মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Rabindra Nath Tarofder, ২১ মে, ২০১৯
আমরা অতিরিক্ত4%কর্তন নিয়ে যতই লেখালেখি করি না কেন। কোন কাজ হবে না। ঈদের ছুটির পর কঠোর আন্দোলনের ডাক দিতে হবে।অতিরিক্ত 4%কর্তন সম্পর্কে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নজরে আনতে হবে।
MD. REAZ UDDIN, ১৯ মে, ২০১৯
আমার মনে হয় শিক্ষক নেতারা কিছুই করতে পারবেনা। কারণ এক সচিব=সব শিক্ষক।জয় এক সচিবরই।
Palash Adhikary, ১৯ মে, ২০১৯
Before the Eid, demand for full bonuses
Gobinda Mazumder, ১৮ মে, ২০১৯
আন্দোলন চালিয়ে যান। শিক্ষক সমাজ আপনাদের সাথে আছি।
মোঃ ‌আজাদ ‌সরকার, ১৭ মে, ২০১৯
জাতীয় ‌নির্বাচনের ‌আগে ‌৪% ‌কর্তনের ‌আদেশ ‌প্রতাহার ‌করে,‌নির্বাচনের ‌পরেই ‌‌কোন ‌আলোচনা ‌‌না ‌করে ,‌৪% ‌কর্তন ‌করা,‌ শিক্ষকদের ‌সঙ্গে ‌এক ধরনের ‌প্রতারনা ‌করা ‌হয়েছে। ‌শিক্ষা ‌সচিব ‌‌মহোদয় ‌নিজেই ‌নিজের ‌সম্মান ‌খাটো ‌করেছেন। ‌‌উনি ‌যে ‌মন্ত্রণালয়ের ‌সর্বচ্চো ‌পদে ‌থেকে,‌সেই ‌মন্ত্রণালয়ের ‌সংখ্যাগরিষ্ঠদের ‌সাথে ‌প্রতারণার ‌আশ্রয় ‌নেয়,‌তার ‌সেই ‌মন্ত্রণালয়ে ‌থাকার ‌অধিকার ‌নেই।‌বাংলাদেশের ‌শিক্ষা ‌ব্যবস্থায় ৯৮% ‌দায়িত্ব ‌পালন ‌করে ‌এম ‌পি ও ‌ভুক্ত ‌শিক্ষকগণ ,‌তাদের ‌সঙ্গে ‌প্রতারনা ‌করার ‌অর্থ ‌দাড়ায় ‌সমগ্র ‌শিক্ষা ‌ব্যবস্থার ‌সঙ্গে ‌প্রতারনা ‌করা। ‌‌শিক্ষামন্ত্রণালয়ের ‌আমলাগণের ‌প্রতি ‌বিশ্বাস ‌থাকবে ‌না,‌এম ‌পি ‌ও ‌ভুক্ত ‌শিক্ষকদের।
Md .Sohel Rana, ১৭ মে, ২০১৯
স্যারদের অসখ্য ধন্যবাদ এই দাবির জন্য ৷
Hasan+Anwar, ১৭ মে, ২০১৯
ঈদের পর আন্দোলন করে কি লাভ যদি ঈদের আগে পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা না পাই। ঐ দিকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশের বাহিরে দীর্ঘ দিনের সফরে যাচ্ছেন আল্লাহ চাহেনত ফিরবেন সেই ঈদের পর। তাই উনি দেশে থাকতে যদি জোর দাবী ওনার নেক নজরে অনা যায় তবে হয়ত কাজে লাগতে পারে।