সিজারের ঘোরাফেরার ভিডিও ফুটেজ পেয়েছে পুলিশ - 1


সিজারের ঘোরাফেরার ভিডিও ফুটেজ পেয়েছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও জঙ্গি গবেষক ড. মোবাশ্বার হাসান সিজার নিখোঁজ হওয়ার আগ মুহূর্তের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহের চেষ্টা করছে পুলিশ। এরই মধ্যে পুলিশ রাজধানীর

আগারগাঁওয়ের আইডিবি ভবনের কাছে তাঁর ঘোরাফেরার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছে।

তবে ওই ফুটেজে সিজারকে তুলে নেওয়ার কোনো দৃশ্য আছে কি না সে ব্যাপারে কিছু জানাতে চায়নি পুলিশ।
ওই ঘটনার তদন্তসংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, সিজার কিভাবে নিখোঁজ হয়েছেন, তা জানতে আগারগাঁওয়ের রাস্তায় থাকা ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা থেকে আরো ভিডিও ফুটেজ উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। এর মাধ্যমে তাঁর নিখোঁজ হওয়ার আগ মুহূর্তের তথ্য জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তদন্তসংশ্লিষ্ট এক পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে  বলেন, নিখোঁজ হওয়ার দিন বিকেলে আগারগাঁওয়ের আইডিবি ভবনের কাছে সিজারের ঘোরাফেরার তথ্য পেয়েছে পুলিশ। এরই মধ্যে ওই এলাকায় থাকা ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা থেকে ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে সিজারকে কারা তুলে নিয়ে গেছে তার কোনো দৃশ্য ওই ফুটেজে আছে কি না জানতে চাইলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা কোনো মন্তব্য করতে চাননি। এমনকি ওই ফুটেজ চাইলে তিনি তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। গত ৭ নভেম্বর আইডিবি ভবনে একটি অনুষ্ঠান শেষে বেরোনোর পর থেকে খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোবাশ্বার হাসান সিজারের। তাঁকে কী কারণে কারা তুলে নিয়ে গেছে সে বিষয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কয়েকটি টিম কাজ করলেও গতকাল পর্যন্ত জানা যায়নি তাঁকে কে বা কারা উঠিয়ে নিয়েছে।

তবে একটি সূত্র বলছে, ‘বিডি পলিটিকো’ নামের একটি অনলাইন পোর্টালের সঙ্গে জড়িত ছিলেন মোবাশ্বার। ওই অনলাইন থেকে সরকারবিরোধী প্রচারণা চালানোর অভিযোগ আছে। সিজারের নিখোঁজ হওয়ার পেছনে এর যোগসূত্র থাকতে পারে বলেও একটি সূত্র মনে করছে।

এদিকে গতকাল এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘সিজারসহ আরো যাঁরা নিখোঁজ রয়েছেন তাঁরা কিভাবে নিখোঁজ হয়েছেন, তা জানার চেষ্টা করছে গোয়েন্দারা। তাঁদের উদ্ধারে কাজ করা হচ্ছে। ’ সিজারের নিখোঁজ হওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে র‍্যাব-৩-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল এমরানুল হাসান বলেন, ‘নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কিভাবে কী কারণে নিখোঁজ হয়েছেন, তা জানার চেষ্টা করছি আমরা। তাঁর পরিবারের সঙ্গেও কথা বলা হচ্ছে। কয়েকটি বিষয় মাথায় নিয়ে তাঁকে খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। ’

সূত্র: কালের কন্ঠ



পাঠকের মন্তব্য দেখুন
স্কুল-কলেজে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর - dainik shiksha স্কুল-কলেজে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর এমপিও নীতিমালা ২০১৮ জারি - dainik shiksha এমপিও নীতিমালা ২০১৮ জারি চতুর্দশ শিক্ষক নিবন্ধনের মৌখিক পরীক্ষা ২৪ জুন - dainik shiksha চতুর্দশ শিক্ষক নিবন্ধনের মৌখিক পরীক্ষা ২৪ জুন নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের তথ্য চেয়ে গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের তথ্য চেয়ে গণবিজ্ঞপ্তি দাখিল-২০২০ পরীক্ষার মানবণ্টন প্রকাশ - dainik shiksha দাখিল-২০২০ পরীক্ষার মানবণ্টন প্রকাশ ইবতেদায়ি সমাপনীর মানবণ্টন প্রকাশ - dainik shiksha ইবতেদায়ি সমাপনীর মানবণ্টন প্রকাশ জেএসসির চূড়ান্ত সিলেবাস ও মানবণ্টন প্রকাশ - dainik shiksha জেএসসির চূড়ান্ত সিলেবাস ও মানবণ্টন প্রকাশ জেএসসির বাংলা নমুনা প্রশ্ন প্রকাশ - dainik shiksha জেএসসির বাংলা নমুনা প্রশ্ন প্রকাশ একাদশে ভর্তির আবেদন ও ফল প্রকাশের সময়সূচি - dainik shiksha একাদশে ভর্তির আবেদন ও ফল প্রকাশের সময়সূচি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website