মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

মো: তাফাজ্জল হোসেন, ১২ মার্চ, ২০১৯
তিন ব্যক্তি মা ওলানা সাহেবের আখ চুরি করেছে। উক্ত তিন জনের মধ্যে একজন মাওলানা সাহেবের চাচাত ভাই, একজন অনাত্নীয়, একজন হিন্দু। মাওলানা সাহেব চিন্তা করলেন তিনজনকে একত্রে শাস্তি দেয়া সম্ভব নয়। তিনি বুদ্ধি করে তিন জনকে ডেকে এনে হিন্দু ছেলেটিকে উদ্দেশ্য করে বললেন , সে আমার চাচাত ভাই সে আমার আখ খেতেই পারে, আর ও আমার ধর্মীয় ভাই সে ও খেতে পারে কিন্তু তুই অন্য ধর্মের হয়ে আখ খেলি কেন? এবলে তাকে প্রহার শুরু করলো। এবং তাকে প্রহারের পর অনাত্নীয় লোকটিকে বলল সে আমার চাচাত ভাই বলে আখ খেতেই পারে কিন্তু তুই খেলি কেন? এ বলে তাকেও প্রহার করলো। তার পর চাচাত ভাইকে বললো ওরা আমার কেউ নয় বলে আখ খেয়েছে কিন্তু তুই খেলি কেন? এ বলে তাকেও প্রহার করলো। এখন আমার প্রশ্ন বেসরকারী শিক্ষকগন ও কি এভাবে মার খাওয়ার সম্ভাবনা আছে? বাস্তবতায় কি তা বুঝাচ্ছে না?
jalaluddin, ০৪ মার্চ, ২০১৯
এসব কেন হচ্ছে? কেউ বুঝার আগেই যা ঘটার ঘটছে। যাই হোক, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আবেদন বেসরকারি শিক্ষকদের ব্যাপারে একবার ভাবুন সরকারি শিক্ষকদের সমান পরিশ্রম করা সত্বেও বেতনের ক্ষেত্রে আকাশ যমিন পার্থক্য,এ কি রকম তামাশা! আমার মনে হয়না বাঙ্গালি জাতির পিতা বেচেঁ থাকলে একটি স্বাধীন দেশে জাতির বিবেক নির্মাণকারীদের সাথে এ রকম বিমাতা সুলভ আচারণ করা হত।
মোঃ শাহীন আখতার, ০৪ মার্চ, ২০১৯
5 পার্সেন্ট ইনক্রিমেন্ট দিয়ে তাদের আর সহ্য হলো না। টাকাটা কিভাবে আবার নেওয়া যায় সেটাই মাথার মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের। তাই 5 পার্সেন্ট দিয়ে 4 পারসেন্ট কেটে নেওয়া হলো আর আমরা যা ছিলাম তাই রয়ে গেলাম।
mosharofhossenkam, ০৩ মার্চ, ২০১৯
জানি, কমেন্ট লিখে কোন কাজ হবে না। কারণ শিক্ষকদের কিছু করার নেই। তার পর ও তাদের বিবেক থাকলে এমন করতেন না।
mosharofhossenkam, ০৩ মার্চ, ২০১৯
জানি, যে যতোই মন্তব্য লিখুক না কেন! কোন কাজ হবেনা। কারণ এঁদের কোন বিবেক নেই। হে আল্লাহ, শিক্ষকদের পক্ষে কেউ নেই।
mosharofhossenkam, ০৩ মার্চ, ২০১৯
জানি, যে যতোই মন্তব্য লিখুক না কেন! কোন কাজ হবেনা। কারণ এঁদের কোন বিবেক নেই। হে আল্লাহ, শিক্ষকদের পক্ষে কেউ নেই।
মোঃবজলুর রহমান,সহকারী সুপার,পূর্বচর পাড়াতলা জালাল উদ্দিন দাখিল মাদরাসা।, ০৩ মার্চ, ২০১৯
আর কি বলব।কাটতেই যখন চলছে নড়াচরা করে লাভ নেই।
md.soriful islam, ০৩ মার্চ, ২০১৯
মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, শিক্ষকদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে কার জন্য ১০% টাকা কর্তন করা হচ্ছে ? ১০০% টাকা কেটে নিলে কি করার আছে, যা মনে হয় তাই করবে, কাউরির কিছুই করার নেই। পারলে ঠেকাও। আল্লাহ যদি কিছু করে তাহলে বন্ধ হবে।
md.soriful islam, ০৩ মার্চ, ২০১৯
মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, শিক্ষকদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে কার জন্য ১০% টাকা কর্তন করা হচ্ছে ? ১০০% টাকা কেটে নিলে কি করার আছে, যা মনে হয় তাই করবে, কাউরির কিছুই করার নেই। পারলে ঠেকাও। আল্লাহ যদি কিছু করে তাহলে বন্ধ হবে।
হারুন উর রশিদ, ০৩ মার্চ, ২০১৯
এমন হবে, তা আগেই অনুমান করা গেছে,কারণ যা ইচ্ছে হচ্ছে,তাই করছে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের আমলাগণ,
হারুন উর রশিদ, ০৩ মার্চ, ২০১৯
তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করা গেল !!!
kazimdfaruque, ০৩ মার্চ, ২০১৯
I culdn't without giving Thank.
আমজাদ, ০৩ মার্চ, ২০১৯
অতিরিক্ত 4% কর্তনে শিক্ষকগন কোন সুবিধা পাবেন না ৷অথচ সরকাৱি চাকুরেরা বিনা সুবিধায় এক টাকাও কর্তন করতে দেয় না ৷বে দৱকারি মাস্টর বলে কথা৷বলার কেউ নেই, দেখার কেউ নেই ৷
shafi Mahmod, ০৩ মার্চ, ২০১৯
শিক্ষকতা পেশাই বাতিল করা হোক।
মোহাম্মাদ আবু তাহের, ০৩ মার্চ, ২০১৯
thanks
মোঃ সাইফুল আরিফ, ০৩ মার্চ, ২০১৯
তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করা গেল !!!
al mamun reza, ০২ মার্চ, ২০১৯
next target high school
মোঃ ‌আজাদ ‌সরকার, ০২ মার্চ, ২০১৯
এমন হবে, তা আগেই অনুমান করা গেছে,কারণ যা ইচ্ছে হচ্ছে,তাই করছে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের আমলাগণ,,,,,,,,,
Md. Towhidul Islam, ০২ মার্চ, ২০১৯
৬% থেকে ১০% তো ? আল্লাহই চালিয়ে দিবেন । তবে এ কর্তনের পরিকল্পকগনও নিশ্চয়ই কোনো না কোনো শিক্ষকের ছাত্র ছিলেন । একজন ছাত্র যদি শিক্ষকের পেটে এভাবে আঘাত দিতে চায়, তবে সেটা ছাত্রের নয়, বরং শিক্ষকেরই ব্যর্থতা । শিক্ষকগন তাদের এ সকল ছাত্রকে দেশের শীর্ষ পর্যায়ে স্থাপন করতে পারলেও তাদেরকে আদর্শ মানুষ বানাতে পারেননি । তাই আজ তাদের এ করুন অবস্থা । সুতরাং নিজেদের কৃতকর্মের ফল ভোগ করতেই হবে বৈকি !
মো. আব্দুর রহমান বিশ্বাস, সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ধুলিয়ানী, চৌগাছা, যশোর।, ০২ মার্চ, ২০১৯
হু হা হুয়া, এবার আমাদের পালা , আহা কি আনন্দ আকাশে বাতাসে