নবসৃষ্ট পদের এমপিও জটিলতায় এখনও ভুক্তভোগী প্রভাষকরা - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা


নবসৃষ্ট পদের এমপিও জটিলতায় এখনও ভুক্তভোগী প্রভাষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

এনটিআরসিএর দ্বিতীয় নিয়োগচক্রে নিয়োগ সুপারিশ পেয়েও নবসৃষ্ট পদের জটিলতায় দীর্ঘদিন এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকদের সমস্যার সমাধান দিয়ে আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে নবসৃষ্ট পদে নির্ধারিত অর্থবছরের আগে এনটিআরসিএর নিয়োগ সুপারিশ করা শিক্ষকের জটিলতার সমাধান দিয়ে আলাদা আলাদা আদেশ জারি করা হয়েছে। কিন্তু সে আদেশে জটিলতা এখনো কাটেনি বলে অভিযোগ করেছে বিভিন্ন মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ভুক্তভোগী প্রভাষকরা। তাদের দাবি, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে জারি করা আদেশে ‘সহকারী শিক্ষক’ শব্দটি উল্লেখ থাকায় মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা তাদের এমপিওর আবেদন অগ্রায়ন করছেন না। তাই, দ্রুত জটিলতার সমাধান দিতে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তারা।

এনটিআরসিএর দ্বিতীয় চক্রে নিয়োগ সুপারিশ পাওয়া অনেক শিক্ষক এমপিওভুক্ত হতে পারছিলেন না ভুল তথ্য দেয়া শূন্যপদে নিয়োগ সুপারিশ, মহিলা কোটা, নবসৃষ্ট পদ, প্যাটার্ন বহিভূর্ত পদে নিয়োগ সুপারিশ সর্বোপরি ভুল তথ্য দেয়া শূন্যপদে নিয়োগ সুপারিশ পাওয়ায় এ জটিলতা সৃষ্টি হয়। দীর্ঘ অপেক্ষার পর গত ৯ জুন এসব শিক্ষকদের জটিলতা নিরসনে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেন শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সে সিদ্ধান্তের আলোকে গত ২৬ জুলাই নবসৃষ্ট পদ এবং মহিলা কোটার সমস্যায় এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকদের জটিলতা নিরসনের আদেশ জারি করে মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। নবসৃষ্ট পদে ভুক্তভোগীদের জটিলতা নিরসন করে জারি করা আদেশে বলা ছিল, ভৌত বিজ্ঞান ব্যবসায় শিক্ষা এবং ইংরেজিসহ মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন নবসৃষ্ট বা বৃদ্ধিপ্রাপ্ত পদে এনটিআরসিএর ২য় নিয়োগ চক্রে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকরা বিধি ও যোগ্যতা মোতাবেক নির্ধারিত অর্থবছর বছর থেকে এমপিওভুক্ত হতে পারবেন। তারা এমপিওর আবেদনের দিন থেকে এমপিও পাবেন। তবে, এ জটিলতায় ভুক্তভোগীরা বকেয়া পাবেন না বলেও আদেশে বলা হয়েছে।

কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে গত ৮ সেপ্টেম্বর নবসৃষ্ট পদে নিয়োগ পাওয়া মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের জটিলতা নিরসন করে আদেশ জারি করা হয়। তবে, আদেশে ‘বৃদ্ধিপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক’ পদের জটিলতা নিরসনের কথা বলা হয়েছে। তাই, বিএম কলেজ ও মাদরাসায় নিয়োগ পাওয়া প্রভাষকদের জটিলতা কাটছে না। 

ভুক্তভোগী শিক্ষকরা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষকদের জটিলতার সমাধান দিয়ে জারি করা আদেশে সহকারী শিক্ষক কথাটি উল্লেখ থাকায় এ আদেশের বলে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা এমপিও আবেদন অগ্রায়ন করছেন না। মাদরাসার প্রভাষকদের আবেদন মাঠ পর্যায় থেকে অগ্রায়ন করা হচ্ছে না। অপরদিকে বিএম কলেজের প্রভাষকদের এমপিও আবেদন রিজেক্ট হবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। 

জানা গেছে, ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের জুন মাসে বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদরাসা, কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিএম কলেজের এমপিও নীতিমালা জারি করা হয়। স্কুল কলেজের নতুন এমপিও নীতিমালায় বৃদ্ধি পাওয়া পদগুলোর মধ্যে কলেজের প্রদর্শক পদ এবং মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিকে বেশ কিছু সহকারী শিক্ষক পদ আছে। তবে, কোন প্রভাষক পদ নেই। অপরদিকে মাদরাসা ও কারিগরির এমপিও নীতিমালায় বেশ কয়েকটি প্রভাষক পদ বৃদ্ধি করা হয়েছে। 

ভুক্তভোগী শিক্ষকরা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, কারিগরি ও মাদরাসার নবসৃষ্ট বা বৃদ্ধিপ্রাপ্ত পদে নিয়োগের আদেশ জারি করা হয় ২০১৯  খ্রিষ্টাব্দের ডিসেম্বর মাসে। আদেশে বৃদ্ধি পাওয়া উচ্চমাধ্যমিক বিএম কলেজের গণিতের প্রভাষক পদে ২০১৯ অর্থবছরে এমপিওভুক্ত করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। অপরদিকে মাদরাসার নবসৃষ্ট পদে নিয়োগ ও এমপিওভুক্তির আদেশে আলিম মাদরাসার আইসিটি বিষয়ের প্রভাষক, আরবি বিষয়ের প্রভাষক পদে, ফাযিল মাদরাসার আইসিটি প্রভাষক, আরবি প্রভাষক, ইংরেজি প্রভাষক পদে এবং কামিল মাদরাসার দুইটি মুহাদ্দিস পদে, হাদিস বিষয়ের দুইটি প্রভাষক পদে ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে এমপিওভুক্ত করার নির্দেশনা ছিল। তাছাড়া ফাযিল মাদরাসার বাংলা বিষয়ের প্রভাষক, আরবি প্রভাষক পদে এবং কামিল মাদরাসায় দুইটি মুফাচ্ছির পদে ও তফসির বিষয়ের দুইটি প্রভাষক পদ ২০২০-২১ অর্থবছর থেকে এমপিওভুক্ত করার নির্দেশনা ছিল। 

ভুক্তভোগী শিক্ষকরা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে আরও বলেন, প্রতিষ্ঠান প্রধানরা ভুল করে আগেভাগেই নবসৃষ্ট পদের চাহিদা দেয়ায় এনটিআরসিএ এসব পদে নিয়োগের সুপারিশ করে। যোগদান করে জানতে পারি আমাদের নির্ধারিত অর্থবছরের আগে নিয়োগ হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে দেশের শিক্ষা বিষয়ক একমাত্র পত্রিকা দৈনিক শিক্ষাডটকম অনেক লেখালেখি করে। এরপর আমাদের জটিলতা নিরসনে সদয় হন মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি গত ৯জুন সভা করে আমাদের জটিলতা নিরসনের নির্দেশ দেন। সে প্রেক্ষিতে নবসৃষ্ট পদে ভুক্তভোগীদের জটিলতা নিরসন করে আদেশ জারি করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। কিন্তু স্কুল-কলেজের এমপিও নীতিমালায় প্রভাষক পর্যায়ের কোন নবসৃষ্ট পদ ছিল না। সে আদেশ অনুসারে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষকদের জটিলতা নিরসনের আদেশ জারি করা হয়েছে। তাই, বিএম কলেজ ও মাদরাসায় প্রভাষক পদে ভুক্তভোগী শিক্ষক থাকলেও আদেশে ‘সহকারী শিক্ষক’ কথাটি রয়েছে। তাই, ভুক্তভোগী প্রভাষকদের জটিলতা নিরসন হচ্ছেনা। ‘সহকারী শিক্ষক’ শব্দটি উল্লেখ থাকায় মাদরাসার নবসৃষ্ট প্রভাষক পদের এমপিও আবেদন অগ্রায়ন করছে না মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা। অপরদিকে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর জানিয়েছে বিএম কলেজের নবসৃষ্ট গণিত প্রভাষক পদের আবেদন রিজেক্ট হবে। তাই, এ জটিলতা নিরসনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।    

 




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
বার্ষিক পরীক্ষা হবে না প্রমোশন পাবে সব শিক্ষার্থী - dainik shiksha বার্ষিক পরীক্ষা হবে না প্রমোশন পাবে সব শিক্ষার্থী ইবতেদায়ি শিক্ষকদের অনুদানের চেক ছাড় - dainik shiksha ইবতেদায়ি শিক্ষকদের অনুদানের চেক ছাড় বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার পক্ষে মন্ত্রণালয় - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার পক্ষে মন্ত্রণালয় টিউশন ফি আদায়ে স্কুল-কলেজগুলোকে নির্দেশনা দেবে অধিদপ্তর - dainik shiksha টিউশন ফি আদায়ে স্কুল-কলেজগুলোকে নির্দেশনা দেবে অধিদপ্তর জেএসসি পরীক্ষা না হলেও সনদ পাবে পরীক্ষার্থীরা - dainik shiksha জেএসসি পরীক্ষা না হলেও সনদ পাবে পরীক্ষার্থীরা প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন করবেন যেভাবে - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন করবেন যেভাবে অনার্সের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ছাড়া ডিগ্রি দেয়া ঠিক হবেনা : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অনার্সের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ছাড়া ডিগ্রি দেয়া ঠিক হবেনা : শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষক-শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত ভুয়া অভিভাবকরা - dainik shiksha শিক্ষক-শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত ভুয়া অভিভাবকরা বদরুন্নেছা কলেজে চাাঁদাবাজি: করোনাকালে সব ছাত্রীকে হাজির হওয়ার নির্দেশ - dainik shiksha বদরুন্নেছা কলেজে চাাঁদাবাজি: করোনাকালে সব ছাত্রীকে হাজির হওয়ার নির্দেশ please click here to view dainikshiksha website