মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

md. Alauddin dewan, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
I Ntrca এর কর্মকর্তাগণের প্রতি বিশেষ অনুরোধ তারা যেন Alim madrasa;r অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষেত্রে কাম্য অভিজ্ঞতা অর্জনকারী প্রভাষকবৃন্দকে তাদের যোগ্যতা প্রমাণের জন্য সুযোগ দেন। বর্তমান আইনে একজন প্রভাষকের অভিজ্ঞতা ত্রিশ বছর হলেও তিনি অধ্যক্ষ বা উপাধ্যক্ষ পদে আবেদন করতে পারেন না কারন তিনি প্রভাষক। কিন্তু ঐ প্রভাষকের ছাত্র অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে ৫ঃ২ এ তে সহকারী অধ্যাপক হয়েছেন এবং অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ পদের জন্য উপযুক্ত বলে বর্তমান আইনে বলা হয়েছে। এই কালো আইন থেকে অভিজ্ঞ প্রভাষকদের মুক্তির ব্যবস্থা করতে ntrca কর্মকর্তাগণকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি। Apv ৫:২ অনুপাত প্রথা বাতিল করে প্রয়োজনে ৮/১০ বছর পর পদোন্নতির পরীক্ষা নিয়ে মেধার ভিত্তিতে কেন্দ্রীয়ভাবে বিষয় ভিত্তিক সকলকে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির ব্যবস্থাসহ সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদ সৃষ্টি করতে হবে। ২। টাইম স্কেলের ক্ষেত্রে ৮ বছর পর গ্রেড-৭ এবং ১২/১৬ বছর পর গ্রেড-৬ দিয়ে সবাইকে সহকারী অধ্যাপক হবার সুযোগ দিতে হবে। কেননা একজনB শুধু ৫:২ অনুপাত প্রথার কারণে সহকারী অধ্যাপক পরে উপাধ্যক্ষ এবং সর্বোপরি অধ্যক্ষও হতে পারবে, এটি চরম অন্যায় এবং সংবিধান বিরোধীও বটে।
মোঃ শাহিদুল ইসলাম, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
বদলী চালু করলে- ১। দুর্ণিতি দূর হবে, ২। শিক্ষকদের মধ্যে গতিশীলতা আসবে ৩।শিক্ষকরা স্থানীয় পলিটিক্স এ জড়াতে পারবে না ৪। শাস্তিমূলক বদলি করা যাবে। ৫। এ সি আর চালু করা সহজ হবে।৬। শিক্ষকদের প্রেইভেট - কোচিং বন্ধ হবে।৭। শিক্ষার মান বাড়বে।৮। ম্যানেজিং কমিটির নির্যাতন কমবে । ৯। ভালো শিক্ষকের কদর বাড়বে ।১০। শিক্ষকতায় ভালো শিক্ষক আসবে। ১১। ভালো- মন্দ শিক্ষক বদলির মাধ্যমে শিক্ষার মান সম্ন্বয় কাওরা সম্ভব হবে। ১২। দেশের সব প্রতিষ্ঠানের মান প্রায় সমান হবে।
Rabindra Nath Tarofder, ০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
বে-সরকারি শিক্ষকদের সাথে আর কত কাল জুলুমবাজ করবে?
MD. AKRAMUL HAQUE, ০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
মানববন্ধন সফল হোক আর দ্রুত বদলী ব্যবস্থা চারু হোক।