আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


নিবন্ধন পরীক্ষায় অবৈধভাবে নাম্বার বাড়িয়ে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক | ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ | চাকরির খবর

বেসরকারি নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) অধীনে অনুষ্ঠিত ত্রয়োদশ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফলাফলে নাম্বার বাড়িয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত পরীক্ষার্থীর নাম আবু বরদা মো: নোমান।

এ ঘটনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে এনটিআরসিএ চেয়ার‌ম্যানকে নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সোমবার (৪ঠা ডিসেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাদ্রাসা শাখা-২ এর সহকারি সচিব মো: আবদুল খালেক স্বাক্ষরিত এক চিঠি এ খবর জানা গেছে।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, অবৈধভাবে ত্রয়োদশ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফলাফলে নাম্বার বাড়িয়ে নিয়েছেন আবু বরদা মো: নোমান মর্মে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার মো: সাব্বির আহমদ নামে এক ব্যক্তি মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করেন। অভিযুক্ত পরীক্ষার্থীর নিবন্ধন পরীক্ষার রোল নম্বর ৪২৯০০৯৯৪।

মন্তব্যঃ ২৬টি
  1. Md. Abdul Ohab says:

    NTRCA ke Batil kora hok PSC Te deya Hok?

  2. রূপম কুমার দাস says:

    দৈনিক শিক্ষা ডট কম কে ধন্যবাদ | স্যার, ২০১৩ সালের মাধ্যমিকও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের নিয়োগের নতুন করে যে পরীক্ষা হয়েছে এবং দুইটি পদ-এমএলএসএস ও বুক সর্টার পদের এখনো যে চূড়ান্ত ফলাফল দেয় নাই=সে বিষয়ে একটা নিউজ করেন…প্লিজ.

  3. রূপম কুমার দাস says:

    দৈনিক শিক্ষা ডট কম কে ধন্যবাদ |. স্যার, ২০১৩ সালের মাধ্যমিকও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের নিয়োগের নতুন করে যে পরীক্ষা হয়েছে এবং দুইটি পদ-এমএলএসএস ও বুক সর্টার পদের এখনো যে চূড়ান্ত ফলাফল দেয় নাই=সে বিষয়ে একটা নিউজ করেন…প্লিজ.

  4. মুহাঃ হাবিবুল্লাহ says:

    হায়রে দূর্নীতি

  5. পিকুল বিশ্বাস (পিকে), বামনাইল, ঝিনাইদহ says:

    বানচতদের জন্য আজ ১-১২তমরা আদালতে দিন অতিবাহিত করছে। শালারা টাকার লোভে একটা জাতির নতুন প্রজন্মকে অন্ধকারে নামিয়ে দিচ্ছে।

  6. গোলাম কিবরিয়া says:

    দুর্নীতিগ্রস্থ NTRCA বিলুপ্ত করে শিক্ষক নিয়োগ কমিশন গঠন করা হোক।

  7. Anirban Bala, kadambari High School,madaripur. says:

    আর কতদিন এই দূর্নীতি চলবে। এদের শাস্তি হয় না

  8. মোঃঅালামিন,নাগেশ্বরী,কুড়িগ্রাম। says:

    ১-১২তমদের প্যানেল করে নিয়োগ দেওয়া হোক।

  9. m habib says:

    যেখানে বেড়া ক্ষেত খায় সেখানে কি ভাল ফসল পাওয়া যাবে
    সবখানেই চোর আর চোর

  10. জিয়া says:

    ntrca দুর্নীতির আখরা ১৩ তম ভাইবা নিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ।

  11. জাহাংগীর, ইটাথোলা, শিবপুর,, নরসিংদী। says:

    NTRCA দুরনীতির অাস্তানা তারা প্রথম থেকে দূর্নিতির অাশ্রয় নিয়েছে,।তাদের বিচার হওয় দরকার।

  12. শ্যামল চন্দ্র কর্মকার says:

    শুধু কি নাম্বার বাড়ানো? নিবন্ধন পরীক্ষায় আবেদন কিংবা ফেল করা রোল নাম্বারের বিপরীতে সার্টিফিকেট প্রদান করতে এবং মেধাস্কোর টেম্পারিং করে কিংবা মেধা স্কোরের তলানিতে থাকা প্রার্থীদের চাকরি দেওয়ার দূর্নাম ও ntrca এর বিরুদ্ধে রয়েছ।

  13. মো: আ: মোমিন says:

    আপনার মন্তব বিচার করা উচিত।

  14. মোঃ উজ্জল হোসেন says:

    NTRCA বাতিল করা হোক

  15. md:Rafiqul islam says:

    1-12th onake salara taka dea pass korso, todar bad daya hoba. onake asa.so todar muka boro kotha saja na

  16. Md. Moggaffar sharkar,Shirotti fazil madrasah,panchbibi, joypurhat. says:

    কোথাও শান্তি নাই। শিক্ষা প্রশাসনে আরও বেশি দুর্নিতী হচ্ছে।

  17. আবদুল্লাহ , বাংলাদেশ ৷ says:

    আপনার মন্তব্য : সরিষাতে ভূত থাকলে ঐ সরিষা দিয়ে ভূত তাড়ানো সম্ভব নয় !

  18. md.nurul islam says:

    1-12tomo der panel kore niog dea hok.tader to onno cakri korar boyos nai.

  19. হেলাল says:

    মানুষ এত অসভ্য কিভাবে হয়?

  20. md mustafizur rahman says:

    batil korle hobena sasti chai.

  21. ‌মোঃ শহীদুল ইসলাম says:

    এন‌টিআর‌সিএ এর কাজ কি শুধু নিবন্ধন সা‌র্টি‌ফি‌কেট হা‌তে ধ‌রি‌য়ে দেওয়া? ১-১২ আ‌গে নি‌য়োগ দেওয়া উ‌চিত।

  22. ‌মোঃ শহীদুল ইসলাম says:

    ১.NTRCA বলেছে তাদের কাছে ১-৭তমদের কোনো তথ্য সংরক্ষিত নেই। তাহলে NTRCA গত ই রিকুইজিশনে ১-৭ তমদের কাছ থেকে কিসের ভিত্তিতে আবেদন গ্রহণ করল এবং কিভাবে তাদের নিয়োগ দিল??? সরকারি একটি প্রতিষ্টানের কর্মকর্তাদের অযোগ্যতা, খামখেয়ালিপনা,গা
    ফিলতির জন্য বৈধ সনদধারি ও চাকরিপ্রার্থীরা কেন ক্ষতিগ্রস্ত হবে?————————————–
    ২.NTRCA বলেছে যে সনদের মেয়াদ আজীবনের পরিবর্তে ৩ বছর করেছে মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশবলে। যেখানে মহামান্য আদালত সনদের মেয়াদ আজীবন করার রায় দিয়েছিল সেখানে কিভাবে পুনরায় সনদের মেয়াদ ৩ বছর করা হল? এটাকি আদালতের রায় ও আদালতকে অবমাননা করা নয়? তাছাড়া পরীক্ষার মাধ্যমে অর্জিত সনদের আবার মেয়াদ কিভাবে হয়? প্রমাণস্বরুপ আদালতের রায়ের কপি অভিযোগে সংযুক্ত করে দেয়া যেতে পারে।—————————————-
    ——————-
    ৩.গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংবিধানের ২৯/২ ধারায় স্পষ্টভাবে উল্লেখ আছে “কেবল ধর্ম,গোষ্ঠি,বর্ণ,নারী-পুরুষ ভেদে বা জন্মস্থানের কারণে কোন নাগরিক প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগ বা পদলাভের অযোগ্য হইবে না ।কিংবা সেইক্ষেত্রে তাহার প্রতি বৈষম্য প্রদর্শন করা যাইবে না” এবং যেখানে NTRCA প্রদত্ত ১-১২ তমদের সনদে উল্লেখ আছে যে, সনদধারিরা বাংলাদেশের যেকোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগলাভের যোগ্য। সেখানে সনদধারিরা উপজেলা কোটার কাছে কেন অসহায়ের মত বন্দি থাকবে? তাই উপজেলাকোটা বাতিল করে সনদধারিদের বাংলাদেশের যেকোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ দিতে হবে।—————————————–
    ————————————৪.ই রিকুইজিশনে কোন নারীকোটার উল্লেখ ছিলনা। আবেদনকারীরা নারীকোটা সমর্পকে আগে থেকে কিছু জানতেও পারেনি।তাই আবেদনকারীরা কেউ নারীকোটায় আবেদন পর্যন্ত করেনি। কিন্তু NTRCA পরবর্তীতে ৩০% নারীকোটায় অনেক কমনম্বরধারি নারীকে চাকরি প্রদান করেছে।এটাকি আবেদনকারিদের সাথে একধরনের প্রতারণা নয়? তাই নারীকোটা সহ সবধরণের কোটাপ্রথা বাতিল করে যোগ্যতার ভিত্তিতে নিয়োগ প্রদান করতে হবে।

  23. সরল রায় says:

    ভাই রে এরা যদি মানুষ হত তাহলে হাজার হাজার নিবন্ধন ধারিদের নিয়ে ঝুলিয়ে থাকত না।গোটা শিক্ষা জাতিকে প্রশ্ন বিদ্ধ করে তুলছে।শিক্ষার যিনি লিডার তার কানে কি ময়লা ঢুকছে যে গুতো দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে

  24. Alauddin says:

    এটা আর নতুন কি?সনদ তৈরী করা সহ যাবতীয় অবৈধ কাজ তারা করে আসছে।

  25. মোঃ হানান মিয়া সোহাগদল নেছারাবাদ, পিরোজপুর says:

    আপনার মন্তব্য. ntrca এ ওরা চোর। ১-১২ তম পর্যন্ত সকল পরীক্ষা হবার কয়েক দিন পর গোপন নাম্বর থেকে প্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে হাজার হাজার সনদ সঠিক ছেড়ে দিয়েছে। সঠিক পাস করা প্রার্থী নিয়োগ পায়না কেনা সনদ ধারিরা চাকরি করে। নিবন্ধন কর্তীপক্ষের সকলকে রিমান্ড দিলে সঠক সনদ ও জাল সনদ কোনগুলো বের হয়ে আসে। আমার দেখামতে এক লোক প্রায় ৫০০ সনদ কিনে আনে এক ব্যক্তি কারী পোস্টে নিয়োগ নিয়ে আর বিল হয় না পরে শুনি এক লাক টাকা দিয়ে ক্বারি পোস্টের জন্য সনদ আনে এবং বিল হয়ে যায়। আমরা সঠিক পাস করে এসব গাঁ ধাদের কারনে নিয়োগ পায়নি। আমি ৯ ম তম নিবন্ধন পাস করে ১০ জায়গায় পরীক্ষা দিয়ে ৬ জায়গায় প্রথম হয়েও টাকার কারনে নিয়োগ পাইনি। শুনি ৬০/৮০ হাজার শিক্ষক চাকরি করে বেতন খায় জাল অথবা বুয়া সনদে। তাই সরকারের উচিত সঠিক পাস করা প্রার্থীদের চাকরি দিলে দেশের সঠিক মেধা বিকশিত হত। শিক্ষার মান উন্নায়ন হত।

আপনার মন্তব্য দিন