ভিকারুননিসায় শিক্ষক-ছাত্রী বৈঠক - কলেজ - Dainikshiksha


ভিকারুননিসায় শিক্ষক-ছাত্রী বৈঠক

নিজস্ব প্রতিবেদক |

শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) বেলা ৩টায় স্কুলের শিক্ষকরা এসে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন প্রত্যাহার করতে বলেন। কিন্তু শিক্ষার্থীরা বলেন, দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। পরবর্তীতে শিক্ষকদের সঙ্গে দাবিদাওয়া নিয়ে কথা বলতে সব শিক্ষার্থীরা স্কুলের ভেতরে প্রবেশ করে। তবে কোনো অভিভাবক এবং সংবাদকর্মীকে তাদের সঙ্গে ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়নি। 

এর আগে শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল ছয় দফা দাবির স্মারকলিপি সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কাছে জমা দেয়। শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হল, অধ্যক্ষের পদত্যাগ এবং ৩০৫ ও ৩০৬ ধারায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অপরাধে অধ্যক্ষের শাস্তি নিশ্চিত করা; প্রত্যেক শিক্ষার্থীর আচরণ ও চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের ওপর ভিত্তি করে মানসিক স্বাস্থ্যের বিবেচনা করে আলাদা যত্ন নিতে হবে, কোনোভাবেই শারীরিক ও মানসিক চাপ এবং অত্যাচার করা যাবে না; কথায় কথায় বহিষ্কারের হুমকি দেয়া বন্ধ করে অন্যায় ডিটেনশন পলিসি বন্ধ করতে হবে; বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক ও কর্মরত সবার মানসিক সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে মানসিক পরামর্শদাতা থাকতে হবে; শৃঙ্খলাভঙ্গকারী শিক্ষার্থীকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিতে হবে; গভর্নিংবডির সবাইকে পদত্যাগ করতে হবে এবং অরিত্রির মা-বাবার সঙ্গে দুর্ব্যবহারের জন্য অধ্যক্ষ ও বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে।

অন্দোলনকারীরা বলছে দাবিগুলোর মধ্যে ১, ৫ ও ৬ নম্বর দাবি এখনই মেনে নিতে হবে এবং ২,৩ ও ৫ নম্বর দাবি মেনে নেয়ার জন্য লিখিত দিতে হবে। তবেই শিক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলন প্রত্যাহার করবে। আর না হলে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

এর আগে প্রতিষ্ঠানটির সকল শাখার শিক্ষকদের এক জরুরি বেঠৈক হয় ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের বেইলী রোডের প্রধান শাখায়। সভায় শিক্ষার্থীদের মানসিক দিক বিবেচনায় রেখে তাদের শ্রেণিকক্ষে ফিরিয়ে আনতে শিক্ষকদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে বলে দৈনিক শিক্ষাকে জানিয়েছে বিশ্বস্ত সূত্র।

 




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় - dainik shiksha প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার - dainik shiksha অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website