অধ্যক্ষ নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা


অধ্যক্ষ নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি |

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় পরীক্ষায় প্রথম হওয়া সত্ত্বেও অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আড়াইবাড়ি কামিল মাদরাসার গভর্নিং কমিটির বিরুদ্ধে। এতে মাদরাসার কার্যক্রম স্থবির হওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করেন ছাত্র ও অভিভাবকরা।

জানা যায়, গত বছর উপজেলার আড়াইবাড়ি ইসলামিয়া সাঈদীয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ গোলাম সারোয়ার সাঈদী মারা যান। ওই পদে গত ১১ সেপ্টেম্বর নিয়োগ পরীক্ষা হয়।

এতে প্রথম হয়েছেন মুফতি আমিনুল ইসলাম নামে একজন প্রার্থী। চূড়ান্তভাবে আমিনুল ইসলামকে নিয়োগ দেওয়ার জন্য কমিটি সিদ্ধান্ত নিলেও গভর্নিং বডির সভাপতি ও একজন সদস্য নেপথ্যে কলকাঠি নাড়ছেন। বিতর্কিত একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ তুলে মুফতি আমিনুল ইসলামকে নিয়োগ প্রদান থেকে বিরত রেখে পুলিশি তদন্ত চাওয়া হয়। 

গভর্নিং কমিটির সভাপতি আনিসুল হক ভুঁইয়া ও অপর সদস্য মোশারফ হোসেন ইকবাল দাবি করেন, তারা থানার মাধ্যমে খোঁজ নিয়ে জেনেছেন আমিনুল ইসলাম জামায়াতের রুকন। তবে এ বিষয়ে তাদের কাছে কোনো প্রমাণ আছে কিনা জানতে চাইলে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যান।

মুফতি আমিনুল ইসলাম বলেন, আমি কোনো সময় জামায়াত-শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলাম না। এটা মিথ্যা। আমাকে অপবাদ দিয়ে নিয়োগ থেকে বিরত রাখা হচ্ছে।\হকসবা থানার ওসি মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বলেন, গভর্নিং কমিটি ও প্রশাসনের অনুরোধে আমরা মুফতি আমিনুল সম্পর্কে খোঁজ নিয়েছি। তার কোনো রাজনৈতিক সংশ্নিষ্টতা পাওয়া যায়নি।

গভর্নিং কমিটির অন্যতম দাতা সদস্য ও বিজিএমইএ নির্বাহী কমিটির পরিচালক সিআইপি বদিউল আলম বলেন, আসলে এটা কিছুই না। বর্তমানে যারা মাদরাসার একাডেমিক দায়িত্বে আছেন তাদেরই দুরভিসন্ধি।

মাদরাসার সহকারী অধ্যাপক শেখ কামাল উদ্দিন জানান, শিক্ষকরা আমিনুল ইসলাম সম্পর্কে কোনো অভিযোগ করেননি। নিয়োগের বিষয়টি সম্পন্ন করবে নির্বাচনী কমিটি ও গভার্নিং কমিটি। তবে তারা জেনেছেন নির্বাচনী পরীক্ষায় আমিনুর ইসলাম প্রথম হয়েছেন।


পাঠকের মন্তব্য দেখুন
একাদশের শিক্ষার্থীদের গ্রুপ-ভার্সন পরিবর্তন ও টিসি কার্যক্রম ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত - dainik shiksha একাদশের শিক্ষার্থীদের গ্রুপ-ভার্সন পরিবর্তন ও টিসি কার্যক্রম ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে জাতিসংঘের প্রস্তাব মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে জাতিসংঘের প্রস্তাব মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী মাদরাসা গেইটের সামনের দোকান না রাখার নির্দেশ - dainik shiksha মাদরাসা গেইটের সামনের দোকান না রাখার নির্দেশ স্বপদে বহাল রেখে শিক্ষক ফারহানাকে শাস্তি দিল কর্তৃপক্ষ - dainik shiksha স্বপদে বহাল রেখে শিক্ষক ফারহানাকে শাস্তি দিল কর্তৃপক্ষ ৪৪ সরকারি কলেজে নতুন উপাধ্যক্ষ - dainik shiksha ৪৪ সরকারি কলেজে নতুন উপাধ্যক্ষ সেই শিক্ষককে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে - dainik shiksha সেই শিক্ষককে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’ - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’ please click here to view dainikshiksha website