নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির জটিলতা কাটল - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা


নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির জটিলতা কাটল

রুম্মান তূর্য |

এনটিআরসিএর মাধ্যমে সুপারিশ পাওয়া শিক্ষকদের যোগদানের তারিখ থেকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। নবসৃষ্ট পদের আদেশ জারির পর শিক্ষকদের এমপিওভুক্তি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সোমবার (২৮ অক্টোবর) মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।  

জানা গেছে, বেসরকারি স্কুল কলেজের এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো অনুসারে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত ১৬টি পদে নিয়োগের আদেশ জারির ফলে নবৃসষ্ট পদে নিয়োগপ্রাপ্তদের এমপিওভুক্তি আটকে যায়। সে জটিলতা নিরসনে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র।

গত ৩০ মে  স্কুলের ৯টি এবং কলেজের ৭টি পদে নবসৃষ্ট পদে নিয়োগ ও এমপিওভুক্তির আদেশ জারি করা হয়। যদিও গত ফেব্রুয়ারিতে প্রায় ৫শতাধিক শিক্ষক এনটিআরসিএর সুপারিশ পেয়ে নবসৃষ্ট বিভিন্ন পদে যোগদান করেছেন। 
 
সে আদেশের প্রেক্ষিতে বেসরকারি কলেজগুলোতে নতুন এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো অনুযায়ী নবসৃষ্ট পদে নিয়োগ ও এমপিওভুক্তির জন্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের নির্দেশনায় বলা হয়, নির্ধারিত আর্থিক বছরের আগে এসব পদে নিয়োগের কার্যক্রম গ্রহণ করা যাবেনা। তাই, মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা নবসৃষ্ট পদে নিয়োগপ্রাপ্ত যারা এনটিআরসিএর সুপারিশ পেয়ে যোগদান করেছেন তাদের এমপিও আবেদন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে অগ্রায়ন করছিলেন না। 
  
এসব শিক্ষকদের কথা চিন্তা করে মন্ত্রণালয় এনটিআরসিএর মাধ্যমে সুপারিশ পাওয়া শিক্ষকদের যোগদানের তারিখ থেকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে  
  
প্রসঙ্গত, গত ৩০মে বেসরকারি স্কুল কলেজের এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো অনুসারে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত ১৬টি পদে নিয়োগের আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ পদগুলোর মধ্যে স্কুলের ৯টি এবং কলেজের ৭টি পদ রয়েছে। এগুলোর মধ্যে স্কুলের ১টি ও কলেজের ২টিসহ মোট ৩টি পদে এ বছরই নিয়োগ ও এমপিও প্রদান করা হবে। সে প্রেক্ষিতে গত ১৩ জুন মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের নবসৃষ্ট পদে এমপিও ও নিয়োগ সংক্রান্ত নির্দেশনা দেয় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। 

জানা গেছে, নিম্ন মাধ্যমিকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে সহকারী শিক্ষক পদে এবছরই অর্থাৎ ২০১৮-২০১৯ অর্থবছর থেকেই নিয়োগ ও এমপিও প্রদান করা হবে। এ পদে কর্মরত শিক্ষকরা ১০ কোডে বেতন ভাতা পাবেন। এছাড়া কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের প্রদর্শক ও একই বিষয়ে ল্যাব সহকারীদেরও ২০১৮-২০১৯ অর্থবছর থেকেই নিয়োগ ও এমপিও প্রদান করা হবে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের প্রদর্শকরা ১০ কোডে এবং একই বিষয়ের ল্যাব সহকারীরা ১৮ কোডে এমপিও পাবেন। 

এদিকে নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিকের ভৌতবিজ্ঞান এবং মাধ্যমিকের ব্যবসায় শিক্ষা বিষয়ের সহকারী শিক্ষকরা ২০১৯-২০২০ অর্থবছর থেকে এমপিওভুক্ত হতে পারবেন। এ দুই বিষয়ের শিক্ষকরা ১০ কোডে এমপিও পাবেন। এছাড়া কলেজের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর এবং ২য় পদের ল্যাব সহকারীদেরও ২০১৯-২০২০ অর্থবছর থেকে নিয়োগ দেয়া যাবে।    

এছাড়া ২০২০-২০২১ অর্থবছরে কলেজের ৪র্থ পদের প্রদর্শক, নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ে শিক্ষক এবং নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কম্পিউটার ল্যাব সহকারীদের নিয়োগ দেয়া যাবে। এক্ষেত্রে কলেজের ৪র্থ পদের প্রদর্শকরা ১০ কোডে, নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ে শিক্ষকরা ১০ কোডে এবং নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কম্পিউটার ল্যাব সহকারীরা ১৬ কোডে এমপিও পাবেন।    

২০২১-২০২২ অর্থবছরে স্কুলে ৩টি ও কলেজের ১টি পদে নিয়োগের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। নিম্ন মাধ্যমিকের বাংলা বিষয়ের সহকারী শিক্ষক, নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিকের নৈশ প্রহরী এবং নিম্ন মাধ্যমিকের পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা ২০২১-২০২২ অর্থবছর থেকে নিয়োগ ও এমপিও পাবেন। এছাড়া কলেজের ৩য় পদের ল্যাব সহকারীরা একই বছর থেকে নিয়োগ ও এমপিও পাবেন। এক্ষেত্রে নিম্ন মাধ্যমিকের বাংলা বিষয়ের সহকারী শিক্ষকরা ১০ কোডে, নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিকের নৈশ প্রহরীরা ২০ কোডে এবং নিম্ন মাধ্যমিকের পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা ২০ কোডে এমপিও পাবেন। এছাড়া কলেজের ৩য় পদের ল্যাব সহকারীরা ১৮ কোডে বেতন পাবেন। 

এদিকে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিকের চারু ও কারুকলা শিক্ষকরা এবং কলেজের ৪র্থ পদের ল্যাব সহকারীরা নিয়োগ পেয়ে এমপিভুক্ত হতে পারবেন। এক্ষেত্রে নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিকের চারু ও কারুকলা শিক্ষকরা ১০ কোডে এবং কলেজের ৪র্থ পদের ল্যাব সহকারীরা ১৮ কোডে এমপিও পাবেন। 




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ - dainik shiksha এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ দাখিলে পাস ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ - dainik shiksha দাখিলে পাস ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ এসএসসি ভোকেশনালে পাস ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ - dainik shiksha এসএসসি ভোকেশনালে পাস ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ ১০৪টি প্রতিষ্ঠানে কেউ পাস করতে পারেনি - dainik shiksha ১০৪টি প্রতিষ্ঠানে কেউ পাস করতে পারেনি এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে - dainik shiksha এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে এখনই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলছে না : প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha এখনই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলছে না : প্রধানমন্ত্রী দাখিলের ফল জানবেন যেভাবে - dainik shiksha দাখিলের ফল জানবেন যেভাবে ৬ জুন থেকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রক্রিয়া শুরুর প্রস্তাব - dainik shiksha ৬ জুন থেকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রক্রিয়া শুরুর প্রস্তাব এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল জানবেন যেভাবে - dainik shiksha এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল জানবেন যেভাবে এসএসসি-দাখিল ভোকেশনালের ফল জানবেন যেভাবে - dainik shiksha এসএসসি-দাখিল ভোকেশনালের ফল জানবেন যেভাবে নন-এমপিও শিক্ষকদের তালিকা তৈরিতে ৯ নির্দেশ - dainik shiksha নন-এমপিও শিক্ষকদের তালিকা তৈরিতে ৯ নির্দেশ কলেজে ভর্তি : দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha কলেজে ভর্তি : দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটি বাড়ল ১৫ জুন পর্যন্ত - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটি বাড়ল ১৫ জুন পর্যন্ত ঘরে বসেই পরীক্ষা নেয়ার চিন্তা - dainik shiksha ঘরে বসেই পরীক্ষা নেয়ার চিন্তা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ১৫ জুন পর্যন্ত, ৩১ মে থেকে অফিস-আদালত খুলছে - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ১৫ জুন পর্যন্ত, ৩১ মে থেকে অফিস-আদালত খুলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website