আমাদের সঙ্গে থাকতে দৈনিকশিক্ষাডটকম ফেসবুক পেজে লাইক দিন।


রোহিঙ্গাদের জন্য টিফিনের টাকা দিলো ভালুকার স্কুল শিক্ষার্থীরা

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি | সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭ | বিবিধ

মায়ানমারের আরাকান থেকে জীবন নিয়ে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সাহায্যার্থে একদিনের টিফিনের টাকা বিদ্যালয়ে জমা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৬শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী।

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ঝালপাজা উচ্চ বিদ্যালয় রোহিঙ্গা শরনার্থীদের সাহায্যের উদ্যোগ গ্রহন করলে এ অর্থ জমা দেয় শিক্ষার্থীরা।

বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মোঃ নাজমুল আলম সোহাগ জানান, বিদ্যালয়ে প্রথমে এ্যাসেম্বলি ঘন্টায় এবং পরে ক্লাসে নোটিশ দেয়া হয় রোহিঙ্গাদের জন্য সাধ্যমত সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে আসার। এ আহ্বানে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা স্বতঃস্ফুর্ত ভাবে সাড়া দেয়। তিনি বলেন, মানবতার কাজে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে ৬শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী তাদের ১দিনের টিফিনের টাকা বিদ্যালয়ে জমা দেয়। পরে স্ব স্ব উদ্যোগে নিজেদের পরিধেয় পুরাতন কাপড়-চোপর স্কুলে এনে জমা দিকে থাকে। শিক্ষার্থীদের সাথে শিক্ষকরাও জড়িত হয়। বিষয়টি প্রচার হওয়ার পর ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবক ও এলাকাবাসীরা এ কাজে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে শুরু করেন।

গত ১১ই সেপ্টেম্বর থেকে ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ত্রাণ সামগ্রী জমা নেয়া হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম তপন অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়ে ত্রাণ সহায়তা সংগ্রহ অভিযান সমন্বয় করছেন।

সূত্র জানায়, ত্রান সামগ্রী সংগ্রহের খবরে সাড়া পাওয়া গেছে দেশের বাইরে থেকেও। এলাকার প্রবাসীরা বিভিন্ন মাধ্যমে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে যা দিয়ে খাবার সামগ্রী কেনা হয়েছে। তাদের সংগৃহিত ত্রান সামগ্রীর মধ্যে কাপড়-চোপর, বিছানা চাদর, কয়েল, মশারী, চিড়া-মুড়ি ইত্যাদি রয়েছে। এ ছাড়া নগদ পাওয়া টাকা দিয়ে খাবার সামগ্রী কেনা হচ্ছে। বুধবার রাতে কাপড়-চোপর এবং খাবারের সামগ্রী গুলো গুছানো হবে।

বৃহস্পতিবার শিক্ষক প্রতিনিধি দিয়ে সিডষ্টোর বাজার শান্তিসংঘ সদস্যদের মাধ্যমে রোহিঙ্গা শরনার্থী আশ্রয় তা পাঠানোর ব্যাবস্থা করা হবে। এ দিকে শান্তি সংঘের রায়হান মৃধা জানান, তাদের কাছে এলাকার লোকজন ছাড়াও আরো কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ত্রান সামগ্রী জমা দিয়েছে। প্রতিষ্ঠান গুলো হচ্ছে পাড়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়, হবিরবাড়ী বাহারুল উলুম আলিম মাদ্রাসা, পাখিরচালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,আঃ গনি স্কুল এন্ড কলেজ, তালাব হোসাইনিয়া ফাজিল মাদ্রাসা। সব মালামাল প্রক্রিয়াজাত করা হচ্ছে। ট্রাক ভর্তি করে বৃহস্পতিবার তা সংশ্লিষ্ট স্থানে নিয়ে যাওয়া হবে।

"১" মন্তব্য
  1. দেলোয়ার হোসেন সরকার (উজ্জ্বল) সিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসা, হোগলা, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। says:

    এটা খুবই উত্তম একটা কাজ। যা আমাদের বড়দের করা উচিৎ, সেখানে বাচ্চারা আমাদেরকে শিখিয়ে দিল কিভাবে মানুষের উপকার করতে হয়…!!!

আপনার মন্তব্য দিন