শিক্ষক নিয়োগে রেকর্ড ৮৪ লাখ আবেদন - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা


শিক্ষক নিয়োগে রেকর্ড ৮৪ লাখ আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক |

বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদারাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এন্ট্রি লেভেলের ৫৪ হাজারের বেশি পদে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে আবেদন গ্রহণ গতকাল শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) রাত ১২টায় শেষ হয়েছে। শেষ সময় পর্যন্ত এসব পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে সম্পূর্ণ আবেদন পড়েছে ৮৪ লাখ ১১ হাজারের বেশি। সে হিসেবে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে প্রতিটি পদে আবেদন পড়েছে ১৫৪টি। প্রতিজন প্রার্থী একাধিক আবেদন করার সুযোগ পেয়েছেন। আর মে মাসেই এ ৫৪ হাজার শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ প্রক্রিয়া শেষ করার পরিকল্পনা করেছে এনটিআরসিএ। বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের ৮৪ লাখ আবেদন আগে কোন নিয়োগ প্রক্রিয়ায় জমা পড়েনি। এটা একটা রেকর্ড বলা যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জানতে চাইলে শনিবার (১ মে) দুপুর ১২টার দিকে এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, বিপুল সংখ্যক আবেদন জমা পড়েছে। শেষ সময় পর্যন্ত ৮৪ লাখ ১১ হাজার ৩৯৮টি সম্পূর্ণ আবেদন জমা পড়েছে। অর্থাৎ এসব প্রার্থীরা আবেদন করে ফি জমা দিয়েছেন। আর মোট আবেদন পড়েছে ৯৯ লাখ ৬৩ হাজার ৯২টি। বাকিরা এখনো আবেদন ফিয়ের টাকা জমা দেয়নি। তবে, ৩ মে রাত ১২টা পর্যন্ত প্রার্থীরা আবেদন ফি জমা দিতে পারবেন। সে হিসেবে সম্পূর্ণ আবেদন সংখ্যা কিছুটা বাড়বে।

চেয়ারম্যান আরও বলেন, পরিকল্পনা অনুসারে আমাদের নিয়োগ সুপারিশ প্রক্রিয়া করতে ২৫-২৬ দিনের মত সময় লাগবে। এসময়ের মধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া করে প্রার্থীদের শিক্ষক শূন্যপদগুলোতে নিয়োগের সুপারিশ করা হবে। আমরা দ্রুততম সময়ের মধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া শেষ করতে চাই। আশা করছি, মে মাসেই প্রার্থীদের নিয়োগ সুপারিশ করতে পারবো। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে কাজ করছে এনটিআরসিএ। 

এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, আমরা ধারণা করেছিলাম ৮০ লাখ আবেদন পড়বে। কিন্তু আবেদন সংখ্যা ধারণাকেও ছাড়িয়ে গেছে। ৮৪ লাখ ১১ হাজার প্রার্থী আবেদন করে ফি জমা দিয়েছেন। যা রেকর্ড।

আবেদন সংখ্যা কেন বেশি জানতে চাইলে কর্মকর্তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১২ জুন এমপিও নীতিমালা জারির আগে যারা সনদ অর্জন করা প্রার্থীরা যাদের বয়স ৩৫ এর বেশি হয়ে গেছে তারাও আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নিবন্ধন সনদধারী ও ইনডেক্সধারী শিক্ষকরাও নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পেরেছেন। তাই এতো আবেদন জমা পড়েছে।  

জানা গেছে, প্রার্থীরা গত ৪ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারছেন। ৩০ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। আর ৩ মে পর্যন্ত আবেদন ফিয়ের টাকা জমা দিতে পারবেন প্রার্থীরা।

তৃতীয় দফায় শিক্ষক নিয়োগে ৫৪ হাজার ৩০৪টি পদের মধ্যে ৪৮ হাজার ১৯৯ টি এমপিওভুক্ত শূন্যপদ। ননএমপিও পদ আছ ৬ হাজার ১০৫ টি। এগুলোর মধ্যে ২ হাজার ২০৭ টি এমপিও পদে রিট মামলায় অংশগ্রহণ করা প্রার্থী আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।


পাঠকের মন্তব্য দেখুন
কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে - dainik shiksha দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী - dainik shiksha করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা - dainik shiksha মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ - dainik shiksha ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে - dainik shiksha এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে - dainik shiksha শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ - dainik shiksha ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ please click here to view dainikshiksha website