শিক্ষকের বেত্রাঘাত : ১১ শিক্ষার্থী আহত, শিক্ষক গ্রেফতার - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা


শিক্ষকের বেত্রাঘাত : ১১ শিক্ষার্থী আহত, শিক্ষক গ্রেফতার

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

দুই জেলায় ১১ জন শিক্ষার্থীকে বেত দিয়ে বেধড়ক পিটিয়েছেন দুই  শিক্ষক। জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শাহীন স্কুল অ্যান্ড কলেজ তারাকান্দি শাখায় এবং মঙ্গলবার মাদারীপুরের কালকিনির সৈয়দ আবুল হোসেন একাডেমিতে এসব ঘটনা ঘটে। শিক্ষার্থীকে আহত করার ঘটনায় গতকাল রবিন হাসান নামে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা-জামালপুর রুটে জামালপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করেন গত রোববার। এ উপলক্ষে অ্যাডভোকেট মতিয়র রহমান তালুকদার রেলস্টেশনে আয়োজিত অনুষ্ঠান দেখতে যায় শাহীন স্কুল অ্যান্ড কলেজ তারাকান্দি শাখার দশম শ্রেণির বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থীরা। তবে তারা শিক্ষকের অনুমতি নিয়ে সেখানে যায়নি।

শিক্ষক রবিন হাসান এতে চরম ক্ষুব্ধ হন এবং পরদিন ক্লাসরুমের দরজা বন্ধ করে ১০ শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাত করেন। বেত্রাঘাতে শিক্ষার্থীদের শরীরে জখম হয়। পরে তারা অসুস্থ হয়ে পড়ে। 

আহত এক ছাত্র রকিবুল ইসলাম রনির বাবা শামীম আহমেদ জানান, অনুমতি ছাড়া অনুষ্ঠান দেখতে যাওয়ার অপরাধে তার ছেলেসহ ১০ জনকে অমানবিকভাবে বেত দিয়ে পেটানো হয়েছে। সরিষাবাড়ী থানার ওসি মাজেদুর রহমান জানান, রনির বাবা শিক্ষক রবিন হাসানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ অভিযোগের ভিত্তিতে ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে, মাদারীপুর জেলার কালকিনিতে শিক্ষকের বেতের আঘাতে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র মারুফ মৃধা। তাকে বেত্রাঘাতে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে সৈয়দ আবুল হোসেন একাডেমির প্রধান শিক্ষক বিএম হেমায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে।

আহত ছাত্রের পরিবারের অভিযোগ, পৌর এলাকার উত্তর রাজদী গ্রামের কবির মৃধার ছেলে মারুফ তার কয়েকজন সহপাঠীর সঙ্গে স্কুলে অষ্টম শ্রেণির রেজিস্ট্রেশন ফরম জমা দিতে যায়। এ সময় হুড়োহুড়ির ঘটনা ঘটলে ক্ষুব্ধ হন হেমায়েত হোসেন। পরে তিনি শ্রেণিকক্ষে গিয়ে শুধু মারুফকে বেত্রাঘাত করেন এবং লাথি মেরে কক্ষ থেকে বের করে দেন। এতে মারুফ গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

আহত ছাত্রের বড় ভাই হাজবি মৃধা সাংবাদিকদের জানান, ঘটনাটি কাউকে জানালে মারুফকে স্কুল থেকে বহিস্কার করার হুমকি দেন হেমায়েত স্যার। তার বিচার চাই। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক বলেন, 'মারুফ শ্রেণিকক্ষে বসে গালিগালাজ করায় তাকে শাসন করেছি।'

এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান বলেন, তিনি বিষয়টি পুরোপুরি জানেনা। তথ্য নিয়ে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হবে। 




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
একাদশে ভর্তির আবেদন শুধুই অনলাইনে, শুরু ১০ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির আবেদন শুধুই অনলাইনে, শুরু ১০ মে স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের ফেব্রুয়ারির এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের ফেব্রুয়ারির এমপিওর চেক ছাড় লেখাপড়ার সাথে জিপিএ-৫ এর কোনো সম্পর্ক নেই : মুহম্মদ জাফর ইকবাল - dainik shiksha লেখাপড়ার সাথে জিপিএ-৫ এর কোনো সম্পর্ক নেই : মুহম্মদ জাফর ইকবাল সমন্বিত ভর্তিতে বাধা হলে সেই স্বায়ত্বশাসন নিয়েও ভাবা উচিত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সমন্বিত ভর্তিতে বাধা হলে সেই স্বায়ত্বশাসন নিয়েও ভাবা উচিত : শিক্ষামন্ত্রী ঢাকা কলেজের ৫ ছাত্র ছুরিকাহত : সিটি কলেজের ৩ ছাত্র গ্রেফতার - dainik shiksha ঢাকা কলেজের ৫ ছাত্র ছুরিকাহত : সিটি কলেজের ৩ ছাত্র গ্রেফতার জেডিসিতে বৃত্তিপ্রাপ্ত ৯ হাজার শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ - dainik shiksha জেডিসিতে বৃত্তিপ্রাপ্ত ৯ হাজার শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষা হবে চারটি পৃথক গুচ্ছে - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষা হবে চারটি পৃথক গুচ্ছে মাস্টার্স শেষ পর্ব পরীক্ষা শুরু ২৮ মার্চ - dainik shiksha মাস্টার্স শেষ পর্ব পরীক্ষা শুরু ২৮ মার্চ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন please click here to view dainikshiksha website