দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা পেলেন শরীরচর্চা শিক্ষকরা - কলেজ - Dainikshiksha


দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা পেলেন শরীরচর্চা শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড মর্যাদা পেলেন সরকারি কলেজের শরীরচর্চা শিক্ষকরা। বুধবার (৫ ডিসেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। বর্তমানে তৃতীয় শ্রেণির এ পদটি দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড মর্যাদা দেয়ায় সরকারকে অতিরিক্ত অর্থ গুনতে হবে না। শরীরচর্চা শিক্ষকদের মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে দৈনিক শিক্ষাকে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। 

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিভিন্ন সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (সরকারি কলেজ, শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজ, সরকারি মাদ্রাসা) কর্মরত শরীরচর্চা শিক্ষকরা তৃতীয় শ্রেণি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত করা হলো। এ বিষয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব সম্মতি দিয়েছেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (সরকারি কলেজ, শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজ, সরকারি মাদরাসা) কর্মরত শরীরচর্চা শিক্ষকরা তৃতীয় শ্রেণি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত করার দাবি জানান। তার পরিপ্রেক্ষিতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগে প্রস্তাব পাঠায়। শিক্ষা মন্ত্রণালয় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করলে শরীরচর্চা শিক্ষক পদটি দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত করতে সম্মতি দিয়েছেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সম্মতির পরে অর্থ বিভাগের সম্মতির জন্য প্রস্তাব পাঠায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। অর্থ বিভাগ সম্মতি দিয়ে বলে, আগে থেকেই এ পদের বেতন গ্রেড-১০ নির্ধারিত রয়েছে। পদটিকে দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড পদমর্যাদায় উন্নীত করলে নতুন করে বেতন গ্রেড নির্ধারণ বা যাচাইয়ের প্রয়োজন নেই। বাড়তি বেতনও দিতে হবে না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাকে জানান, প্রথম শ্রেণির মর্যাদার দাবিতে শিক্ষা ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে বাদী করে শরীরচর্চা শিক্ষকরা আদালতে একটি মামলা করেছিলেন। আদালত দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন। 




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় - dainik shiksha প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার - dainik shiksha অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website