মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

মহঃ আবু কায়েশ, ১১ আগস্ট , ২০১৯
আজ শিক্ষকের মর্যাদা কবিতাও নেই, শিক্ষকের মর্যাদা ও নেই। আজ শাসন নেই, শিক্ষার পরিমান গত মান আছে কিন্তু গুনগত মান নেই। সাধারনত গ্রামের ছেলেদের লেখাপড়ার মান খুবই ভয়াবহ। এভাবে আর ৪/৫ বছর চলতে থাকলে আমার মনে হয় গ্রামের ছাত্রদের লেখাপড়ার মান ভয়াবহ রুপ ধারন করবে। গ্রামের প্রত্যকটি ছাত্রের হাতে টার্স স্কীন মোবাইল। সন্ধ্যা লাগলেই ফেসবুক, ইমো কিংবা নিষিদ্ধ পর্ন নিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত ব্যস্ত থাকে। ক্লাসে এসে নিমাই হয়ত ঘুমায়, না হয় ঝিমায়। একটা পড়াও পারেনা। আমার যতদুর মনে পড়ে দশ বছর আগে ষষ্ট থেকে দশম শ্রেনি পর্যন্ত একটি ছাত্রীও রোল ১০ এর মধ্যে ছিল না। আর আজ একটি ছাত্রও রোল ১০ এর মধ্যে নেই। এটা হলো গ্রামের ছাত্রদের অবস্হা। এভাবে চলতে থাকলে বাংলাদেশ মেধাশুন্য হয়ে পড়বে।
Rafiqul Islam Bony, ১১ আগস্ট , ২০১৯
Nice
কাজী হায়দার হোসাইন, ১০ আগস্ট , ২০১৯
অসাধারণ। অন্যরাও উৎসাহিত হবে গুরুজনেকে শ্রদ্ধা কর। ধন্যবাদ মাননীয় মন্ত্রী।
Ala uddin Al Mamun, ১০ আগস্ট , ২০১৯
Thanks a lot , Teaching is best...
Abul Kalam, ১০ আগস্ট , ২০১৯
জীবনে সফল প্রত্যেকেই শিক্ষাগুরুর আশির্বাদপ্রাপ্ত, এটিই চিরসত্য।
এস.কে.এম, ১০ আগস্ট , ২০১৯
প্রতিটি ছাত্রের বড় হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে তার পিতা-মাতা ও তার শিক্ষক। তাই প্রতিটি ছাত্রের উচিত নিজ পিতা-মাত ও শিক্ষকে সম্মান ও শ্রদ্ধা করা।
সাকলাইন, ০৯ আগস্ট , ২০১৯
শিক্ষকের সম্মাব পৃথিবীতে সব কিছুর ঊর্ধ্বে।