নুসরাত হত্যা : প্রথম দুই সাক্ষীকে ফের জেরা - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা


নুসরাত হত্যা : প্রথম দুই সাক্ষীকে ফের জেরা

ফেনী প্রতিনিধি |

ফেনীর আলোচিত মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় রোববার প্রথম ও দ্বিতীয় সাক্ষী নিশাত সুলতানা ও নাসরিন সুলতানা ফুর্তিকে আবারও জেরা করেছেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। ৮৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হওয়ার পর তাদের ফের জেরা করা হলো। এ ছাড়া আসামিপক্ষ মামলার তদন্তকারী সংস্থা পুলিশের পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদারকেও সাক্ষী হিসেবে আদালতে হাজির ও জেরার আবেদন করলে আদালত তা খারিজ করে দেন।

জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি হাফেজ আহাম্মদ বলেন, গত ২ সেপ্টেম্বর পিবিআই প্রধান এবং পুলিশের উপমহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদারকে আদালতে হাজির করতে একটি পিটিশন আদালতে জমা দেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। গতকাল দুপুরে এ বিষয়ে শুনানির পর আদালত তা খারিজ করে দেন।

এর আগে মামলার প্রথম ও দ্বিতীয় সাক্ষী নুসরাতের সহপাঠী নিশাত ও ফুর্তিকে গত ৩০ জুন ও ১ জুলাই দীর্ঘ জেরা করেছিলেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। এরপর ৮৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হয়েছে। কিন্তু আবারও প্রথম দুই সাক্ষীকে জেরা করার জন্য গতকাল আবেদন করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। শুনানি শেষে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ তা অনুমোদন করেন। ফলে গতকাল রোববার তাদের ফের জেরা করা হয়।

পিপি হাফেজ আহাম্মদ জানান, আসামিপক্ষের আইনজীবীরা এবার মামলার বাদী নিহত নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ফেনী পিবিআই পরিদর্শক শাহ আলমকে আবারও জেরা করতে চান বলে আদালতে আবেদন জানিয়েছেন। বিচারক আবেদন মঞ্জুর করে এ দুজনকে হাজির হতে বলেছেন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা দু’একমাস পেছাতে পারে - dainik shiksha এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা দু’একমাস পেছাতে পারে প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত লটারির মাধ্যমে ভর্তি : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত লটারির মাধ্যমে ভর্তি : শিক্ষামন্ত্রী এসএসসির ৭৫ শতাংশ ও জেএসসির ২৫ শতাংশে এইচএসসির ফল - dainik shiksha এসএসসির ৭৫ শতাংশ ও জেএসসির ২৫ শতাংশে এইচএসসির ফল অষ্টম শ্রেণি উত্তীর্ণদের সার্টিফিকেট দেবে শিক্ষাবোর্ডগুলোই - dainik shiksha অষ্টম শ্রেণি উত্তীর্ণদের সার্টিফিকেট দেবে শিক্ষাবোর্ডগুলোই অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়নে শিক্ষকদের জন্য নতুন নির্দেশনা - dainik shiksha অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়নে শিক্ষকদের জন্য নতুন নির্দেশনা মাদরাসায় জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের পদ - dainik shiksha মাদরাসায় জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের পদ এমপিওর অর্ধেক টাকা পাওয়ার শর্তে জাল সনদধারীকে নিয়োগ দিয়েছিলেন অধ্যক্ষ - dainik shiksha এমপিওর অর্ধেক টাকা পাওয়ার শর্তে জাল সনদধারীকে নিয়োগ দিয়েছিলেন অধ্যক্ষ please click here to view dainikshiksha website