মেডিকেল টেকনোলজি শিক্ষার জন্য আলাদা বোর্ডের প্রয়োজন নেই: এন আই খান - মেডিকেল ও কারিগরি - Dainikshiksha


মেডিকেল টেকনোলজি শিক্ষার জন্য আলাদা বোর্ডের প্রয়োজন নেই: এন আই খান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সাবেক শিক্ষা সচিব ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘরের কিউরেটর নজরুল ইসলাম খান (এন আই খান) বলেছেন, মেডিকেল টেকনোলজি শিক্ষার জন্য আলাদা কোনো বোর্ড গঠনের প্রয়োজন নেই। বিদ্যমান ব্যবস্থার মাঝেই বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনেই বিকাশমান এ শিক্ষাকে বিশ্বমানে নিয়ে যাওয়া সম্ভব।

শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বোর্ড এ্যাফিলিয়েটেড সোসাইটি ফর মেডিকেল টেকনোলজি ইনস্টিটিউশন (বামি) এর উদ্যোগে এক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

এনআই খান বলেন, স্ব স্ব মন্ত্রণালয় যদি বোর্ড গঠন করে শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনা করে তাহলে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের কাজ কি? আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী যে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অবশ্যই শিক্ষা মন্ত্রণালয় নিয়ন্ত্রিত কোনো শিক্ষাবোর্ড বা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা বাধ্যতামূলক। যদি কখনো মেডিকেল শিক্ষাবোর্ড গঠনের প্রয়োজন হয় তাহলে তা অবশ্যই শিক্ষামন্ত্রণালয়ের অধীনেই পরিচালিত হতে হবে।

বোর্ড এ্যাফিলিয়েটেড সোসাইটি ফর মেডিকেল টেকনোলজি ইনস্টিটিউশন (বামি) এর সভাপতি প্রফেসর ডা. এম এ বাসেত এর সভাপতিত্বে গোলটেবিল বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ফাদার বেঞ্জামিন কস্তা, তথ্যন্ত্রণালয়ের সাবেক উপ-প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান মলঙ্গী উপস্থিত ছিলেন।

 

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক ডা. আ জ ম দৌলত আল মামুন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকদের ভাতা দেয়ার আদেশ জারি - dainik shiksha চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকদের ভাতা দেয়ার আদেশ জারি এইচএসসির ফল প্রকাশ হতে পারে ২১ জুলাই - dainik shiksha এইচএসসির ফল প্রকাশ হতে পারে ২১ জুলাই বরিশাল বোর্ডে কর্মচারীদের দুই গ্রুপের হাতাহাতি - dainik shiksha বরিশাল বোর্ডে কর্মচারীদের দুই গ্রুপের হাতাহাতি রায় অমান্য করে মাছুমকে টাইমস্কেল: বরিশাল বোর্ড কর্মচারীদের বিক্ষোভ - dainik shiksha রায় অমান্য করে মাছুমকে টাইমস্কেল: বরিশাল বোর্ড কর্মচারীদের বিক্ষোভ ৩০ জুলাইয়ের মধ্যে তুলতে হবে উচ্চ মাধ্যমিকের উপবৃত্তি - dainik shiksha ৩০ জুলাইয়ের মধ্যে তুলতে হবে উচ্চ মাধ্যমিকের উপবৃত্তি প্রকল্পের ৬৩ কর্মচারীকে রাজস্বখাতে পদায়ন - dainik shiksha প্রকল্পের ৬৩ কর্মচারীকে রাজস্বখাতে পদায়ন শিক্ষকের বেতের আঘাতে চোখ হারাল মাদরাসাছাত্র - dainik shiksha শিক্ষকের বেতের আঘাতে চোখ হারাল মাদরাসাছাত্র জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তির যোগ্যতা নির্ধারণ - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তির যোগ্যতা নির্ধারণ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website