আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


প্রাথমিকেই প্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে: প্রযুক্তি উপদেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক | ডিসেম্বর ৭, ২০১৭ | বিবিধ

প্রাথমিক স্তর থেকেেই তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

বৃহস্পতিবার (০৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’ এর দ্বিতীয় দিন সকালে তথ্যপ্রযুক্তির মহা-সম্মিলন মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে অংশ নিয়ে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা।

তিনি বলেছেন, আমার লক্ষ্য বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ তথ্য-প্রযুক্তিতে দক্ষ হয়ে উঠবে।

চার দিন-ব্যাপী এই সম্মিলনে কি-নোট উপস্থাপন করেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

বর্তমানে ষষ্ঠ মাধ্যমিক স্তর থেকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক রয়েছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির প্রসার এবং আধুনকি বিশ্বের সঙ্গে তাল মেলাতে এ বিষয়ের শিক্ষার উপর গুরুত্ব দেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

নেটওয়ার্ক অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ও প্রকৌশলীদের জন্য আগামীর ভবিষ্যত উল্লেখ করে তিনি বলেন, এজন্য নতুন প্রজন্মকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। ভবিষ্যত পরিকল্পনা রয়েছে আইটি শিক্ষা প্রাইমারি লেবেল থেকে শুরু করার।

তিনি বলেন, আমার লক্ষ্য বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ আইটিতে দক্ষ হয়ে উঠবে। শিক্ষার্থীরা পঞ্চম শ্রেণি থেকে আইটি শিখবে। তারা মোবাইল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার চালনায় দক্ষ হয়ে উঠবে।

প্রাথমিক স্তরে আইসিটি শিক্ষার জন্য পাঠগুলো খুব বেশি কঠিন হবে না জানিয়ে উপদেষ্টা বলেন, তারা যাতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ধারণা পায় সেই ব্যবস্থা করা হবে।

প্রাথমিক স্তরে আইটি শিক্ষা চালুর বিষয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রাথকিভাবে সরকারে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে একশ’ স্কুলে আইসিটি শিক্ষা চালু করা হবে। এ জন্য আলোচনা চলছে।

বর্তমানে অন্যান্য শিল্পের মূল চালিকা শক্তি হিসেবে আইটি কাজ করছে জানিয়ে জয় বলেন, প্রত্যেক শিল্পের জন্য বেইজ হিসেবে কাজ করবে আইটি শিল্প।

তিনি বলেন, ২০০৯ সাল থেকে ডিজিটাল বাংলাদেশের যাত্রা শুরু হওয়ার পর বর্তমানে দেশের ৪০ শতাংশ সরকারি সেবা ডিজিটালাইজড হয়েছে। ভবিষ্যতে ৮০ শতাংশ সরকারি সেবা স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে হাতের মুঠোয় নিয়ে আসা হবে।

দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, অন্য কোনো দেশে এমন বৃদ্ধি সম্ভব হয়নি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারও বাড়ছে। বর্তমানে ২৭ মিলিয়ন মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রয়েছে।

কি-নোট উপস্থাপনায় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, বাংলাদেশ প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত ভবিষ্যতের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত। এজন্য চতুর্থ শিল্প বিপ্লব নিয়ে এখন কথা বলার সময় এসেছে। কারণ, দ্রুত বদলে যাওয়া প্রযুক্তি মানুষের জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন আনছে। ফলে অর্থনীতির বিকাশ ও শিল্পায়নও দ্রুত ঘটছে। ২০২৫ সালের মধ্যেই ন্যানোম্যাটেরিয়ালের বাণিজ্যিক ব্যবহার দেখা যাবে। এসব ন্যানোম্যাটেরিয়াল স্টিলের চেয়েও ২০০ গুণ শক্ত কিন্তু চুলের চেয়েও পাতলা। থ্রিডি প্রিন্টেড লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট হবে। ১০ শতাংশের বেশি গাড়ি হবে চালকহীন। সরকার, ব্যবসা ও সাধারণ মানুষের জীবনেও এর প্রভাব দেখা যাবে। আগামীর বাংলাদেশ পৃথিবীর এসব উন্নত প্রযুক্তিগুলোকে গ্রহণের মাধ্যমে এগিয়ে যাবে।

জয় বলেন, সরকার বেসরকারি খাতকে সঙ্গে নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে কাজ করেছে। জনগণ তথ্যপ্রযুক্তির সুফলও ভোগ করছে। ফলে বাংলাদেশে প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েছে বহুগুণ। এই ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডেই আপনারা দেখেছেন ড্রোন, বিশ্বের উন্নত রোবট সোফিয়াকে।
তিনি আরও বলেন, ভবিষ্যতে মোবাইল সুপারকম্পিউটিং, চালকহীন গাড়ি, কৃত্রিম বুদ্ধিমান রোবট, নিউরো প্রযুক্তির ব্রেন, জেনেটিক এডিটিং দেখা যাবে। প্রযুক্তির এসব সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশের মানুষের জন্য আমাদের উন্নয়নের নতুন দিগন্ত উন্মোচন করতে হবে।

মিনিস্ট্রিয়েল কনফারেন্সে পাঁচ দেশের মন্ত্রীসহ ৭ দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

কঙ্গোর প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য উপদেষ্টা ডায়োডোনি কালোম্বো কোলি বাডিবাং (Diedonne Kalombo Nkile), কম্বোডিয়ার ডাক ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী কান চানমেটা (Kan Channmeta), ভুটানের তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রী দিনা নাথ ডঙ্গায়েল (Dina Nath Dungyel), মালদ্বীপের সশস্ত্র ও জাতীয় নিরাপত্তা উপমন্ত্রী থরিক আলী লুথুফি (Thariq Ali Luthufi), ফিলিপাইনের আইসিটি অধিদপ্তরের পরিচালক নেস্টর এস বোঙ্গাটা (Nestor S. Bongata), সৌদি আরবের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক বিভাগের প্রধান ও মন্ত্রীর উপদেষ্টা মোহাম্মদ ফাহাদ আলীআরাল্লাহ (Mohammad Fahad Aliarallah) এতে অংশ নেন।

মন্তব্যঃ ২৮টি
  1. মনি says:

    ict শিক্ষকরা mpo পায় না ৫-৬ বছর,
    আর কত খাটাবেন বিনা বেতনে।
    এম পি ও ভুক্ত বিদ্যায়ের একজন শিক্ষক বেতন পায় না সে হল ict শিক্ষক।

    • লিলি says:

      আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও দিন। আপনাদের ঘুষ খেতে খেতে পেটের ভুড়ি বেড়ে গেছে। আমাদের দিকে খেয়াল থাকবে কেন।

    • আমীর হামজা says:

      কম্পিউটার ল্যাবে না গিয়েই আমার ছেলে ৫০ এর মধ্যে ৪৫ বা এর উপরে নম্বর পাচ্ছে। ঢাকা শহরের নামী দামী বিদ্যালয়ে আইসিটি ক্লাস হয় শুধু একটা বই পড়িয়ে। বিষয়টি বাধ্যতামূলক হওয়া সত্বেও কম্পিউটারে হাতে কলমে কোন ক্লাস করানো হয় না। বিশ্বাস না হয় ঢাকা শহরের দুই চারটি বিদ্যালয় ঘুরে দেখুন, গ্রামের কথা বাদ দিলাম, শিক্ষার্থীদেরকে জিজ্ঞেস করুন, সারা বছরে কম্পিউটার ল্যাবে গিয়েছে কি না। তাহলে আইসিটি বিষয়টা বাধ্যতামূলক করে কী লাভ? একটা বই হবে, মার্কশীটে নম্বর হবে, জিপিএ ৫ হবে, এতেই কি আইসিটিতে দক্ষতা অর্জন হবে? অথচ এর পেছনে কোটি কোটি টাকা খরচ হচ্ছে। তবে আইসিটি সংশ্লিষ্ট ব্যবসা-বাণিজ্য ভাল হবে। বড় বড় বাজেট হবে, খরচ হবে।

  2. মনি says:

    কম্পিউটার /ict শিক্ষকরা mpo পায় না ৫-৬ বছর,অন্য সব শিক্ষক এমপিও ভুক্ত।
    আর কত খাটাবেন বিনা বেতনে।
    এম পি ও ভুক্ত বিদ্যায়ের একজন শিক্ষক বেতন পায় না সে হল ict শিক্ষক।

  3. মারুফ says:

    কম্পিউটার /ict শিক্ষকরা mpo পায় না ৫-৬ বছর,অন্য সব শিক্ষক এমপিও ভুক্ত।
    আর কত খাটাবেন বিনা বেতনে?

  4. মারুফ says:

    ভাই,
    আগে বেতন ভাতা দেবার ব্যবস্থা করুন,
    তারপর নিয়োগ দিন।

  5. মোস্তাফিজুর, কচাকাটা, কুড়িগ্রাম says:

    স্বীকৃতি প্রাপ্ত নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি চাই। ডিজিটাল পরে আগে এমপিওভুক্তি দিন।

  6. আবু সুফিয়ান, সহকারি শিক্ষক পতন উষার, উচ্চ বিদ্যালয়, কমল গঞ্জ, মৌলভী বাজার says:

    অতিরিক্ত শ্রেণি শাখা শিক্ষকরা mpo পায় না
    অন্য সব শিক্ষক এমপিও ভুক্ত।
    আর কত খাটাবেন বিনা বেতনে।
    এম পি ও ভুক্ত বিদ্যায়ের একজন শিক্ষক বেতন পায় না অন্যরা পায়

    এ যেন পাকিস্তানি শাসক গোস্টি

    যারা আমাদের বাংলাদেশিদের সাথে এ রকম বিমাতা সুলভ আচরন করে ছিল।
    এখন বুঝি আমরা বাংলাদেশিরাও এই আচরন পাচ্ছি।

    বুঝা যায় আমরা যারা নিয়োগ পেয়েছি
    আমরা এ দেশের ই নায়।।

  7. মনির হোসেন(সহকারী শিক্ষক আইসিটি) দক্ষিণ সূচীপাড়া ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় says:

    আপনারা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রাথমিক পর্যায় আরম্ভ করবেন কিন্তু আজ ৯ বছর ICT শিক্ষকদের এমপিও সরকার বন্ধ করে শিক্ষকদের হয়রানি শিকার হচ্চে পদে পদে।

  8. মনির হোসেন(সহকারী শিক্ষক আইসিটি) দক্ষিণ সূচীপাড়া ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় says:

    আপনারা একবার বলেন যে আর হবে না এমপিও ICT শিক্ষকদের তাহলে আমরা আর বিদ্যালয়ে ক্লাস নিবো না চলে যাবো।

  9. এতে কোন্্্্্ব্্্্্্ ভিতর ভাগ্য।

  10. md, anamul haque. says:

    এমপিও দেন! তবে ১০/২০ করে যাঁদের চাকুরি করা হয়েছে তাঁরা খালি হাতে বিদায় না হওয়ার আগে দিয়েন না! কিনারা তো এমপিও চাইতে চাইতে অসুস্হ্য প্রায়! তাদের টাকার প্রয়োজন কম!!

  11. md, anamul haque. says:

    এমপিও দেন! তবে ১০/২০ করে যাঁদের চাকুরি করা হয়েছে তাঁরা খালি হাতে বিদায় না হওয়ার আগে দিয়েন না! তিনারা তো এমপিও চাইতে চাইতে অসুস্হ্য প্রায়! তাদের আবার টাকার প্রয়োজন কম!! অসুস্হ্য হলে চিকিৎসা সেবা দেয় সরকার,,,,,,;

  12. সাইদুর রহমান, আড়িয়ল স্বর্ণময়ী উচ্চ বিদ্যালয়, মুন্সীগঞ্জ। says:

    ১৩/১১/২০১১ সনের পরে নিয়োগ পাওয়া আই,সি,টি/কম্পিউটার শিক্ষকগন নিয়োগ পেয়ে ৫/৬ বছর ধরে বেতন পাননা। তার ওপর আবার পঞ্চম শ্রেনীতে আই,সি,টি বাধ্যতামুলক করার চিন্তাভাবনা। আগে মাধ্যমিক স্তরে আই,সি,টি/কম্পিউটার শিক্ষকদের বেতন/এমপি দিন। তার পর অন্য চিন্তাভাবনা।

  13. সাইদুর রহমান, আড়িয়ল স্বর্ণময়ী উচ্চ বিদ্যালয়, মুন্সীগঞ্জ। says:

    ১৩/১১/২০১১ সনের পরে নিয়োগ পাওয়া আই,সি,টি/কম্পিউটার শিক্ষকগন নিয়োগ পেয়ে ৫/৬ বছর ধরে বেতন পাননা। তার ওপর আবার পঞ্চম শ্রেনীতে আই,সি,টি বাধ্যতামুলক করার চিন্তাভাবনা। আগে ১৩/১১/২০১১ সনের পরে নিয়োগ পাওয়া মাধ্যমিক স্তরে আই,সি,টি/কম্পিউটার শিক্ষকদের বেতন/এমপি দিন। তারপর অন্য চিন্তাভাবনা।

  14. Bijoy Krishna Roy. says:

    মাননীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা মহোদয় আমার মনে হয় আই সি টি শিক্ষকদের বিষয়ে আপনার সাহায্যের হাত না বাড়ালে এম পি ও ভুক্ত হবে না । গত ১৩/১১/২০১১ সাল থেকে আমাদের এম পি ও ভুক্তি বন্ধ রেখেছে । এটা নিশ্চয়ই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জন নেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রধান অন্তরায় ।এক প্রকার বিনা অপরাধে শাস্তি । আপনি ডিজিটাল বাংলার রুপকার আপনি দয়া করে সকল নন এম পি ও আই সি টি শিক্ষকদের এম পি ও ভুক্ত করে জাতির কলঙ্ক মুক্ত করুন ।

  15. গোলাম কবির, প্রধান শিক্ষক (ভার:)কাশিমপুর এ,কে, f.h. high school. says:

    ICT শিক্ষকের MPO ভুক্ত করে মাধ্যমিক শিক্ষা কে জাতীয়করণ করুন।প্রধান এবং সহকারী প্রধান দের সরকারি বিধি অনুসারে পদোন্নতি দিন।

  16. mamun says:

    plz give computer or ict mpo with arrears very quickly

  17. Shamim hossain says:

    আগে প্রাথমিকের সহকারি শিক্ষকদের মর্যাদা দিন মানসম্মত বেতন দিন।

  18. নাম:আবু কামাল' প্রভাষক-পারখিদিরপুর ডিগ্রি কলেজ,আটঘড়িয়া,পাবনা। says:

    প্রযুক্তি ওসৃজনশীল শিক্ষার কার্যক্রম প্রাথমিক থেকেই হওয়া প্রয়োজন।

  19. মনোজীৎ কুমার পাল, গিলাতলা,রামপাল,বাগেরহাট says:

    সুন্দর ঊদ্দোগ

  20. মো: মোকতল হোসেন, দেবিদ্বার,কুমিল্লা। says:

    মাধ্যমিক পযর্যের ICT শিক্ষকদের এম,পি, ও দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। কারন; তারা না পারছে চাকুরি ছাড়তে, না পারছে সংসার চালাতে।

  21. মোঃ হবিবর রহমান, বীরগঞ্জ কলেজ, দিনাজপুর says:

    আইসিটি বিষয়টি যারা পড়াবে তাদের বেতন ভাতার বিষয়টি আগেই নিশ্চিত করা দরকার।

  22. Mustafezur Rahman. Assistant teacher Batiapara -Shialmari High School. Alamdanga,Chusdanga says:

    আপনার মন্তব্য

    Welcome

আপনার মন্তব্য দিন