মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

MD. MOHIBBULLAH AKON, ২১ জানুয়ারি, ২০২০
২০১৮ নীতিমালা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ চাহিদা দিলে অনেক নিবন্ধনধারী বেকার থেকে মুক্তি পাবেন । তৃতীয় চক্র কার্যক্রম চালু করায় এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ ।
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ১৭ জানুয়ারি, ২০২০
শুধু কি কমেন্ট করাই শেষ ? নাকি মন্তব্য অনুযায়ী কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয় ?
Md.shajahan, ১৭ জানুয়ারি, ২০২০
প্রতিষ্ঠান প্রধান যেন শূন্যপদ দিতে বাধ্য থাকেন।
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ১৬ জানুয়ারি, ২০২০
ই-রিকুইজেশনের ওয়েব পেজ ওপেন হলে 3/4 েনং লাইনে দেখা যায় লেখা আছে সাবমিশন ফি 200/- টাকা । টাকা পেমেন্ট করার কথা কোন বিজ্ঞপ্তিতে নাই এবং পেমেন্ট করতে হলে কোথায় কিভাবে পেমেন্ট করতে হবে ? তার ও নির্শেদনা নাই। সংশ্লি্ষ্ট কর্তৃৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ১৬ জানুয়ারি, ২০২০
ই-রিকুইজিশনের চাহিদা ইনপুটের ব্যপারে বিস্তারিত জানতে চাই। শুধু আগের শূন্য পদে চাহিদা দিব না-কি 2018 সালের নীতিমালা অনুযায়ী অধিদপ্তরের জারি করা নতুন পদ সহ চাহিদা দিব ? এনটিআরসিএ এর সফটওয়্যারে 2018 সালেরে নতুন পদ গুলো সহ চাহিদা দিয়ে দেখা যায় সফটওয়্যার চাহিদা অসঙ্গত বলে সেভ নিচ্ছে না । এখন কি করা ?
Md.saifuddin khan, ১৫ জানুয়ারি, ২০২০
e- requisition এর GB/ SMC/ MMC resulation বলতে কি বোঝানো হয়েছে জানতে চাই।
md. Alauddin dewan, ১৫ জানুয়ারি, ২০২০
Ntrca এর কর্মকর্তাগণের প্রতি বিশেষ অনুরোধ তারা যেন Avwjg I dvwRj gv`&&ivmvq অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষেত্রে কাম্য অভিজ্ঞতা অর্জনকারী প্রভাষকবৃন্দকে তাদের যোগ্যতা প্রমাণের জন্য সুযোগ দেন। বর্তমান আইনে একজন প্রভাষকের অভিজ্ঞতা ত্রিশ বছর হলেও তিনি অধ্যক্ষ বা উপাধ্যক্ষ পদে আবেদন করতে পারেন না কারন তিনি প্রভাষক। কিন্তু ঐ প্রভাষকের ছাত্র অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে ৫ঃ২ এ তে সহকারী অধ্যাপক হয়েছেন এবং অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ পদের জন্য উপযুক্ত বলে বর্তমান আইনে বলা হয়েছে। এই কালো আইন থেকে অভিজ্ঞ প্রভাষকদের মুক্তির ব্যবস্থা করতে ntrca কর্মকর্তাগণকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি। Apv ৫:২ অনুপাত প্রথা বাতিল করে Avwjg I dvwRj gv`&&ivmvi cÖfvlK MY‡K প্রয়োজনে ৮/১০ বছর পর পদোন্নতির পরীক্ষা নিয়ে মেধার ভিত্তিতে কেন্দ্রীয়ভাবে বিষয় ভিত্তিক সকলকে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির ব্যবস্থাসহ সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদ সৃষ্টি করতে হবে। ২। টাইম স্কেলের ক্ষেত্রে ৮ বছর পর গ্রেড-৭ এবং ১২/১৬ বছর পর গ্রেড-৬ দিয়ে সবাইকে সহকারী অধ্যাপক হবার সুযোগ দিতে হবে। কেননা একজনB শুধু ৫:২ অনুপাত প্রথার কারণে সহকারী অধ্যাপক পরে উপাধ্যক্ষ এবং সর্বোপরি অধ্যক্ষও হতে পারবে, Avi evKx nvRvi nvRvi cÖfvlK MY mviv Rxeb GK c‡` †_‡KB g„Zy¨ eiY Ki‡Z n‡e| এটি চরম অন্যায় এবং সংবিধান বিরোধীও বটে।
md. Alauddin dewan, ১৫ জানুয়ারি, ২০২০
Ntrca এর কর্মকর্তাগণের প্রতি বিশেষ অনুরোধ তারা যেন Avwjg I dvwRj gv`&&ivmvq অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষেত্রে কাম্য অভিজ্ঞতা অর্জনকারী প্রভাষকবৃন্দকে তাদের যোগ্যতা প্রমাণের জন্য সুযোগ দেন। বর্তমান আইনে একজন প্রভাষকের অভিজ্ঞতা ত্রিশ বছর হলেও তিনি অধ্যক্ষ বা উপাধ্যক্ষ পদে আবেদন করতে পারেন না কারন তিনি প্রভাষক। কিন্তু ঐ প্রভাষকের ছাত্র অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে ৫ঃ২ এ তে সহকারী অধ্যাপক হয়েছেন এবং অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ পদের জন্য উপযুক্ত বলে বর্তমান আইনে বলা হয়েছে। এই কালো আইন থেকে অভিজ্ঞ প্রভাষকদের মুক্তির ব্যবস্থা করতে ntrca কর্মকর্তাগণকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি। Apv ৫:২ অনুপাত প্রথা বাতিল করে Avwjg I dvwRj gv`&&ivmvi cÖfvlK MY‡K প্রয়োজনে ৮/১০ বছর পর পদোন্নতির পরীক্ষা নিয়ে মেধার ভিত্তিতে কেন্দ্রীয়ভাবে বিষয় ভিত্তিক সকলকে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির ব্যবস্থাসহ সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদ সৃষ্টি করতে হবে। ২। টাইম স্কেলের ক্ষেত্রে ৮ বছর পর গ্রেড-৭ এবং ১২/১৬ বছর পর গ্রেড-৬ দিয়ে সবাইকে সহকারী অধ্যাপক হবার সুযোগ দিতে হবে। কেননা একজনB শুধু ৫:২ অনুপাত প্রথার কারণে সহকারী অধ্যাপক পরে উপাধ্যক্ষ এবং সর্বোপরি অধ্যক্ষও হতে পারবে, Avi evKx nvRvi nvRvi cÖfvlK MY mviv Rxeb GK c‡` †_‡KB g„Zy¨ eiY Ki‡Z n‡e| এটি চরম অন্যায় এবং সংবিধান বিরোধীও বটে।
Mozahidul alam, ১৪ জানুয়ারি, ২০২০
ভাইয়া,অাশা করি ভাল আছেন।অামার প্রশ্ন হলো- প্রতিষ্ঠান প্রধানগন যেন শূন্যপদ দিতে বাধ্য হয় সেক্ষেত্রে Ntrca এর ভূমিকা আছে কিনা?
মু.মাহফুজার রহমান, ১৪ জানুয়ারি, ২০২০
২০১৮ নীতিমালা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ চাহিদা দিলে অনেক নিবন্ধনধারী বেকার থেকে মুক্তি পাবেন । তৃতীয় চক্র কার্যক্রম চালু করায় এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ ।