সুনামগঞ্জে বন্যায় ১৬৮ স্কুল বন্ধ - স্কুল - Dainikshiksha


সুনামগঞ্জে বন্যায় ১৬৮ স্কুল বন্ধ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি |

টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় জেলার ১৬৮টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠাদান বন্ধ রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকেলে এমন তথ্য জানিয়েছেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জিল্লুর রহমান।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের তথ্যমতে, অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে পানি প্রবেশ করায় পাঠদান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ২২টি, দোয়ারাবাজার উপজেলার ১৮টি, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ২৭টি, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ৩টি, ছাতক উপজেলার ১০টি, জামালগঞ্জ উপজেলার ৩০টি, তাহিরপুর উপজেলার ১৯টি ও ধর্মপাশা উপজেলার ৫৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রয়েছে।

এদিকে যেসব এলাকার বিদ্যালয়গুলো উঁচু স্থানে রয়েছে সেগুলোতে অতিবৃষ্টিতে প্লাবিত হওয়া মানুষদের আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এজন্য বিদ্যালয়গুলোর প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরিকে সার্বক্ষণিক বিদ্যালয়ে থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. জিল্লুর রহমান বলেন, অতিবৃষ্টিতে সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত হয়েছে। এতে জেলার ১৬৮টি বিদ্যালয়ে পানি প্রবেশ করায় আমরা সেগুলো বন্ধ রেখেছি। তা ছাড়া আমরা যেসব বিদ্যালয় উঁচু বা আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে সেগুলোর প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরিকে সার্বক্ষণিক বিদ্যালয়ে অবস্থান করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যদি একজন মানুষও আশ্রয়ের জন্য আসেন তাহলে তাকে বিদ্যালয়ে থাকার ব্যবস্থা করে দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, টানা চারদিনের বৃষ্টিতে সুনামগঞ্জের নদী ও ভারতের পাহাড়ি ঢলে পানি বৃদ্ধি পেয়ে সুনামগঞ্জের কয়েকটি এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে শতাধিক পরিবার। তা ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুনামগঞ্জে ১৬৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে, যা সুরমা নদীর বিপদসীমার ৮৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন - dainik shiksha এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ - dainik shiksha মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website