সরকারিকরণবিরোধী কর্মকর্তাদের আত্তীকরণের কাজ থেকে বাদ দেয়ার দাবিতে স্মারকলিপি - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা


সরকারিকরণবিরোধী কর্মকর্তাদের আত্তীকরণের কাজ থেকে বাদ দেয়ার দাবিতে স্মারকলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আগামী ২১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আত্তীকরণ ও অ্যাাডহক নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন সরকারিকৃত কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীরা। একইসাথে  সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগের কাজ থেকে সরকারিকরণ বিরোধী, মামলাবাজ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাদের বাদ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। এসব দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্মারকলিপিটি জমা দিয়েছেন বাংলাদেশ সরকরি  কলেজ শিক্ষক পরিষদের (বাসকশিপ) নেতারা। রোববার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের হাতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর দেয়া স্মারকলিপিটি জমা দেন তারা।

স্মারকলিপি জমা দিয়ে শিক্ষকরা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগের কাজ থেকে সরকারিকরণ বিরোধী, প্রতিহিংসাপরায়ণ ও মামলাবাজ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাদের প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছেন তারা। একইসাথে পরিদর্শন প্রতিবেদন অনুযায়ী দ্রুত সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন। 

শিক্ষক নেতারা আরও বলেন, ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি উপজেলায় একটি করে স্কুল-কলেজ সরকারিকরণের ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রীর সেই ঘোষণার পাঁচ বছর অতিবাহিত হলেও এখনো পর্যন্ত একটি কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীদের পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগের কাজ সম্পন্ন হয়নি। ফলে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা সরকারিকরণের সুবিধা পাচ্ছেন না। ইতোমধ্যে এসব প্রতিষ্ঠান থেকে ৩ হাজারের বেশি শিক্ষক-কর্মচারী অবসরে গেছেন কোনো সরকারি সুযোগ সুবিধা ছাড়াই। প্রধানমন্ত্রীর নেয়া স্কুল-কলেজ সরকারিকরণ করার ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে মামলা করে বাধা সৃষ্টি করা শিক্ষা ক্যাডারের কতিপয় চিহ্নিত কর্মকর্তা শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা অধিদপ্তরের গুরুত্বপূর্ণ পদে বসে আত্তীকরণ প্রক্রিয়া আটকে রেখেছে বলেও অভিযোগ করেছেন শিক্ষকরা।

শিক্ষকরা আরও বলেন, এসব কর্মকর্তা বেশিরভাগ শিক্ষকদের নামের পাশে মন্তব্য কলামে অযাচিত নোট দিয়ে আত্তীকরণ ও অ্যাডহক নিয়োগে দেরি করছেন। তাই, সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগের কাজ থেকে সরকারিকরণ বিরোধী, মামলাবাজ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাদের বাদ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

একইসাথে সদ্য সরকারিকৃত কলেজগুলোর পরিদর্শন রিপোর্টের ভিত্তিতে সব শিক্ষক-কর্মচারীদের আগামী ২১ ফেব্রুয়ারির আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের মধ্যেই শিক্ষকদের অ্যাাডহক নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন তারা। দাবি আদায়ে সংগঠনের পক্ষ থেকে আগামী ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশের ৮ বিভাগীয় কমিশনারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে  স্মারকলিপি দেয়া হবে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের মধ্যে ৩০৫ টি কলেজের শিক্ষক কর্মচারীদের পদসৃজন ও অ্যাডহক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন না হলে একই দাবিতে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে বলেও জানান শিক্ষকরা।

স্মারকলিপি জমা দেয়ার সময় বাসকশিপ সভাপতি কে এম দেলোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন মৃধা, শামসুল আলম, মহসিন হোসেন, মেহেদী হাসান, মনিরুল ইসলাম, জি এম মাহমুদ আকতার,আ. মান্নান, আ. ওয়াজেদ বাঙালী, পংকজ কুমার, আফজাল হোসেন, মো রাসেল বিশ্বাস, অর্চনা রানী, ফারক ফকির, এবামুল হক, মস্তফা কামাল পলাশ, সঞ্জয় পালসহ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতারা। এছাড়াও খুলনা বিভাগের ১০ জেলার বিভিন্ন কলেজের শিক্ষক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।


পাঠকের মন্তব্য দেখুন
অবশেষে বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা অনুমোদন - dainik shiksha অবশেষে বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা অনুমোদন প্রাথমিকের ৯ মাসের সিলেবাস প্রকাশ - dainik shiksha প্রাথমিকের ৯ মাসের সিলেবাস প্রকাশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার সূচি প্রকাশ পরীক্ষার দাবিতে তিন দিনের আল্টিমেটাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের - dainik shiksha পরীক্ষার দাবিতে তিন দিনের আল্টিমেটাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে একটি মহল শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করতে চাইছে : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে একটি মহল শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করতে চাইছে : শিক্ষামন্ত্রী ৪৮ হাজার শিক্ষকের টাইম স্কেলের রিটের রায় রোববার - dainik shiksha ৪৮ হাজার শিক্ষকের টাইম স্কেলের রিটের রায় রোববার মেডিকেলের প্রশ্নফাঁসের গুজব ছড়ালে আইনি ব্যবস্থা, অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা - dainik shiksha মেডিকেলের প্রশ্নফাঁসের গুজব ছড়ালে আইনি ব্যবস্থা, অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রধান শিক্ষকের করা মামলায় সুপার গ্রেফতার - dainik shiksha ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রধান শিক্ষকের করা মামলায় সুপার গ্রেফতার করোনা টিকা নিবন্ধন অ্যাপসে যুক্ত হলো শিক্ষক ক্যাটাগরি - dainik shiksha করোনা টিকা নিবন্ধন অ্যাপসে যুক্ত হলো শিক্ষক ক্যাটাগরি please click here to view dainikshiksha website