বিদ্যালয়ের মাঠ যেন মশার প্রজননস্থল - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা


বিদ্যালয়ের মাঠ যেন মশার প্রজননস্থল

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

পানি জমে থাকতে থাকতে বিদ্যালয় মাঠের স্যাঁতসেঁতে অবস্থা। মাঠে খেলাধুলা বন্ধ আছে কয়েক মাস ধরে। ফলে জমে থাকা পানিতে মশা জন্ম নিচ্ছে। এই চিত্র গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নাওজোড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। শনিবার (২৫ আগস্ট) প্রথম আলো পত্রিকার প্রিন্ট সংস্করণে এ প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। 

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের নাওজোড় এলাকায় ১৯১১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বিদ্যালয়টি। প্রায় ৪০০ শিক্ষার্থীর এই বিদ্যালয়ে নিয়মিত শিক্ষক আটজন। বর্তমানে বিদ্যালয়ের উত্তর পাশে একটি একতলা ভবন রয়েছে। সেখানে কক্ষ রয়েছে চারটি। এর একটিতে প্রধান শিক্ষক, একটিতে সহকারী শিক্ষক এবং অন্য দুটিতে ক্লাস হচ্ছে।

দক্ষিণ পাশের টিনশেড ঘরের তিনটি কক্ষে বর্ষা মৌসুমে পানি ঢোকে। ফলে সব সময় সেখানে ক্লাস করা যায় না। আর পশ্চিম পাশে একটি ভবন পড়ে আছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশের বারান্দায় জমে আছে পানি। খেলার মাঠেও পানি জমে স্যাঁতসেঁতে অবস্থা। জমে থাকা পানিতে মশার উপদ্রব। আশপাশে নোংরা পরিবেশ। টয়লেটের সামনে-পেছনে বিদ্যালয়ের সব আবর্জনা ফেলা হয়। সামনের রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করা গেলেও স্কুলের মাঠে জমে থাকা পানির কারণে দুর্ভোগে পড়েছেন শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা।

বিদ্যালয়ের দুরবস্থার কথা উল্লেখ করে গত ২৮ এপ্রিল প্রধান শিক্ষক কহিনূর বানু উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে একটি আবেদন করেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেছেন, বিদ্যালয় ভবনটির আশপাশ সাত-আট ফুট উঁচু হওয়ায় পাশের বাড়িঘর, কলকারখানা ও বাজারের ময়লা পানি সারা বছর মাঠে এসে জমে। ফলে শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা করতে পারে না, দৈনিক সমাবেশ হয় না। সামান্য বৃষ্টিতে টিনশেড ভবনের মেঝেতে পানি ঢোকে। এতে শিক্ষাকার্যক্রম বন্ধ থাকে। আর বিদ্যালয়ের মাঠে মাটি ফেলার জন্য জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কার্যালয়ে একাধিকবার চিঠি দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী নাইমুল ইসলাম বলে, ‘বিদ্যালয়ের মাঠে সারা বছর পানি জমে থাকায় আমরা খেলতে পারি না। এখানে মাঠে জমে থাকা পানিতে মশার উপদ্রব বেড়েছে। ক্লাসরুমেও মশার যন্ত্রণা সইতে হচ্ছে।’

প্রধান শিক্ষক বলেন, ডেঙ্গু নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সচেতন করা হয়েছে। ঈদের আগে মা সমাবেশের আয়োজন করা হয়, সেখানে এডিস মশা নিধন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে সিটি করপোরেশন থেকে মশার কোনো ওষুধ ছিটানো হয়নি। তাঁরা ব্যক্তিগত উদ্যোগে ক্লাসরুমে ওষুধ ছিটিয়েছেন।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শফিউল হক বলেন, জেলায় ৭৭৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। সব বিদ্যালয়কে ঈদের আগেই বলা হয়েছে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে। তাঁরা বিষয়টি নজরদারির মধ্যে রেখেছেন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষার নম্বরে শিক্ষার্থী বাছাই করবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো - dainik shiksha কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষার নম্বরে শিক্ষার্থী বাছাই করবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে নওগাঁয় - dainik shiksha পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে নওগাঁয় চালু হবে দুই বছর মেয়াদি প্রাক-প্রাথমিক স্তর - dainik shiksha চালু হবে দুই বছর মেয়াদি প্রাক-প্রাথমিক স্তর জিপিএ ৪ এর গ্রেডিং বিন্যাস চূড়ান্ত, এ বছর জেএসসি থেকেই কার্যকর - dainik shiksha জিপিএ ৪ এর গ্রেডিং বিন্যাস চূড়ান্ত, এ বছর জেএসসি থেকেই কার্যকর সিটি ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা, অর্থ জমা হবে বার কাউন্সিলে - dainik shiksha সিটি ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা, অর্থ জমা হবে বার কাউন্সিলে করোনা ভাইরাস : সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত বাংলাদেশির অবস্থা আশঙ্কাজনক - dainik shiksha করোনা ভাইরাস : সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত বাংলাদেশির অবস্থা আশঙ্কাজনক সাত কলেজ ও দুই জেলায় স্বাধীনতা বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সংসদের ইউনিট ঘোষণা - dainik shiksha সাত কলেজ ও দুই জেলায় স্বাধীনতা বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সংসদের ইউনিট ঘোষণা উপাচার্যদের সঙ্গে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার বৈঠক স্থগিত করলেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha উপাচার্যদের সঙ্গে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার বৈঠক স্থগিত করলেন শিক্ষামন্ত্রী কোচিং সেন্টারে অভিযান: ২ শিক্ষকের সাজা, শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ - dainik shiksha কোচিং সেন্টারে অভিযান: ২ শিক্ষকের সাজা, শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ শিক্ষা ভবনের মহাপরিচালকের ঘনঘন বিদেশ সফর নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষা ভবনের মহাপরিচালকের ঘনঘন বিদেশ সফর নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী রওশনের প্রশ্ন : শিক্ষামন্ত্রী বেশিরভাগ সময়ে বিদেশে থাকলে শিক্ষার উন্নয়ন হবে কীভাবে ? - dainik shiksha রওশনের প্রশ্ন : শিক্ষামন্ত্রী বেশিরভাগ সময়ে বিদেশে থাকলে শিক্ষার উন্নয়ন হবে কীভাবে ? অনার্স চতুর্থ বর্ষ পরীক্ষার সেই সূচি সংশোধন, সস্তুষ্ট নয় শিক্ষার্থীরা - dainik shiksha অনার্স চতুর্থ বর্ষ পরীক্ষার সেই সূচি সংশোধন, সস্তুষ্ট নয় শিক্ষার্থীরা ভুয়া বিএড সনদে আইডিয়াল স্কুলের ৮ শিক্ষকের চাকরি, রয়েল ইউনিভার্সিটির বিরুদ্ধেও পাল্টা অভিযোগ - dainik shiksha ভুয়া বিএড সনদে আইডিয়াল স্কুলের ৮ শিক্ষকের চাকরি, রয়েল ইউনিভার্সিটির বিরুদ্ধেও পাল্টা অভিযোগ প্রশিক্ষণ পেয়েছেন সোয়া ৯ লাখ শিক্ষক তবু প্রশ্ন নোট-গাইড থেকেই - dainik shiksha প্রশিক্ষণ পেয়েছেন সোয়া ৯ লাখ শিক্ষক তবু প্রশ্ন নোট-গাইড থেকেই সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের নির্দেশ - dainik shiksha সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের নির্দেশ করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচবেন যেভাবে - dainik shiksha করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচবেন যেভাবে ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের কলেজের সংশোধিত ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের কলেজের সংশোধিত ছুটির তালিকা ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটির তালিকা ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা ২০২০ খ্র্রিষ্টাব্দে মাদরাসার ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্র্রিষ্টাব্দে মাদরাসার ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন please click here to view dainikshiksha website