পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকতে হবে, শিক্ষামন্ত্রীকে বললেন আইডিইবি নেতারা - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা


পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকতে হবে, শিক্ষামন্ত্রীকে বললেন আইডিইবি নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

পলিটেকনিক ইন্সটিউটে প্রথম বর্ষের ভর্তির যোগ্যতা কমানো ও বয়সসীমা তুলে দেয়া নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি গত সপ্তাহে যে ঘোষণা দিয়েছিলেন তার স্পষ্ট বিরোধীতা করেছেন ইন্সটিটিউশন অফ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের (আইডিইবি) প্রতিনিধি দল। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) বিকালে মন্ত্রীর হেয়ার রোডের সরকারি বাসভবনে এক বৈঠক করেন তারা। বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রীকে সাফ বলে দিয়েছেন বয়সের সীমা তুলে দেয়া চলবে না এমনকি ভর্তিতে যোগ্যতা শিথিলও করা যাবে না।

জানা যায়, বৈঠকে নেতৃবৃন্দ শিক্ষা মন্ত্রী ও শিক্ষা উপমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশে কারিগরি শিক্ষায় যে যুগান্তকারী পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে তার প্রশংসা করেন বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের দৈনিক শিক্ষাকে এ তথ্য জানিয়েছেন। 

জানা যায়, পলিটেকনিক ইন্সটিউটে প্রথম বর্ষের ভর্তির যোগ্যতা ও বয়স নিয়ে নেতৃবৃন্দ তাদের মতামত তুলে ধরেন। তারা সাফ বলেছেন বয়স সীমা তুলে দেয়া চলবে না। 

বৈঠকে বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অবদান ও তাৎপর্য নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের নবনিযুক্ত সচিব মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান, ইনস্টিটিউশন অফ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম এবং ইন্সটিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক মো. জাফর আলী সিকদার প্রমুখ।

গত সপ্তাহে এই নেতারাই গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে বলেছিলেন, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাকে ধ্বংস করার নতুন আত্মঘাতী ভর্তি নীতিমালা ২০২০ বাতিল করে ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ভর্তি নীতিমালা বাস্তবায়ন করতে হবে। নতুন সিদ্ধান্ত দেশের কারিগরি শিক্ষাকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাবে। কোনো স্টাডি ছাড়া এ ধরনের হটকারী নীতিমালা গ্রহণযোগ্য নয়।

এর আগে গত বুধবার এক সভা শেষে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার বৃদ্ধির লক্ষ্যে এবং বিদেশফেরত দক্ষ কর্মীদের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়ার জন্য পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তির ক্ষেত্রে কোনো রকমের বয়সের সীমাবদ্ধতা রাখা হবে না। মন্ত্রী বলেছিলেন, অনেক ব্যক্তির হয়ত প্রয়োজনীয় কারিগরি দক্ষতা আছে কিন্তু তার প্রাতিষ্ঠানিক কোনো সার্টিফিকেট নেই এবং সার্টিফিকেট না থাকার কারণে ভালো চাকরি পাচ্ছে না অথবা চাকরি পেলেও ভালো বেতন পাচ্ছে না। সেক্ষেত্রে সে ব্যক্তি যদি চায় এবং যদি তার প্রয়োজনীয় একাডেমিক যোগ্যতা থাকে তাহলে সে ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তি হতে পারবে।

মন্ত্রী ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তির ক্ষেত্রে ছেলেদের ক্ষেত্রে ন্যূনতম যোগ্যতা জিপিএ ৩ দশমিক ৫ থেকে কমিয়ে ২ দশমিক ৫, মেয়েদের ক্ষেত্রে জিপিএ ৩ থেকে কমিয়ে ২ দশমিক ২৫ করার সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন। পাশাপাশি ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তি ফি এক হাজার ৮২৫ টাকা থেকে এক হাজার ৯০ টাকা করার সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
জাতীয়করণ: ফের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত সেলিম ভুইঁয়া, কর্মসূচির হুমকি - dainik shiksha জাতীয়করণ: ফের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত সেলিম ভুইঁয়া, কর্মসূচির হুমকি একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করবেন যেভাবে - dainik shiksha একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করবেন যেভাবে please click here to view dainikshiksha website