মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, ০৩ এপ্রিল, ২০১৯
সব জেলায় একই অবস্থা, শুধু টাকা দিলেই বদলি হওয়া যায়
Rupok Raha, ০৩ এপ্রিল, ২০১৯
মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অবস্থা আরও শোচনী!!! উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এতোটা ভালো মানুষ যে উনি অন্তঃসত্ত্বা টিচারের নাম পিটিআই তালিকাতে দিয়ে তাদের নাম কাটানোর জন্য একবার টাকা নেয় আবার নতুন যাদের নাম তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেন তাদের কাছ থেকেও টাকা নেন।আর Transfer এর সময় হলে তো ওনার কাছে উৎসবের সময় হয়।এমন কোন শিক্ষক নাই যার কাছ থেকে উনি টাকা না নিয়ে ফাইলে স্বাক্ষর করেছেন।আবার উনি দীর্ঘদিন ধরে একই থানায় কর্মরত আছেন।উনি সবাইকে বলেন যে ওনার বাড়ি গোপালগঞ্জে।ওনাকে কেউ কিচ্ছু করতে পারবে না।