আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


মামলা ও হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মাদ্রাসা সুপার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি | সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭ | আলিয়া মাদ্রাসা

জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মামলায় হয়রানির শিকার হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এক মাদ্রাসা সুপার। মামলা থেকে অব্যাহতি পেতে সংবাদ সম্মেলন করে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন কলারোয়া উপজেলার জালালাবাদ মহিলা দাখিল মাদ্রাসার সুপারিনটেনডেন্ট ও জালালাবাদ গ্রামের আব্দুল বারী খানের ছেলে মোঃ আব্দুস ছাত্তার। রবিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে মামলা থেকে বাঁচতে আব্দুস ছাত্তার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি, পুলিশ সুপার ও সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ছয় শতক জমি নিয়ে শেখ মোসলেম আহম্মেদ্দের সঙ্গে তাদের দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আব্দুস ছাত্তার বলেন, তার ভাইপো আব্দুল আহাদ ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও অপর ভাইপো আব্দুস সামাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য হলেও মোসলেম আহমেদের মিথ্যা মামলায় তাদেরও পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে। জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে শেখ মোসলেম আহম্মেদ তাকে পুলিশকে ম্যানেজ করে জামায়াতকর্মী বানিয়ে গ্রেফতার করে জেল খাটিয়েছেন। মামলার এজাহারে তার কোন নাম না থাকলেও সর্বশেষ গত ৭ আগস্ট তাকে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করান শেখ মোসলেম আহম্মেদ।

১৭ আগস্ট তিনি জজকোর্ট থেকে জামিনে মুক্তি পান। অভিযোগ, জজকোর্ট থেকে জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর মোসলেম আহম্মেদ ফের তার পা কেটে নেয়ার হুমকি দেন। এছাড়া তার ভাইপো হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দিয়ে তাকে বাড়িছাড়া করা হয়েছে। এ সময় আব্দুস ছাত্তারের চাচাত ভাই সাতক্ষীরা জজকোর্টের আইনজীবী ও কলারোয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক আলী হোসেন উপস্থিত থেকে মোসলেম আহম্মেদের বিভিন্ন নির্যাতন ও হয়রানির বর্ণনা দেন।

"১" মন্তব্য
  1. মোঃফিরোজুর রহমান. সহ সুপার ,চরফলকন এস, ডি মাদ্রাসা। কমলনগর। says:

    ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ কে হয়রানি কিংবা পাষানোর জন্য কেউ সড়যন্ত্র করছে কিনা তা ক্ষতিয়ে দেখা দরকার।

আপনার মন্তব্য দিন