স্বতন্ত্র আইন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা সময়ের দাবি : প্রধান বিচারপতি - বিবিধ - Dainikshiksha


স্বতন্ত্র আইন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা সময়ের দাবি : প্রধান বিচারপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আইন ও বিচার বিভাগের উন্নয়নের লক্ষ্যে একটি স্বতন্ত্র আইন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা সময়ের দাবি বলে মনে করেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) প্রথিতযশা আইনজীবী ও সমাজসেবী রফিক-উল হককে খান বাহাদুর স্বর্ণপদক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি এ কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘ব্যারিস্টার রফিক-উল হকসহ এ দেশের জ্ঞানতাপস ও বর্ণাঢ্য আইনজ্ঞদের কাছে নিবেদন করব, তাঁরা যেন আমাদের প্রতিবেশী দেশের আদলে অন্তত একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ আইন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন, যা আইন শিক্ষার গুণগত মান ও গবেষণার ভিত্তিকে আরও সমৃদ্ধ করবে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যাঁরা আইনকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করবে, তাদের কাছে তাঁরা স্মরণীয় হয়ে থাকবেন বলে আমার বিশ্বাস।’

ঢাকা আহসানিয়া মিশন খান বাহাদুর আহসানউল্লাহ স্বর্ণপদক ২০১৭ প্রদান উপলক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের  অধ্যাপক ড. এম এইচ খান মিলনায়তনে ওই অনুষ্ঠান হয়। এতে রফিক-উল হককে স্বর্ণপদক পরিয়ে দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রফিক-উল হককে ক্রেস্ট ও দুই লাখ টাকার চেক ও বই তুলে দেন ঢাকা আহসানিয়া মিশনের প্রেসিডেন্ট কাজী রফিকুল আলম। অন্যদের মধ্যে আহসানিয়া মিশনের সাধারণ সম্পাদক এস এম খলিলুর রহমান, আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর কাজী শরিফুল আলম, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবদুল মজিদ বক্তব্য দেন।

আয়োজকেরা জানান, ১৯৮৬ সাল থেকে খান বাহাদুর আহসান উল্লাহ স্বর্ণপদক দেওয়া হচ্ছে। এ পর্যন্ত ২৬ জনকে ওই পদক দেওয়া হয়েছে। কর্মময় জীবনে দেশের  আইন অঙ্গনে ও সমাজকল্যাণমূলক কাজে মূল্যবান অবদানের জন্য ২০১৭ সালের স্বর্ণপদক রফিক-উল হককে প্রদান করা হয়।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদনের সময় বাড়ছে না - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদনের সময় বাড়ছে না প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল হবে: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল হবে: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ করার উদ্যোগ - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ করার উদ্যোগ ৫ বছরে পৌনে দুই লাখ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে - dainik shiksha ৫ বছরে পৌনে দুই লাখ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে প্রাণসহ ৫ কোম্পানির নিষিদ্ধ পণ্য বিক্রি, সাত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা - dainik shiksha প্রাণসহ ৫ কোম্পানির নিষিদ্ধ পণ্য বিক্রি, সাত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা কলেজের নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির নির্দেশনা - dainik shiksha কলেজের নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির নির্দেশনা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website