১২ বছরে নদীতে বিলীন শিবচরের ২৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা


১২ বছরে নদীতে বিলীন শিবচরের ২৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

মাদারীপুর প্রতিনিধি |

শিবচরের বন্দরখোলা, কাঁঠালবাড়ী ও চরজানাজাত ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নদীগর্ভে বিলীন হওয়ায় শিক্ষা কার্যক্রম থেকে ঝরে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে অনেক শিশুর। চলতি বছর চারটি বিদ্যালয়সহ গত ১২ বছরে ২৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নদীতে বিলীন হয়।

জানা যায়, চলতি বন্যায় শিবচরের চরাঞ্চলের চরজানাজাত ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়টি ২য় বারের মতো ভাঙনকবলিত হয়, এর আগে ২০১৮ সালে স্কুলটির তিনটি ভবন নদীতে বিলীন হয়। এছাড়াও চলতি বছর বন্দরখোলা ইউনিয়নের নুরুদ্দিন মাদবরকান্দি এসই এস ডি পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের তিন তলা ভবন, বন্দরখোলার কাজীরসুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবন কাম সাইক্লোন সেল্টার, কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের ৭৭ নম্বর কাঁঠালবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন সেল্টারের তিনতলা ভবন নদীতে বিলীন হয়।

একসঙ্গে স্কুল ও বসতভিটা হারিয়ে চরের অনেক শিশু-কিশোর শিক্ষাকার্যক্রম থেকে ঝরে পড়ার আশঙ্কার কথা জানান সংশ্লিষ্টরা। স্কুলছাত্র রফিক বলেন, ‘আমাগো স্কুল বাড়িঘর সব নদীতে ভাইঙ্গা গেছে। ব্রিজের ওপর আশ্রয় নিছি। করোনার জন্য স্কুল বন্ধ। কিন্তু চালু হইলে কই যে পড়মু!’ ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুলতান মাহবুব বলেন, ‘২০১৮ সালে আমাদের স্কুলটির তিনটি ভবন নদীতে বিলীন হয়। অন্যত্র সরিয়ে আনলেও আবারও স্কুলটি এ বছর নদীতে বিলীন হয়েছে। স্বাভাবিকভাবে চরের শিক্ষা ব্যবস্থা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। অনেক শিশুই ঝরে পড়ছে।

ভাঙন আক্রান্ত বন্দরখোলার নুরুউদ্দিন মাদবরেরকান্দি এসই এস ডি পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন বলেন, প্রতি বর্ষায় ভাঙনে আধুনিক চরটি এখন বিলীনের পথে। হাজার হাজার জিও ব্যাগ ডাম্পিং করা হলেও স্থায়ী বাঁধ না থাকায় চরটি হারিয়ে যাচ্ছে। চরজানাজাত ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক তালুকদার বলেন, আমাদের চরগুলো অনেক আধুনিক ছিল। বড় বড় ভবনের স্কুল, পাকা রাস্তা, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সবই ছিল। কিন্তু প্রতি বছরের ভাঙনে আমরা এখন নিঃস্ব।

শিবচর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, চলতি বছর পদ্মার ভাঙনে বিলীন হওয়া বিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে অন্যত্র উঁচু স্থানে জায়গা নির্ধারণে কাজ চলছে। স্কুল ও সংলগ্ন এলাকাগুলো ভাঙন আক্রান্ত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, নদীভাঙন প্রতিরোধে জিও ব্যাগ ডাম্পিং চলমান রয়েছে। ভাঙনকবলিত স্কুলগুলোর বিকল্প স্থান নির্ণয়ের কাজ চলছে।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
২০২১ খ্রিষ্টাব্দের সরকারি ছুটির তালিকা চূড়ান্ত - dainik shiksha ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের সরকারি ছুটির তালিকা চূড়ান্ত হাজী সেলিমের দখলে থাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো উদ্ধারের তাগিদ - dainik shiksha হাজী সেলিমের দখলে থাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো উদ্ধারের তাগিদ লক্ষাধিক শিক্ষকের অবৈধ সনদের বৈধতা দিলেন বিদায়ী প্রাথমিক সচিব - dainik shiksha লক্ষাধিক শিক্ষকের অবৈধ সনদের বৈধতা দিলেন বিদায়ী প্রাথমিক সচিব এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীদের সুপারিশের আগে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের মতামত নেবে এনটিআরসিএ - dainik shiksha এমপিওবঞ্চিত প্রার্থীদের সুপারিশের আগে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের মতামত নেবে এনটিআরসিএ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন করবেন যেভাবে - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন করবেন যেভাবে পাবলিক পরীক্ষায় অটোপাস: সাত সমস্যা বনাম তিন সমাধান - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষায় অটোপাস: সাত সমস্যা বনাম তিন সমাধান নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে ভর্তি : প্রধান শিক্ষকরা পরীক্ষার পক্ষে - dainik shiksha নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে ভর্তি : প্রধান শিক্ষকরা পরীক্ষার পক্ষে please click here to view dainikshiksha website