মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Md. Khairul Islam, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো তাদের শূন্য পদের চাহিদা দিলেও খোঁজ নিয়ে জানা যায় যে অধিকাংশ বেসরকারি কারিগরি প্রতিষ্ঠান গুলো শূন্য পদ থাকা সত্তেও শূন্য পদের চাহিদা “বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে” দিচ্ছে না এবং দিবে না বলে জানায় । কারিগরি শাখায় গত ২০১৬ সালেও চাহিদা দেই নি বলেই চলে। ২০১৮ সালে তার অনুরুপ হতে যাচ্ছে। অনুগ্রহ করে এই বিষয়ে একটা প্রতিবেদন লিখবেন। আশা রইল।
unknown, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
Age limit in 35 years is terrible decision and also heart breaking!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!
রুহুল আমিন মজুমদার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
স্যার আপনি প্রায় বিষেয় প্রতিবেদন লিখে থাকেন তাঁর জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।আগামী দিনেও লিখবেন।
স্যার একদম বাস্তব কথা বলেছেন। আমি একজন নিবন্ধনধারী, চাকরির আশায় বুক বেধে আছি। ভেবেছিলাম ১৩ তাং এর পর বুঝি ভাগ্য খুলবে কিন্তু হায় !!!, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
স্যার একদম বাস্তব কথা বলেছেন। আমি একজন নিবন্ধনধারী, চাকরির আশায় বুক বেধে আছি। ভেবেছিলাম ১৩ তাং এর পর বুঝি ভাগ্য খুলবে কিন্তু হায় !!!
Mohd. Kamal Hossain., ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
ধন্যবাদ স্যার আপনার সুন্দর মতামতের জন্য। মহামান্য আদালতের রায় নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত সনদের মেয়াদ বহাল থাকবে। তাছাড়া ১-১৪ তম নিবন্ধন বিজ্ঞপ্তিতে কোনো বয়স উল্লেখ ছিলো না। তাহলে কোন আইনে নিবন্ধন সনদধারীদের উপর বয়স চাপাতে চায়? নিবন্ধন সনদ হচ্ছে বেসরকারি স্কুল কলেজে প্রবেশের সনদ। তাই সনদে লিখা আছে সহকারি শিক্ষক বা লেকচারার। নিয়োগ হবে সকল শূন্য পদের বিপরীতে। এনটিআরসিএ যেভাবে সমন্বিত জাতীয় মেধাতালিকা প্রকাশ করেছে সেভাবে নিয়ো গ দেওয়ার অনুরোধ করছি। নইলে রিটের জন্য সব প্রস্তুত হয়ে আছে। দয়া করে নিয়োগে আর জটিলতা করিয়েননা।
Moksedul Islam, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
এনটিআরসিএ এর নিকট আবেদন, মেধাতালিকায় যেমন নিয়োগ ভূক্ত, মৃত, বয়স শেষ সবার নাম এসেছে, নিয়োগ প্রদানের ক্ষেত্রে সেরকম যেন না হয়।আবার একই নিবন্ধনধারী সহকারী ও প্রভাষক উভয় পদের সনদ আছে তারা যেন একই সাথে উভয় পদে নিয়োগপ্রাপ্ত না হন।নিয়োগের ক্ষেত্রে উভই সনদধারীদের যে কোন একটিতে নিয়োগ দেওয়া হয় এবং যারা ইতোমধ্যে চাকুরিরত আছেন বা মৃত্যু বরণ করেছেন বা বয়স শেষ তাদের নাম যেন নিয়োগ তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়।
মোঃ লহির উদ্দিন, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
আপনার বক্তব্যের সাথ আমিও পুরোপুরি একমত।তবে আমি আর একটু সংযোজন করব।প্রধান ও সহপ্রধান সহ মসকল নিয়োগ এনটি আর সি এর মাধ্যমে অবিলম্বে নিয়োগ ব্যবস্থা কার্যকর করলে ভাল হয়।
Elius Hossain, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
স্যার আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।আপনার এই বাস্তবসন্মত কথাগুলো কি এনটিআরসিএ বুঝতে পারে না?আমি একজন শিক্ষক নিবন্ধনধারী ৩বছর যাবৎ অপেক্ষা করতেছি।সঠিকভাবে নিয়োগ দিলে সব নিবন্ধনধারী নিয়োগ পাবে।ইনশ্আল্লাহ।
Himel, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
স্যার একদম বাস্তব কথা বলেছেন। আমি একজন নিবন্ধনধারী, চাকরির আশায় বুক বেধে আছি। ভেবেছিলাম ১৩ তাং এর পর বুঝি ভাগ্য খুলবে কিন্তু হায় !!!
MD. MONIRUZZAMAN TALUKDER, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
চাহিদা দেওয়ার সময় ১০ দিন বাড়ানো হলো , এটার অন্য কোন রহস্য নেইতো ?
MD. JABED ALI, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
জনাব লেখক,আপনার মতামতের সাথে শ্রদ্ধা রেখে আপনাকে আর একটি অনুরোধ করছি,যদি নতুন নীতিমালা-১৮ এর ১২ নং ধারা অনুযায়ী বদলি কার্যক্রমটা চালু হয় এতে তো সরকারী কোষাগার থেকে কোন অতিরিক্ত টাকা ব্যয় হবে না । শুধু প্রতিষ্ঠান বদল হবে। প্লিজ এদের নিয়েও কিছু লিখুন । অনেকে আছেন,যারা বছরে একবারও বাড়ি যেতে পারেন না । ঈদ-পার্বনেও না । এ ব্যাপারে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে কিছু লিখুন প্লিজ ।
Md. Badsha Ali, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
এমনিতেই দেশে মানসম্মত শিক্ষকের অভাব . ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞানের মতো বিষয়ে শিক্ষকের আকাল । যারা নিবন্ধিত হয়েছেন তারা সবাই নিঃসন্দেহে শিক্ষকতার প্রান্তিক যোগ্যতা অর্জন করেছেন । এসব ব্যক্তিকে যত তাড়াতাড়ি নিয়োগ দেয়া যাবে ততই দেশ ও জাতির কল্যাণ । নীতিমালায় শিক্ষকতায় প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে . 35 years age limit out . Any age limit active for Education . Pro nob Mokharji Indian President ,But President want to be a teacher in University business Faculty . Md. Badsha Ali
Siddiqur Rahman, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
যুগোপযোগী লেখার জন্য ধন্যবাদ।তবে একটি বিষয় নতুন ঘোষিত জনবল আগামী ৫ বছরে/ক্রমান্বয়ে নিবে বলে বলা আছে।সুতরাং এটা এনটিআরসিএর এখতিয়ারাধীন নয়,অর্থ বিভাগের সক্ষমতাও জড়িত।
Mb Rony, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
স্যারের লেখা সব সময়ই ভাল লাগে/ কিন্তু স্যার আমার মনে হয় এনটিআরসিএ নিয়োগ না দিতে সময় কাল ক্ষেপন করছে
MD.ATASH MIA, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
কাল ক্ষেপন করাটা এন টি আর সি এ এর নিয়ম হয়ে গেছে।
Md. Ashraful Haque, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
I agreed with this article.