মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

MD.EDRISH ALI, ২৫ আগস্ট , ২০১৯
শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে আইন হচ্ছে ভালো|কিন্তু শিক্ষকগন যখন নিজের প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের দ্বারা অপমানিত হন|তখন তাদের সুসংগঠিত হুমকির নিকট অনেক শিক্ষক জিম্মি হয়ে পড়েন|তখন উক্ত শিক্ষকগনকে কে উদ্ধার করবেন|
Habibur Rahman, ২৫ আগস্ট , ২০১৯
শিক্ষকদের সাথে খারাপ আচরণ করলে কী করা হবে তাও আইনে থাকা উচিত। অনেক সময় দেখা যায় শিক্ষার্থীরা ম্যাডামদের সাথে খুব খারা আচরণ করে।
MD.EDRISH ALI, ২৫ আগস্ট , ২০১৯
শুধু ছাত্রছাত্রীদের ব্যাপারে যে আইনটি করা হয়েছে,তা দিয়ে যথেষ্ঠ হবে না|ছাত্রছাত্রীরা শিক্ষকদের অনেক ক্ষেত্রে বৃদ্ধাঙ্গুল প্রদর্শন করে, সে ব্যাপারে আইন কোথায়?এভাবে চলতে থাকলে অতি আদর পাওয়ার কারণে সব বাদর তৈরি হবে,এ সব দেখবাল করবে কে?
Mohammad ullah siddiqui, ২৫ আগস্ট , ২০১৯
এ বিষয়ে আমার একটি মতামত হচ্ছে ছাত্র/ ছাত্রীদের সাস্তী কোন পর্যায় দওয়া যাবে সে বিষয়ে নীতি নির্ধারণ করে দেওয়া। কেননা তাদের কোন ধরণে সাস্তী না দেওয়ার ব্যাপারে রুল জারি হওয়ায় তারা একেবারে বেপরোয়া হয়ে গেছে।শিক্ষক/ শিক্ষিকাকে কোন ধরনের সম্মানয় করতেছেনা,যথাযথ প্রতিষ্ঠানে উপস্হিত হচ্ছেনা,এসম্বলিতে উপস্হিত হচ্ছেনা, প্রাতিষ্ঠানিক ইউনিফরম পরিধান করছেনা, প্রতিষ্ঠানে উপস্হিত হলে ইচ্ছে মাফিক পলায়ন করছে, ইত্যাদি অনিয়মে চলা ফেরা করছে। শিক্ষকেরা আঘাত করা তো দূরের কথা এ দূষের কারণে একটু বকাবকি করলেও ছাত্র/ ছাত্রীকে লান্চনা করা হয়েছে বলে আপত্তি দিচ্ছে।এ ভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে শিক্ষার মান বহু নিম্নে চলে যাবে।কেননা তাতে করে শিক্ষকের মন মানষিতকা বিষন্নতায় পরিণত হলে ঐ ছাত্র/ ছাত্রীদের প্রতি জ্ঞান বিতরণে শিক্ষকের অনিহা চলে আসবেই। তাই বলছি এ বিষয়েও নীতি নির্ধারণ করে দিলে ভাল হয়।