সরকাররের ভাবমূর্তি নষ্ট করে ফেসবুকে পোস্ট দিলে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা


সরকাররের ভাবমূর্তি নষ্ট করে ফেসবুকে পোস্ট দিলে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

কোন শিক্ষক-কর্মচারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকার বা রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি নষ্ট হয় এমন কোন পোস্ট, ছবি অডিও বা ভিডিও আপলোড, কমেন্ট, লাইক, শেয়ার করলে তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। অভিযুক্ত শিক্ষক কর্মচারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে তা অধিদপ্তরকে জানাতে বলা হয়েছে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের। শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করে সব জেলা-উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা, আঞ্চলিক উপপরিচালক ও সব সরকারি ও বেসরকারি স্কুল কলেজের প্রধানদের এ বিষয়ে জানানো হয়েছে। 

অধিদপ্তর থেকে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোন শিক্ষক কর্মচারী মন্ত্রী পরিষদ কর্তৃক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার নির্দেশিকা এবং চাকরির বিধানাবলী ব্যত্যয় ঘটায় তাহলে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে শিক্ষা অধিদপ্তরকে অবহিত করতে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের বলা হল।

এদিকে গত ৭মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে সরকারি প্রতিষ্ঠানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার নির্দেশিকা-২০১৯ পরিপত্র আকারে জারি করা হয়। এ নির্দেশিকায় বলা হয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকার বা রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি নষ্ট হয় এমন কোন পোস্ট, ছবি অডিও বা ভিডিও আপলোড, কমেন্ট, লাইক, শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে। 

জাতীয় ঐক্য ও চেতনার পরিপন্থী কোন রকম তথা উপাত্ত প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকতে হবে। কোন সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুতিতে আঘাত লাগতে পারে এমন বা ধর্মনিরপেক্ষতার নীতি পরিপন্থী কোন তথ্য প্রকাশ করা যাবে না। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট বা আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটতে পারে, এমন কোন পোস্ট, ছবি, অডিও বা ভিডিও ক্লিপ আপলোড, কমেন্ট, লাইক, শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।  

জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা অন্য কোন সার্ভিস বা পেশাকে হেয় করে এমন কোন পোস্ট দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। জাতীয় ঐক্য ও চেতনার পরিপন্থী কোন রকম তথা উপাত্ত প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকতে হবে।  জনমনে অসন্তোষ বা অপ্রীতিকর মনোভাব সৃষ্টি করতে পারে এমন কোন বিষয়ে লেখা অডিও বা ভিডিও প্রকাশ বা শেয়ার করা এবং ভিত্তি হীন, অসত্য বা অশ্লীল তথ্য প্রচার থেকে বিরত থাকতে হবে। লিঙ্গ বৈষম্য ও এ সংক্রান্ত বিতর্কমূলক কোন তথ্য উপাত্ত প্রকাশ করা যাবে না। 

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠান প্রধানরা কোন কর্মকর্তা কর্মচারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের বিধির ব্যত্যয় হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেবেন। প্রয়োজন হলে তদন্ত করে আঞ্চলিক অফিসের মাধ্যমে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরকে জানাবেন। 

সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে কন্টেন্ট ও ফ্রেন্ড সিলেকশনে সবাইকে সতর্কতা অবলম্বন ও অপ্রয়োজনীয় ট্যাগ বা রেফারেন্সবা শেয়ার করা পরিহার করতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার বা নিজ অ্যাকাউন্ট ক্ষতিকর কন্টেন্টের জন্য কর্মচারী ব্যাক্তিগতভাবে দায়ী হবেন ও প্রচলিত আইনের বিধি বিধান অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়ার হবে। 

নির্দেশনাটি দেখুন:

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।




পাঠকের মন্তব্য দেখুন
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের আবেদনে ভুল সংশোধনের সুযোগ - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের আবেদনে ভুল সংশোধনের সুযোগ আসছে বছর থেকেই পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে প্রোগ্রামিং - dainik shiksha আসছে বছর থেকেই পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে প্রোগ্রামিং ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস রুটিন - dainik shiksha ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস রুটিন ইবতেদায়ি ও দাখিল শিক্ষার্থীদের পঞ্চম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha ইবতেদায়ি ও দাখিল শিক্ষার্থীদের পঞ্চম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতনও ইএফটিতে - dainik shiksha প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতনও ইএফটিতে ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষার দায়িত্ব মাদরাসা বোর্ডের - dainik shiksha ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষার দায়িত্ব মাদরাসা বোর্ডের প্রতি স্কুলের তিন শিক্ষককে করতে হবে কৈশোরকালীন পুষ্টি প্রশিক্ষণ - dainik shiksha প্রতি স্কুলের তিন শিক্ষককে করতে হবে কৈশোরকালীন পুষ্টি প্রশিক্ষণ please click here to view dainikshiksha website