মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

হাচান আনোয়ার, ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
আজ বঙ্গবন্ধুকে খুব মনে পড়ে।তিনি বেঁচে থাকলে এত দিনে বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারীকরণ হয়ে যেত।দুঃখ হয় ভেবে যে, তাঁরই কন্যা আজ তাঁর জন্ম দেওয়া দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও এমপিওভুক্ত শিক্ষকগণ পাহাড় সমান বৈষম্যের শিকার । প্রধানমন্ত্রীর বৈরি মনোভাবের কারণে শিক্ষকগণ বারবার দাবি আদায়ের ব্যর্থ হচ্ছে যা মোটেই কাঙ্খিত নয়।
Mizan, ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
কিছু প্রভাষক আজীবন প্রভাষক থাকবেন,আর বাকিরা সহকারী অধ্যাপক হবেন এ কেমন জঘন্য কালো আইন!!!!শিক্ষা এখন ধ্বংস এর পথে।
Mizan, ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
এ সরকার আমলাদের হাতে জিম্মি, যার কারনে মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজ এর শিক্ষকসম্প্রদায় আজ পাহাড় সমান বৈষম্য এর শিকার।
গোলাম মোস্তফা, ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
বঙ্গবন্ধু বেচে থাকলে মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজ এর এমপিও ভুক্ত শিক্ষকসম্প্রদায় এত বৈষম্য এর শিকার হতেন না।
Mizanur rahman, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ব‌েঁচে থাকল‌ে ব‌েসরকারী শিক্ষকগণ আমরা সকল সুয‌োগ সুবিধা অবশ্যই পেতাম।
নামপ্রকাশে অনেচ্ছুক, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
ওটা ছিল বঙ্গবন্ধুর কথা।তিনি পাকিস্তানী শাসক গুষ্টির বৈষ্যম্যের হাত থেকে রক্ষার জন্য বলেছিলেন।কিন্তু বর্তমান সরকার কি ঐ বক্ত্যব্যের সাথে একাত্বতা ঘোষনা করবেন?
Md.Shahjahan Kabir, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
আমলাদের কারনে মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজ এর শিক্ষকসম্প্রদায় আজ বৈষম্য এর শিকার। ফলে তারা বাধ্য হয়েই কোচিং ও অন্যান্য ব্যবসাবাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকেন জীবিকার তাগিদে।
Md.Shahjahan Kabir, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
বঙ্গবন্ধু বেচে থাকলে মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজ এর এমপিও ভুক্ত শিক্ষকসম্প্রদায় এত বৈষম্য এর শিকার হতেন না।কিছু স্কুল ও কলেজ সরকারি করে বৈষম্য সৃষ্টি করতেন না।