স্কুল মাঠে কচুরিপানা খেলাধুলা বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা


স্কুল মাঠে কচুরিপানা খেলাধুলা বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি |

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার বাজিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পানিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে কচুরিপানার জন্ম হয়েছে।

বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণের সময় মাঠ থেকে মাটি কেটে ভবনের ভিটি উঁচু করা হয়। স্কুলের মাঠটির অবস্থান আগেই সমতল ছিল। এতে মাঠের জমি আরও নিচু হয়ে পরে। আলাদা কোন মাঠ না থাকায় খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত ওই বিদ্যালয়ের কয়েক শ’ শিক্ষার্থী। বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে দেখা যায়, মাঠের পশ্চিম পাশের অংশ বাজিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এবং পূর্ব দিকের অংশ বাজিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। এর মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অংশই পানিতে ডুবে আছে। মাঠ থেকে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে জন্ম নিয়েছে কচুরিপানা ও বিভিন্ন প্রজাতির ঘাস। দেখতে মনে হয় স্কুল মাঠ না যেন গবাদিপশুর খড়ের ক্ষেত।

বিদ্যালয় সংলগ্ন কামাল হোসেন নামে এক অভিভাবক জানান, বিদ্যালয়ের সামনে মাঠের জমি আছে। কিন্তু মাটি ভরাট করে উচুঁ না করায় মাঠ কোন কাজে আসছে না। ওই মাঠ থেকে আমরা প্রতিদিন গরুর জন্য খড় নিয়ে আসি। আক্ষেপ করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শাকিব জানায়, এমন স্কুলে পড়ি খেলার মাঠ নেই। অবসর সময় খেলতে পারিনা। কবে যে এই স্কুলে খেলার জন্য একটি সুন্দর মাঠ দেখতে পারব জানিনা। বাজিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.বাবুল হোসেন বলেন, নিজস্ব অর্থায়নে গত বছর হাইস্কুলের অংশ বালু দিয়ে ভরাট করা হয়েছিল। মাঠের চার পাশে নিচু জমি। ভারিবর্ষণে বালু বিভিন্ন স্থানে নেমে গেছে। শিক্ষার্থীদের খেলা-ধূলার জন্য অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে মাঠটি।

ছবি : সংগ্রহীত

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রেজাউল করিম বলেন, এই বিদ্যালয়ে আমি সদ্য যোগদান করেছি। বিদ্যালয়ের মাঠের দূরাবস্থা। মাঠ ভরাটের বরাদ্দের জন্য বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ করা হয়েছে। বরাদ্দ পেলে অবশ্যই মাঠটি ভরাট করা হবে।


পাঠকের মন্তব্য দেখুন
অ্যাসাইনমেন্টের সঙ্গে স্কুলের বেতনের সম্পর্ক নেই : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অ্যাসাইনমেন্টের সঙ্গে স্কুলের বেতনের সম্পর্ক নেই : শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঘটনাচক্রে শিক্ষক : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঘটনাচক্রে শিক্ষক : শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয় তদবিরে : সেতুমন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয় তদবিরে : সেতুমন্ত্রী ছাত্রীর চুল কেটে দেওয়ায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা - dainik shiksha ছাত্রীর চুল কেটে দেওয়ায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা এ সপ্তাহে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু - dainik shiksha এ সপ্তাহে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু অষ্টম-নবম শ্রেণির ক্লাস দুই দিন : নতুন রুটিন প্রকাশ - dainik shiksha অষ্টম-নবম শ্রেণির ক্লাস দুই দিন : নতুন রুটিন প্রকাশ করোনার বন্ধে এক স্কুলেই অর্ধশতাধিক বাল্যবিবাহ - dainik shiksha করোনার বন্ধে এক স্কুলেই অর্ধশতাধিক বাল্যবিবাহ please click here to view dainikshiksha website