বিশেষ মঞ্জুরির টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আবেদন ১০ মার্চের মধ্যে

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক |

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক : মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের মাঝে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের রাজস্ব বাজেটের বিশেষ মঞ্জুরির অনুদানের টাকা বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ টাকা পেতে আবেদন গ্রহণ চলছে। আগামী ১০ মার্চের মধ্যে এ অনুদান পেতে আবেদন করতে পারবেন মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষক-শিক্ষাথীরা। এ অনুদান পেতে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এ আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে।

জানা গেছে,  ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরের মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের মাঝে বিশেষ মঞ্জুরি টাকা বিতরণে ইতোমধ্যে নীতিমালা জারি করা হয়েছে। এ নীতিমালা অনুযায়ী শিক্ষক শিক্ষার্থীরা বিশেষ মঞ্জুরির টাকা পেতে আবেদন করতে হবে। 

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ জানিয়েছেম অনুদানের টাকা পেতে বিভিন্ন মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী বা শিক্ষার্থীদের ১০ মার্চের মধ্যে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ওয়েবসাইট থেকে (www.tmed.gov.bd) অনলাইনে আবেদন করতে হবে। ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের আর্থিক অনুদানের আবেদন ফরম’ বাটনে ক্লিক করে অনলাইনে আবেদন করতে বলা হয়েছে। হার্ড কপিতে আবেদন গ্রহণ করা হবে না বলেও জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, সরকারি বেসরকারি মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা, দৈব দুর্ঘটনা এবং চিকিৎসার খরচের জন্য বিশেষ মঞ্জুরির অনুদান প্রাপ্তির আবেদন করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী, অসহায়, অস্বচ্ছল ও মেধাবী, অনাগ্রসর সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা অগ্রধিকার পাবেন।

এছাড়া দেশের সব স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সংযুক্ত বা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা, সব স্বীকৃতিপ্রাপ্ত বা এমপিওভুক্ত বেসরকারি কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মেরামত ও সংস্কার, আসবাব পত্র তৈরি, খেলাধুলার সরঞ্জাম ক্রয়, পাঠাগার উন্নয়ন ও প্রতিষ্ঠানকে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীবান্ধব করার জন্য বিশেষ মঞ্জুরির আবেদন করা যাবে। তবে বাছাইয়ের ক্ষেত্রে অনাগ্রসর এলাকার অস্বচ্ছল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অগ্রাধিকার পাবে।

ইবতেদায়ি মাদরাসা, স্বীকৃতিপ্রাপ্ত বা এমপিওভুক্ত বেসরকারি কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী তাদের জটিল ও ব্যয়বহুল রোগ বা দৈব দুর্ঘটনার জন্য মঞ্জুরির আবেদন করতে পারবেন।

কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ জানিয়েছে, বেসরকারি কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মাদরাসা ও শিক্ষক-কর্মচারী বা শিক্ষার্থীদের অনুদানের আবেদনের ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট কারণসহ প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং শিক্ষক-কর্মচারীদের আবেদনের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠান প্রধানের প্রত্যায়িত প্রমাণক সংযুক্ত করতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অনুদান প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব নম্বর আর শিক্ষক-কর্মচারীদের অনুদান মোবাইল ব্যাংকিং সেবা নগদের মাধ্যমে পাঠানো হবে। শিক্ষক-কর্মচারীদের জাতীয় পরিচয় পত্র ও শিক্ষার্থীদের জন্মসনদ এবং বাবা-মায়ের জাতীয় পরিচয় পত্র সংযুক্ত করতে হবে। গতবছর যারা এ অনুদান পেয়েছেন এবছর তারা এ অনুদান পাওয়ার আবেদন করতে পারবেন না।  শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন না থাকলে অনুদান দেয়া হবে না। আবেদনকারীরর মোবাইল নম্বরে অবশ্যই নগদ অ্যাকাউন্ট খোলা থাকতে হবে। 


শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।
দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল   SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।


পাঠকের মন্তব্য দেখুন
কওমি মাদরাসা নিয়ে সিদ্দিকুর রহমান খানের অনবদ্য গ্রন্থ - dainik shiksha কওমি মাদরাসা নিয়ে সিদ্দিকুর রহমান খানের অনবদ্য গ্রন্থ পরীক্ষা শুরুর আগেই উত্তরপত্রের ছড়াছড়ি, দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ - dainik shiksha পরীক্ষা শুরুর আগেই উত্তরপত্রের ছড়াছড়ি, দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে ১৫ শতাংশ ট্যাক্স দিতেই হবে: আপিল বিভাগ - dainik shiksha বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে ১৫ শতাংশ ট্যাক্স দিতেই হবে: আপিল বিভাগ বাবার মরদেহ ঘরে রেখে পরীক্ষার কেন্দ্রে মেমেসিং মারমা - dainik shiksha বাবার মরদেহ ঘরে রেখে পরীক্ষার কেন্দ্রে মেমেসিং মারমা সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ - dainik shiksha সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ কেন্দ্র সচিব ও হল সুপারসহ চারজনকে অব্যাহতি - dainik shiksha কেন্দ্র সচিব ও হল সুপারসহ চারজনকে অব্যাহতি দৈনিক শিক্ষাডটকমের ফেসবুক পেজ দেখুন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষাডটকমের ফেসবুক পেজ দেখুন please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0024709701538086