প্রতিবেদন লেখার জন্য দৈনিকশিক্ষাকে বিনীত অনুরোধ জানাই ।

  24. পলাশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ says:

    মোছা শিরিনা খাতুন দিঘুলীয়া আলিম মাদ্রাসা।আপনাকে বলছি fb search din(palash ahmed)

আপনার মন্তব্য দিন