মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

এস এম শরীফুজ্জামান, ০৮ মে, ২০১৯
ফল নিরীক্ষা করে ফল পাওয়া যাবে কিন্তু কার জীবন কি ফিরিয়ে দিতে পারবে?শিক্ষকের ভূল ,কর্ম কর্তাদেরহিসাবের ভূলের মাসুল কে দিবে?আমার মেয়েকে কি ভাবে একটি বিষয়ে 79 কি ভাবে দেওয়া হলো?তা ছাড়া বিষয় ভিত্তিক শিক্ষকদের পেপার না দেওয়ায় ছাত্র/ছাত্রীদের ফলাফল বিপর্যায়ের বিচার কি হবে?কর্ম কর্তাদের অবহেলায় ছাত্র/ছাত্রীদের জীবন নষ্ট হচ্ছে।আমার মতে পেপার পুনঃ নিরীক্ষা করা উচিত যেটা পুর্বে ছিল ।এতে সঠিক ফল পাওয়া যেত।
Ekramul Hoque, ০৮ মে, ২০১৯
ফল পুনর্নিরীক্ষার আবেদন করার নামে হাজার হাজার টাকা আয়ের উৎস করার নামে হাজার হাজার টাকা আয়ের উৎস I করা ভুল করে কেন তাদের আইনের কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয় না , এই ভুলে অনেকের স্বপ্ন ভেঙে যায় ভুল ফলাফল এর কারণে ছাত্ররা আত্মহত্যে পথ বেঁচে নেয় I এবং হাজার হাজার ফলাফল পরিবর্তন হয় I এইখানে ভুল কার করছে এটা কেনইবা হচ্ছে আমি একজন সাধারণ ছাত্র হিসেবে বিচার চাই I
মাষ্টার হেলাল উদ্দীন, ০৭ মে, ২০১৯
রমজানের ছুটিতে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্ত শিক্ষক দ্বারা কোচিং চলছে ফেণী সদরে এটা কি অনুমতি প্রাপ্ত।ছাএছাএীদের কাছ থেকেই ১ মাসে প্রতি বছর ৩০০ থেকে ৮০০ টাকা আদায় করেন প্রতিষ্ঠান প্রধান।আমরা অভিভাবক রা এটা থেকে মুক্তি চাই প্লিজ আপনারা লিখুন। এছাড়াও প্রতি বছর জে এস সি পরীক্ষা ফি ৫০০ টাকা নবম শ্রেনীর রেজিস্ট্রেশন ফি ৫০০ টাকা ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা ফি ২০০ টাকা করে।এভাবেই ধর্মপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার প্রধান টাকা আদায় করে অর্পকম চালিয়ে যাচ্ছে নেই কোন তদারকি কথা বলার জন্য কেউ মুখ খোলে না। আর কতদিন চলবে বলুন প্রিয় দৈনিক শিক্ষা ডটকম। প্লিজ আপনারা লিখুন ও উপর মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করুন না হলে জুলুম চলতে থাকবে।